WHAT'S NEW?
Loading...

পিএসএলের শিরোপা জিতল লাহোর

                                                           


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ পিএসএলের সপ্তম আসরের শিরোপা জিতল লাহোর কালান্দার্স।  ২০২২ পিএসএলের ফাইনালে মুলতান সুলতান্সকে ৪২ রানে হারিয়ে শিরোপা জেতে লাহোর কালান্দার্স। উল্লেখ্য লাহোর কালান্দার্স এবার প্রথমবারের মতো পিএসএলের শিরোপা জয় করল। আসুন এবারের পিএসএলের সেরা পারফরমারদের পরিসংখ্যান দেখে নিই।


২০২২ পিএসএলের সেরা পাঁচ ব্যাটার


এবারের পিএসএলে ব্যাট হাতে সবচেয়ে সফল ছিলেন লাহোর কালান্দার্সের ব্যাটার ফখর জামান (৫৮৮ রান)। এছাড়া  এবারের পিএসএলে সর্বাধিক ছক্কা মেরেছেন টিম ডেভিড (২১টি তারকা)। এবারের পিএসএলের সেরা পাঁচ ব্যাটারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।



১.ফখর জামান(লাহোর কালান্দার্স) - ১৩ ম্যাচে ৫৮৮ রান‌ ।


২.মোহাম্মদ রিজওয়ান (মুলতান সুলতান্স) -১২ ম্যাচে ৫৪৬ রান।


৩.শান মাসুদ ( মুলতান সুলতান্স) -১২ ম্যাচে ৪৭৮ রান।


৪.শোয়েব মালিক (পেশোয়ার জালমি) -১১ ম্যাচে ৪০১ রান।


৫.আলেক্স হেলস ( ইসলামাবাদ ইউনাইটেড) -৯ ম্যাচে ৩৫৫ রান ।



২০২২ পিএসএলের সেরা পাঁচ বোলার



২০২২ পিএসএলে বল হাতে সবচেয়ে সফল ছিলেন লাহোর কালান্দার্সের পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি (২০উইকেট)। এবারের পিএসএলের সেরা পাঁচ বোলারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।


১. শাহিন শাহ আফ্রিদি (লাহোর কালান্দার্স) - ১৩ ম্যাচে ২০ উইকেট ।


২. শাদাব খান ( ইসলামাবাদ ইউনাইটেড) - ৯ ম্যাচে ১৯ উইকেট ।


৩.জামান খান (লাহোর কালান্দার্স) - ১৩ ম্যাচে ১৮ উইকেট ।


৪.শাহনেয়াজ ধায়ানি (মুলতান সুলতান্স) - ১১ ম্যাচে ১৭ উইকেট ।


৫.ইমরান তাহির (মুলতান সুলতান্স)- ১২ ম্যাচে ১৬ উইকেট ।



২০২২ পিএসএলে সর্বাধিক ছক্কা 



২০২২ পিএসএলে সবচেয়ে বেশি ছক্কা মেরেছেন টিম ডেভিড (১১ ম্যাচে ২১ ছক্কা)। এবারের পিএসএলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ছক্কা মেরেছেন ফখর জামান (১৩ ম্যাচে ২০ ছক্কা)।পিএসএলের এবারের আসরে তৃতীয় সর্বোচ্চ ছক্কা মেরেছেন আজম খান (১২ ম্যাচে ১৯ ছক্কা)।২০২২ পিএসএলে চতুর্থ সর্বোচ্চ ছক্কা মেরেছেন শাদাব খান (৯ ম্যাচে ১৮ ছক্কা) এবং এবারের পিএসএলের পঞ্চম সর্বোচ্চ ছক্কা মেরেছেন রাইলি রুশো (১১ ম্যাচে ১৪ ছক্কা)।



সাম্প্রতিক চাকরির খবর

                                           


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি বাংলাদেশ রেলওয়ের গার্ড গ্ৰেড-২ পদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। দেশের সব জেলার প্রার্থীরা এই পদে আবেদন করতে পারবেন। এখানে বাংলাদেশ রেলওয়ের সাম্প্রতিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হলো।


