WHAT'S NEW?
Loading...

টিটুয়েন্টির ইতিহাসে সেরা ১০ প্লেয়ার

                                                            
                                                ছবি : ক্রিস গেইল


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সবচেয়ে ছোট ফরম্যাট টিটুয়েন্টি। ছোট ফরম্যাট হওয়ায় টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের প্রতি দর্শক ও সাপোর্টারদের আবেগ তুলনামূলকভাবে কিছুটা ভিন্ন। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে কারা সবচেয়ে সফল প্লেয়ার সেটি  নিয়েও বিভিন্ন আলোচনা রয়েছে।এ লেখায় টিটুয়েন্টি ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা ১০ প্লেয়ারের কথা তুলে ধরব (সূত্র: স্পোর্টসহাবনেট )। 


ক্রিস গেইল 


স্পোর্টসহাবনেট ডটকম তাদের বিবেচনায় টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা দশ প্লেয়ারের তালিকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং লিজেন্ড ক্রিস গেইলকে রেখেছে সবার উপরে। এক্ষেএে টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে গেইলের চারছক্কা হাঁকানোর চমৎকার এবিলিটিকে বিশেষভাবে তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়া  টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে সবধরণের উইকেটে আগ্ৰাসী ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি পেস ও স্পিন উভয়ধরণের বোলিংয়ের বিপক্ষে ক্রিস গেইলের সমান সফলতার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে। উল্লেখ্য স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ক্রিস গেইলের রেকর্ড ২২টি সেঞ্চুরি ও ৮৮টি ফিফটি রয়েছে।


ডেভিড ওয়ার্নার 


স্পোর্টসহাবনেটের বিবেচনায় টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা দশ প্লেয়ারের  তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন অষ্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি ব্যাটার ডেভিড ওয়ার্নার। উল্লেখ্য ২০২১ সালের ম্যানস টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়ার্নার ব্যাট হাতে দারুণ সফলতা পান যার উপর ভর করে অষ্ট্রেলিয়া টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করে। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ওয়ার্নারের মত দীর্ঘসময় ধরে  সহজাত স্টোকপ্লের দক্ষতা খুব কম ক্রিকেটারই দেখাতে পেরেছেন। উল্লেখ্য স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ওয়ার্নার ৮টি সেঞ্চুরি ও ৮৫টি ফিফটির মালিক।



শেন ওয়াটসন 


অষ্ট্রেলিয়ার সাবেক অলরাউন্ডার শেন ওয়াটসন স্পোর্টসহাবনেটের  সর্বকালের সেরা দশ টিটুয়েন্টি প্লেয়ারের তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন। উল্লেখ্য এই অষ্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার জাতীয় দলের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন জনপ্রিয় ফ্রাঞ্চাইজি লিগেও নিয়মিত প্লেয়ার ছিলেন। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ওয়াটসনের মত বল এবং ব্যাট সমান সফলতা খুব কম ক্রিকেটারই দেখাতে পেরেছেন। উল্লেখ্য এই অষ্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ৬টি সেঞ্চুরির পাশাপাশি ৫৩টি ফিফটি করেছেন।


এবি ডি ভিলিয়ার্স 


টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সফল প্লেয়ারদের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স অন্যতম।স্পোটর্সহাবনেটের সর্বকালের সেরা দশ টিটুয়েন্টি প্লেয়ারের তালিকায় দক্ষিণ আফ্রিকার এই ব্যাটারের নামটিও রয়েছে। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে যেকোন উইকেট ও পজিশনে সফলতা লাভের বিশেষ এক গুণ ডি ভিলিয়ার্সের ব্যাটিংয়ে পাওয়া যায়। তাছাড়া  চমৎকার টেকনিক ও সফল ফিনিশিং দক্ষতার জন্যও এই ব্যাটার আলোচিত। উল্লেখ্য ডি ভিলিয়ার্স স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে এবি ডি ভিলিয়ার্সের ৪টি সেঞ্চুরি ও ৬৯টি ফিফটি রয়েছে।


কিয়েরন পোলার্ড 


টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল ও জনপ্রিয় অলরাউন্ডারদের মধ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিয়েরন পোলার্ড অন্যতম।স্পোর্টসহাবনেটের সর্বকালের সেরা দশ টিটুয়েন্টি প্লেয়ারের তালিকায় এই উইন্ডিজ অলরাউন্ডারের নামটিও রয়েছে। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ব্যাট হাতে পোলার্ডের যেমন সময়োপযোগী ব্যাটিংয়ের চমৎকার দক্ষতা  রয়েছে তেমনি টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ের জন্যও এই বোলার বিখ্যাত। উল্লেখ্য স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ৩০০ উইকেট ও ১০হাজার রানকারী প্রথম ক্রিকেটার পোলার্ড।


