WHAT'S NEW?
Loading...

মুস্তাফিজের আইপিএল রেকর্ড

                                                            


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ এবারের  আইপিএলের ( ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ) মেগা নিলামে বাংলাদেশের একমাত্র প্লেয়ার হিসেবে দল পেয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। ২০২২ আইপিএলের মেগা নিলামে দিল্লি ক্যাপিটালস ২কোটি রুপি ভিওিমূল্যে এই পেসারকে দলভুক্ত করে। উল্লেখ্য ২০১৬ সালে প্রথমবার মুস্তাফিজুর রহমান আইপিএলে খেলার সুযোগ পান । পরবর্তীতে ২০১৭,২০১৮ এবং সর্বশেষ ২০২১ সালের আইপিএলে অংশ নিয়েছেন এই পেসার। আইপিএলে ইতিমধ্যে ৩৮ ম্যাচ খেলে মুস্তাফিজের সংগ্ৰহ ৩৮ উইকেট। আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ৩/১৬ (২০১৬)। মুস্তাফিজুর রহমানের আইপিএল রেকর্ড এখানে তুলে ধরছি।


মুস্তাফিজের আইপিএল রেকর্ড 


এই সময়ের ক্রিকেটের সফল পেসারদের একজন বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান। আইপিএলেও এই পেসার যথারীতি সফল। আসুন মুস্তাফিজুর রহমানের আইপিএল রেকর্ডগুলো দেখে নিই।


২০১৬ আইপিএল 


মুস্তাফিজুর রহমান ২০১৬ সালে প্রথমবারের মত আইপিএলে খেলার সুযোগ পান।সেই আসরে মুস্তাফিজকে ১কোটি ৪০ রুপিতে দলে ভেড়ায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।সেই আসরে তাঁর দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ আইপিএল শিরোপা জয় করে এবং মুস্তাফিজ ১৭টি উইকেট নিয়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের আইপিএল শিরোপা জয়ে দারুণ সহায়তা করেন।২০১৬ আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৩/১৬।


২০১৭ আইপিএল 


২০১৭ সালের আইপিএলেও মুস্তাফিজুর রহমান সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএলে অংশ নেন।তবে ২০১৭ আইপিএলে এই পেসার খুব বেশি সুবিধা করতে পারেননি সেবার ১টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান।


২০১৮ আইপিএল 


মুস্তাফিজুর রহমান ২০১৮ সালের আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলার সুযোগ পান। সেবার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স তাকে ২ কোটি ২০ লাখ রুপিতে দলে ভেড়ায়।সেই আসরে মুস্তাফিজ খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি ৭ ম্যাচ খেলে ৭টি উইকেট নেন।২০১৮ আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৩/২৪।


২০২১ আইপিএল 


২০২০ সালের আইপিএলে কেকেআর মুস্তাফিজকে দলভুক্ত করার আগ্ৰহ দেখালেও বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য সেবার এই পেসার আইপিএলে খেলতে পারেননি।তবে ২০২০ আইপিএলে না খেললেও ২০২১ সালের আইপিএলে এই পেসার ১কোটি রুপিতে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে মাঠে নামেন এবং  বল হাতে ১৪টি উইকেট নিয়ে রাজস্থান রয়্যালসকে চমৎকার সাপোর্ট দেন।২০২১ আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৩/২০।