পদ : গার্ড গ্ৰেড-২ 


পদসংখ্যা  : ৫৩ 


যোগ্যতা : যেকোন স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দ্বিতীয় শ্রেণী বা সমমানের সিজিপিএসহ স্মাতক ডিগ্রি।


বয়স : ০১/০৩/২০২২ তারিখে প্রার্থীর বয়স ১৮-৩০ বছর।তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেএে বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর।


বেতনস্কেল  : চলমান জাতীয় বেতনস্কেলের ১৪ তম গ্ৰেড।


আবেদন ফি : ১১২ টাকা ।


আবেদন প্রক্রিয়া :  অনলাইন(ভিজিট http://br.teletalk.com.bd) ।


আবেদনের শেষ তারিখ : ২ মার্চ ২০২২ থেকে ৬ এপ্রিল ২০২২ বিকাল ৫টা।


সূত্র: প্রথম আলো অনলাইন



২০২২ আইসিসি নারী বিশ্বকাপের সূচি


                                                              



প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আগামী ৪ মার্চ,২০২২ তারিখে শুরু হতে যাচ্ছে এবারের আইসিসি নারী ক্রিকেট (ওয়ানডে) বিশ্বকাপ। এবারের নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ নিউজিল্যান্ড।২০২২ নারী বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড নারী দলের মুখোমুখি হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নারী দল।প্রথম ম্যাচটি টরাঙ্গার বে ওভালে অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য এবারের নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণ করবে। আসুন দেখে নিই এবারের নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের ম্যাচসূচি ও অন্যান্য।


২০২২ নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের সূচি ও অন্যান্য


এবারের আইসিসি নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের আয়োজক নিউজিল্যান্ড। আগামী ৪ মার্চ মাঠে গড়াবে এবারের নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ।২০২২ নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের সূচি ও ভেন্যুর তালিকা এখানে তুলে ধরছি।


ভেন্যু 


২০২২ সালের নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো নিউজিল্যান্ডের ৬টি শহরে অনুষ্ঠিত হবে। এবারের নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো যেসব শহরে অনুষ্ঠিত হবে সেগুলো যথাক্রমে ওকল্যান্ড,ক্রাইষ্টচার্চ,হ্যামিল্টন,ডুনেডিন, ওয়েলিংটন ও টরাঙ্গা।


অংশগ্রহণকারী দল


এবারের আইসিসি নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপে মোট ৮ টি দেশের নারী ক্রিকেট দল অংশ নেবে এবং দেশগুলো যথাক্রমে বাংলাদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড,ভারত, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ,অষ্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড।


২০২২ নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ সূচি 


২০২২ নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের সূচি দেখে নিন।


                                                                 



নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনাল পরিসংখ্যান 


আইসিসি নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনাল পরিসংখ্যান দেখে নিন।


প্রথম (১৯৭৩) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ


 চ্যাম্পিয়ন - ইংল্যান্ড 

রানার্সআপ - অষ্ট্রেলিয়া 


দ্বিতীয়(১৯৭৮) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 

 
চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া

রানার্সআপ - ইংল্যান্ড 

তৃতীয় (১৯৮২) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ। - ইংল্যান্ড 


চতুর্থ (১৯৮৮) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ - ইংল্যান্ড 


পঞ্চম(১৯৯৩ )নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - ইংল্যান্ড 

রানার্সআপ - নিউজিল্যান্ড 


ষষ্ট (১৯৯৭ )নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ - নিউজিল্যান্ড 

সপ্তম (২০০০) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - নিউজিল্যান্ড 

রানার্সআপ - অষ্ট্রেলিয়া 

অষ্টম( ২০০৫ )নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ - ভারত 


নবম (২০০৯) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - ইংল্যান্ড 

রানার্সআপ - নিউজিল্যান্ড 

দশম (২০১৩) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ - ওয়েস্ট ইন্ডিজ 


একাদশ (২০১৭) নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপ 


চ্যাম্পিয়ন - ইংল্যান্ড 

রানার্সআপ - ভারত 


ওয়ানডের সেরা ১০ পার্টনারশিপ

                                                           