আন্দ্রে রাসেল 


স্পোর্টসহাবনেটের টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে সর্বকালের সেরা  দশ টিটুয়েন্টি প্লেয়ারের তালিকায় আন্দ্রে রাসেলের নাম রয়েছে। টিটুয়েন্টি  ক্রিকেটকে জনপ্রিয় করার পেছনে যেসব প্লেয়ারের অবদান বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয় তাদের মধ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের আন্দ্রে রাসেল অন্যতম। ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় দলের পাশাপাশি বিশ্বের সব বড় বড় টিটুয়েন্টি লিগে এই অলরাউন্ডার নিয়মিত খেলে থাকেন। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ফিনিশার হিসেবে যেমন তাঁর সফলতা রয়েছে তেমনি বল হাতেও এই অলরাউন্ডার দারুণ সফল। উল্লেখ্য স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে আন্দ্রে রাসেলের ২টি সেঞ্চুরি ও ২৫টি ফিফটি রয়েছে। এছাড়া এই অলরাউন্ডার ইতিমধ্যে স্বীকৃত টিটুয়েন্টিতে ৩৫৪টি উইকেট শিকার করেছেন।


সুনীল নারাইন 


স্পোর্টসহাবনেটের সর্বকালের সেরা দশ টিটুয়েন্টি প্লেয়ারের তালিকায় সুনীল নারাইনের নাম রয়েছে। উল্লেখ্য টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল স্পিনারদের মধ্যেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সুনীল নারাইনের নামটি উচ্চারিত হয়। তাছাড়া টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে টপঅর্ডারে নেমে দ্রুত রান তোলার ক্ষেএেও এই প্লেয়ারের দুর্দান্ত সফলতা রয়েছে। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ধারাবাহিকভাবে ভালো বল করার দক্ষতার জন্যও নারাইন বিখ্যাত।। উল্লেখ্য স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে সুনীল নারাইন ১০টি ফিফটির পাশাপাশি বল হাতে ৪৭৯টি উইকেট নিয়েছেন।



রশিদ খান 


টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল স্পিনারদের একজন আফগানিস্তানের রশিদ খান।স্পোর্টসহাবনেটের বিবেচনায় টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা দশ প্লেয়ারের তালিকায় এই আফগান লেগস্পিনারের নাম রয়েছে ।এই লেগস্পিনার টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে সবচেয়ে ইফেকটিভ বোলারদের মধ্যে অন্যতম। টিটুয়েন্টিতে তাঁর বোলিং ইকোনমিও  খুব ভালো। উল্লেখ্য স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে রশিদ খান বল হাতে ৫২৩টি উইকেট নিয়েছেন।



লাসিথ মালিঙ্গা 


শ্রীলঙ্কার সাবেক পেসার লাসিথ মালিঙ্গাকে টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সেরা বোলারদের একজন হিসেবে ধরা হয়।স্পোর্টসহাবনেটের বিবেচনায় টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা দশ প্লেয়ারের একজন  এই লংকান পেসার।বিশেষত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল পেসার হিসেবে লাসিথ মালিঙ্গার নাম উচ্চারিত হয়। এছাড়া টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ডেথ ওভারে মালিঙ্গার মত সফল বোলার খুব কম দেখা যায়। উল্লেখ্য লাসিথ মালিঙ্গা স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ৩৯০টি উইকেট নিয়েছেন।



জাসপ্রিত বুমরা 


ভারতের পেসার জাসপ্রিত বুমরাকে টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসের সবচেয়ে সেরা বোলারদের একজন হিসেবে ধরা হয়।স্পোর্টসহাবনেটের বিবেচনায় টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসের সেরা দশ প্লেয়ারের একজন হিসেবেও এই পেসারকে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। নিখুঁত লাইনলেংথ ও কার্যকর ইয়র্কারের জন্য বুমরা টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে সেরা বোলারদের একজন হিসেবে পরিচিত। তাছাড়া টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে বুমরার মত কৌশলী বোলার খুব বেশি দেখা যায় না। উল্লেখ্য স্বীকৃত টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে বুমরা ইতিমধ্যে ২৩৮টি উইকেট নিয়েছেন।