WHAT'S NEW?
Loading...

আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ইতি টানলেন রস টেলর

                                                        



প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করেছেন নিউজিল্যান্ডের অভিজ্ঞ ব্যাটার রস টেলর।এরফলে নিউজিল্যান্ডের এক সফল  মিডলঅর্ডার ব্যাটারের ক্যারিয়ার সমাপ্ত হলো। উল্লেখ্য ২০০৬ সালে এই ব্যাটারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়। এখানে রস টেলরের ক্যারিয়ারচিএ তুলে ধরছি।


রস টেলরের ক্যারিয়ারচিএ 


আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রস টেলরের অভিষেক হয় ২০০৬ সালে। টেলরের টেস্ট অভিষেক হয় ২০০৭ সালে ।এই ব্যাটারের ওয়ানডে অভিষেক হয় ২০০৬ সালে।রস টেলরের টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে অভিষেক হয় ২০০৬ সালে।

টেস্ট ক্যারিয়ার 


১১২ ম্যাচ - ৭,৬৮৪ রান । ১৯টি সেঞ্চুরি ও ৩৫টি হাফসেঞ্চুরি  ।



ওয়ানডে ক্যারিয়ার 



২৩৩ ম্যাচ - ৮,৬০২ রান ।২১টি সেঞ্চুরি ও ৫১টি হাফসেঞ্চুরি।



টিটুয়েন্টি ক্যারিয়ার 



১০২ ম্যাচ - ১৯০৯ রান । ৭টি হাফসেঞ্চুরি।


ফাষ্টক্লাস ক্যারিয়ার 



রস টেলর ভিক্টোরিয়া,সাসেক্স, নটিংহ্যাম্পশায়ার,ডারহাম, রয়াল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু, রাজস্থান রয়্যালস, সেন্ট লুসিয়া জুকসের মত বিখ্যাত ক্লাব ও ফ্রাঞ্চাইজির হয়ে ফাষ্টক্লাস ক্রিকেট খেলেছেন।ফাষ্টক্লাস ক্রিকেটে এই ব্যাটার ইতিপূর্বে ব্যাট হাতে ১২,৩৬৯ রান করেছেন।




রস টেলরের অজানা তথ্য 



রস টেলরের ক্যারিয়ারের কিছু অজানা তথ্য এখানে তুলে ধরছি।


হকিতেও দক্ষ 


রস টেলর একসময় ক্রিকেটের পাশাপাশি হকিও খেলতেন।


ওয়ানডেতে দেশের সর্বোচ্চ রানকারী 


রস টেলর নিউজিল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বাধিক রানের মালিক।



টেষ্টে নিউজিল্যান্ডের শীর্ষ রানকারী 


রস টেলর টেস্ট ক্রিকেটে নিউজিল্যান্ডের সর্বাধিক রানকারী ব্যাটারদের মধ্যে অন্যতম।


কিউইদের মধ্যে সর্বাধিক সেঞ্চুরি 


ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট মিলিয়ে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির মালিক (৪০টি সেঞ্চুরি)  রস টেলর।


চার নম্বরে রেকর্ড রান 


ওয়ানডে ক্রিকেটে চার নম্বরে ব্যাট করে রস টেলর মোট ৭৬৯০ রান করেন যা ওয়ানডে ক্রিকেটে আর কোন ব্যাটারের নেই।


কিউইদের মধ্যে সর্বোচ্চ রান 


ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট মিলিয়ে রস টেলর নিউজিল্যান্ডের সর্বোচ্চ রানের মালিক। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে রস টেলর ১৮ হাজারের বেশি রান করেছেন ।



রেকর্ডসংখ্যক ক্যাচ নিয়েছেন 


রস টেলর ফিল্ডার হিসেবেও দুর্দান্ত ।রস টেলর তাঁর ক্রিকেট ক্যারিয়ারে ৩৫০টি ক্যাচ নিয়েছেন যা উইকেটরক্ষকদের বাইরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তৃতীয় সর্বোচ্চ ক্যাচ নেয়ার রেকর্ড।