প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ বলা হয় টেস্টের পর ওয়ানডে ক্রিকেটেই ব্যাটারদের সবচেয়ে বেশি টেকনিকের পরীক্ষা দিতে হয়।কারণ এখানে পঞ্চাশ ওভার ব্যাটিং করার সুযোগ থাকে। তাছাড়া এটিও বাস্তব যে ওয়ানডে ক্রিকেটে তুলনামূলকভাবে টিটুয়েন্টির চেয়ে বেশি বল খেলার সুযোগ থাকে ।ফলে ওয়ানডে ক্রিকেটের একটি ভিন্ন সৌন্দর্যও রয়েছে। ওয়ানডে ক্রিকেটে ব্যাটারদের জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কোয়ালিটি হচ্ছে পার্টনারশিপ।আর পার্টনারশিপ তৈরি করতে না পারলে  ওয়ানডে ক্রিকেটে (টেস্টের ক্ষেএেও একথা প্রযোজ্য)  বড় ইনিংস খেলা কঠিন। এমনকি ওয়ানডে ক্রিকেটে ভালো পার্টনারশিপ ছাড়া ম্যাচজয়ও অধিকাংশ ক্ষেত্রে অসম্ভব।তাই ওয়ানডে ক্রিকেটে ব্যাটারদের জন্য পার্টনারশিপের গুরুত্ব ব্যাপক।সদ্য সমাপ্ত বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যকার প্রথম ওয়ানডেতে মেহেদি হাসান মিরাজ ও আফিফ হোসেনের দুর্দান্ত এক পার্টনারশিপ বাংলাদেশকে প্রায় হারা ম্যাচ থেকে জয়ী করেছে। আসুন ওয়ানডে ক্রিকেটের সেরা ১০ পার্টনারশিপের রেকর্ড দেখে নিই। উল্লেখ্য ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সেরা ১০ পার্টনারশিপের মধ্যে বাংলাদেশের তামিম ইকবাল ও লিটন দাসের একটি পার্টনারশিপ রয়েছে।



১. ক্রিস গেইল - মারলন স্যামুয়েলস(ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ,৩৭২ রান 


ক্যানবেরা,২০১৫ 

প্রতিপক্ষ - জিম্বাবুয়ে 


২. জন ক্যাম্পবেল - সাই হোপ (ওয়েষ্ট ইন্ডিজ),৩৬৫ রান 


ডাবলিন,২০১৯ 

প্রতিপক্ষ - আয়ারল্যান্ড 


৩.শচীন টেন্ডুলকার - রাহুল দ্রাবিড় (ভারতে),৩৩১ রান 


হায়দারাবাদ ,১৯৯৯

প্রতিপক্ষ - নিউজিল্যান্ড 

৪.সৌরভ গাঙ্গুলী - রাহুল দ্রাবিড় (ভারত),৩১৮ রান 

টাউনটন,১৯৯৯

প্রতিপক্ষ - শ্রীলঙ্কা 

৫.ইমাম উল হক - ফখর জামান (পাকিস্তান),৩০৪ রান 


বুলাওয়ে,২০১৮ 

প্রতিপক্ষ - জিম্বাবুয়ে 

৬.তামিম ইকবাল - লিটন দাস (বাংলাদেশ),২৯২ রান 


সিলেট,২০২০ 

প্রতিপক্ষ - জিম্বাবুয়ে 


৭.সনাথ জয়সুরিয়া - উপল থারাঙ্গা (শ্রীলঙ্কা),২৭৬ রান 


লিডস,২০০৬ 

প্রতিপক্ষ - ইংল্যান্ড 

৮.ডেভিড ওয়ার্নার - ট্রেভিস হেড (অষ্ট্রেলিয়া),২৮৪ রান 


এডিলেড,২০১৭ 

প্রতিপক্ষ - পাকিস্তান 

৯.কুইন্টন ডি কক- হাসিম আমলা (দক্ষিণ আফ্রিকা),অবিচ্ছিন্ন ২৮২ রান


কিম্বার্লি,২০১৭ 

প্রতিপক্ষ - বাংলাদেশ 

১০.তিলকেরত্নে দিলসান- উপল থারাঙ্গা (শ্রীলঙ্কা),২৮২ রান 


পাল্লেকেলে,২০১১ 

প্রতিপক্ষ - জিম্বাবুয়ে 



 

আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি স্কোয়াড

                                                            



প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের চলমান সিরিজের দ্বিতীয় অংশে অনুষ্ঠিত হবে দুটি টিটুয়েন্টি ম্যাচ। এবং আফগানদের বিপক্ষে টিটুয়েন্টি সিরিজের জন্য সম্প্রতি বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে। বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি স্কোয়াডে নতুন মুখ হিসেবে রয়েছেন মুনিম শাহরিয়ার ও ইয়াসির আলী চৌধুরী। উল্লেখ্য আগামী ৩ ও ৫ মার্চ বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যে দুটি টিটুয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।


বাংলাদেশ - আফগানিস্তান টিটুয়েন্টি রেকর্ড 


বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যে ইতিপূর্বে ৭টি টিটুয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে যেখানে বাংলাদেশ ২টি ম্যাচে জয়ী হয়েছে এবং আফগানিস্তান ৪টি ম্যাচে জয়লাভ করেছে। এছাড়া বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যকার ১টি টিটুয়েন্টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে। বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যকার টিটুয়েন্টি রেকর্ড এখানে তুলে ধরছি।


 ১ম টিটুয়েন্টি ম্যাচ,২০১৪ 


ভেন্যু - মিরপুর 

ফলাফল - বাংলাদেশ ৯ উইকেটে জয়ী হয়।


২য় টিটুয়েন্টি ম্যাচ,২০১৮ 


ভেন্যু - দেরাদুন 

ফলাফল - আফগানিস্তান ৪৫রানে জয়ী হয়।


৩য় টিটুয়েন্টি ,২০১৮ 


ভেন্যু - দেরাদুন

ফলাফল - আফগানিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী হয়।


৪র্থ টিটুয়েন্টি,২০১৮ 


ভেন্যু - দেরাদুন 

ফলাফল - আফগানিস্তান ১ রানে জয়ী হয়।

৫ম টিটুয়েন্টি ,২০১৯ 


ভেন্যু - মিরপুর 

ফলাফল - আফগানিস্তান ২৫ রানে জয়ী হয়।

৬ষ্ঠ টিটুয়েন্টি ,২০১৯ 


ভেন্যু - চট্রগ্রাম

ফলাফল - বাংলাদেশ ৪ উইকেটে জয়ী হয়।

৭ম টিটুয়েন্টি,২০১৯ 


ভেন্যু - মিরপুর 

ফলাফল - ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।


বাংলাদেশ টিটুয়েন্টি স্কোয়াড 


মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম,লিটন দাস,আফিফ হোসেন,শেখ মেহেদি হাসান, মোহাম্মদ নাঈম শেখ,ইয়াসির আলী চৌধুরী, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ,নাসুম আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম, মুনিম শাহরিয়ার।


২১শে ফেব্রুয়ারির শুভেচ্ছা

                                                       





প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আজ ২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস।প্রিয় ক্রিকেট ডটকম'এর সকল পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। এবং সেইসাথে সকল ভাষাশহীদ ও ভাষাসৈনিকের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি। পরিশেষে এখানে মহান ভাষা আন্দোলন ও বাংলা ভাষার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য  তুলে ধরার চেষ্টা করছি।


ভাষা আন্দোলন ও বাংলা ভাষার গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলি




এখানে ভাষা আন্দোলন ও বাংলা ভাষার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরছি।


১.  ভাষা আন্দোলনের সময়কাল - ১৯৪৭-১৯৫৬ খ্রিষ্টাব্দ ।


২. বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে প্রথম গঠিত সংগঠন - তমদ্দুন মজলিস।


৩.তমদ্দুন মজলিস যার নেতৃত্বে গঠিত হয়- অধ্যাপক আবুল কাশেম।


৪.বাংলাদেশ সংবিধানের যে অনুচ্ছেদে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে- তৃতীয় অনুচ্ছেদে।


৫.সর্বস্তরে বাংলা ভাষা ব্যবহার নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সরকার 'বাংলা ভাষা প্রচলন আইন ' জারি করে -১৯৮৭ সালে।


৬.ইউনেস্কো ২১শে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণা করে  - ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর।


৭.বর্তমানে পৃথিবীতে যত মানুষ বাংলা ভাষায় কথা বলে- ৩০ কোটির বেশি।


৮.পৃথিবীতে মাতৃভাষীর সংখ্যা বিবেচনায় বাংলা ভাষার অবস্থান -পঞ্চম ।


৯.যে তারিখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় ভাষা আন্দোলনকে বেগবান করার সভায় সভাপতিত্ব করেন - ১৬ মার্চ,১৯৪৮ ।


১০.বাংলা পাকিস্তানের দ্বিতীয় রাষ্ট্রভাষা হিসেবে সাংবিধানিক স্বীকৃতি পায়-২৯ ফেব্রুয়ারি, ১৯৫৬ (চূড়ান্ত সাংবিধানিক স্বীকৃতি ২৩ মার্চ,১৯৫৬)।


১১.ভাষা আন্দোলনের সময় পূর্ব বাংলার গভর্নর ছিলেন - মালিক মোহাম্মদ ফিরোজ খান নুন ।


১২. ভাষা আন্দোলনের সময় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন- খাজা নাজিমুদ্দিন ।


১৩.ভাষা আন্দোলনের মুখপত্র ছিল - সাপ্তাহিক সৈনিক ।


১৪.সাপ্তাহিক সৈনিক প্রথম প্রকাশিত হয় - ১৪ নভেম্বর ,১৯৪৮ ।


১৫.ভাষা আন্দোলনে প্রথম শহীদ - রফিকউদ্দিন আহমদ ।


১৬. বর্তমানে বিশ্বের যে কয়টি দেশে বাংলা  সরকারি ভাষা - তিনটি দেশে (বাংলাদেশ, ভারত ও সিয়েরালিওন)।


১৭. 'আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি' গানটির রচয়িতা- আবদুল গাফফার চৌধুরী।


১৮. বাংলাদেশের বাইরে প্রথম শহীদমিনার নির্মিত হয়- লন্ডন,যুক্তরাজ্য।


১৯. মধ্যপ্রাচ্যের যে দেশে প্রথম শহীদমিনার নির্মিত হয় - ওমান ।


২০. বাংলাদেশের বাইরে যেদেশে প্রথম সরকারি অর্থায়নে শহীদমিনার নির্মিত হয় - টোকিও, জাপান ।


২১. ভাষা আন্দোলনের ফলে যে প্রতিষ্ঠান সৃষ্টি হয় - বাংলা একাডেমি।


২২. ভারতের পশ্চিমবঙ্গ,আসাম ও ত্রিপুরা রাজ্যের সরকারি ভাষা- বাংলা ।


২৩. ভারতের আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের প্রধান ভাষা - বাংলা ।


২৪. ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্যের দ্বিতীয় সরকারি ভাষা - বাংলা ।




বাংলাদেশ - আফগানিস্তান আসন্ন সিরিজসূচি

                                                         



প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি আরেকটি বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ক্রিকেট লড়াই  মাঠে গড়াতে যাচ্ছে। এবারের বাংলাদেশ-আফগানিস্তান  ক্রিকেট সিরিজে ৩টি ওয়ানডে ও ২টি টিটুয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।দুদলের মুখোমুখি ওয়ানডে পরিসংখ্যানে বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে।তবে দুদলের মুখোমুখি টিটুয়েন্টি লড়াইয়ে আফগানিস্তানের জয়ের পাল্লা কিছুটা ভারি। বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের আসন্ন ক্রিকেট সিরিজের ম্যাচসূচি ও দুদলের মধ্যকার অন্যান্য রেকর্ড এখানে তুলে ধরছি।


বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ওয়ানডে সিরিজ সূচি 


বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যকার আসন্ন দ্বিপাক্ষিক সিরিজের সূচি এখানে তুলে ধরছি।

প্রথম ওয়ানডে ,২৩ ফেব্রুয়ারি

ভেন্যু - জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম

সময় : বেলা ১১টা 


দ্বিতীয় ওয়ানডে ,২৫ ফেব্রুয়ারি

ভেন্যু - জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম

সময় : বেলা ১১টা 


তৃতীয় ওয়ানডে ,২৮ ফেব্রুয়ারি 


ভেন্যু - জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম

সময় : বেলা ১১টা 


প্রথম টিটুয়েন্টি ,৩ মার্চ 


ভেন্যু - শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম,ঢাকা 

সময় : দুপুর ৩টা 


দ্বিতীয় টিটুয়েন্টি ,৫ মার্চ 


ভেন্যু - শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম,ঢাকা 

সময় : দুপুর ৩টা 



বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ওয়ানডে রেকর্ড 


বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যে ইতিপূর্বে মোট ৮টি ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে যেখানে বাংলাদেশ ৫টি ম্যাচে জয় পেয়েছে ও আফগানিস্তান ৩টি ম্যাচে জয়লাভ করেছে।


বাংলাদেশ-আফগানিস্তান টিটুয়েন্টি রেকর্ড 


বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মধ্যে ইতিপূর্বে মোট ৬টি টিটুয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে যেখানে বাংলাদেশ ২ ম্যাচে জয় পেয়েছে ও আফগানিস্তান ৪টি ম্যাচে জয়ী হয়েছে। 


বাংলাদেশ ওয়ানডে স্কোয়াড 


আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ওয়ানডের জন্য বাংলাদেশ স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে।

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, লিটন কুমার দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান,আফিফ হোসাইন, শরিফুল ইসলাম, ইবাদত হোসেন,নাসুম আহমেদ, ইয়াসির আলী চৌধুরী, মাহমুদুল হাসান জয়।



আফগানিস্তান ওয়ানডে ও টিটুয়েন্টি স্কোয়াড 

বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টিটুয়েন্টি সিরিজের জন্য ঘোষিত আফগানিস্তান স্কোয়াড দেখে নিন।

ওয়ানডে স্কোয়াড : হাসমতউল্লাহ শহিদি(অধিনায়ক), রহমত শাহ(সহ-অধিনায়ক),রহমান উল্লাহ গুরবাজ, ইব্রাহিম জাদরান,রিয়াজ হাসান,নাজিব জাদরান, শহিদ কামাল, ইকরাম অলিকিল, মোহাম্মদ নবি,গুলবাদিন নাইব, রশিদ খান,আজমত ওমরজাই,মুজিব উর রহমান,ফজল হক ফারুকি, ইয়ামিন আহমদজাই,ফরিদ আহমাদ মালিক।রিজার্ভ প্লেয়ার :কাইস আহমাদ,সালিম শফি 



টিটুয়েন্টি স্কোয়াড : মোহাম্মদ নবি (অধিনায়ক), রশিদ খান, মুজিব উর রহমান,রহমানউল্লাহ গুরবাজ, হজরতউল্লাহ জাজাই, উসমান গনি,দারউইশ রাসুলি,নাজিব জাদরান, আফসার জাজাই,করিম জানাত,আজমত ওমরজাই,শরাফউদ্দিন আসরাফ,কাইস আহমাদ,ফজল হক ফারুকি,নিজাত মাসুদ,ফরিদ আহমাদ মালিক।



বিপিএলে চ্যাম্পিয়ন হলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

                                                               



প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ২০২২ বিপিএলের শিরোপা জিতল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ফাইনালে ইমরুল কায়েসের নেতৃত্বাধীন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স  সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন ফরচুন বরিশালকে ১ রানে পরাজিত করে। এবারের বিপিএল ফাইনালে দুদলই নিজেদের সেরাটা দিয়ে ম্যাচ জয়ের চেষ্টা করে যদিও শেষপর্যন্ত কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স জয়লাভ করে। তবে শিরোপা জিততে না পারলেও ফরচুন বরিশালের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এবারের বিপিএলের সেরা প্লেয়ার মনোনিত হন। উল্লেখ্য এ নিয়ে সাকিব আল হাসান চতুর্থবারের মত বিপিএলের 'টুর্নামেন্ট সেরা' প্লেয়ারের পুরস্কার পেলেন।২০২২ বিপিএলের সেরা পারফরমারদের রেকর্ডচিএ এখানে তুলে ধরছি।


২০২২ বিপিএলের সেরা পারফরমার 



এবারের বিপিএলে ব্যাট বলের লড়াই শেষপর্যন্ত বেশ জমে উঠেছিল বলা যায়। এবারের বিপিএলে ব্যাট হাতে সবচেয়ে সফল ছিলেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের উইলি জ্যাকস (১১ ম্যাচে ৪১৪ রান) এবং বল হাতে সর্বাধিক উইকেট শিকারি ছিলেন  কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মুস্তাফিজুর রহমান (১১ ম্যাচে ১৯ উইকেট ) । আসুন এবারের বিপিএলের সেরা পাঁচ পারফরমারের ( ব্যাটার ও  বোলার)  পরিসংখ্যান দেখে নিই।

সেরা পাঁচ ব্যাটার 


১. উইলি জ্যাকস (চট্রগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স) - ১১ ম্যাচে ৪১৪ রান‌ 


২.আন্দ্রে ফ্লেচার(খুলনা টাইগার্স)- ১১ ম্যাচে ৪১০ রান 


৩.তামিম ইকবাল (মিনিষ্টারগ্ৰুপ ঢাকা) - ৯ ম্যাচে ৪০৭ রান 


৪.কলিন ইনগ্ৰাম (সিলেট সানরাইজার্স) - ৯ ম্যাচে ৩৩৩ রান 


৫.ফাফ ডু প্লেসিস (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ) - ১১ ম্যাচে ২৯৫ রান 



সেরা পাঁচ বোলার 


১.মুস্তাফিজুর রহমান (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স) - ১১ ম্যাচে ১৯ উইকেট 


২.ডোয়াইন ব্রাভো (ফরচুন বরিশাল) - ৯ ম্যাচে ১৮ উইকেট 


৩.সাকিব আল হাসান (ফরচুন বরিশাল) -১১ ম্যাচে ১৬ উইকেট 


৪.তানভির ইসলাম (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স) -'১২ ম্যাচে ১৬ উইকেট 


৫.মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী (চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স) -৮ ম্যাচে ১৫ উইকেট 






সাম্প্রতিক চাকরির খবর

                                                             


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) এর ওয়েবসাইটে  সম্প্রতি দেশের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি ২০২২  প্রকাশ করা হয়েছে।এনটিআরসিএ'এর সাম্প্রতিক এই শিক্ষক নিয়োগের বিস্তারিত তথ্য এখানে তুলে ধরছি।


পদ: সহকারী শিক্ষক,প্রভাষক 


পদসংখ্যা : ১৫,১৬৩ (১২,৮০৭টি এমপিওভুক্ত শূন্যপদ ও ২,৩৫৬টি নন-এমপিও শূন্যপদ)


যোগ্যতা : সরকারি বিধি মোতাবেক প্রচলিত যোগ্যতা ও এনটিআরসিএ কর্তৃক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ।


বয়স : ১ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে সর্বোচ্চ ৩৫ বছর। এছাড়া মহামান্য সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের রায় অনুযায়ী ১২.০৬.২০১৮ তারিখের আগে যারা শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের ক্ষেএে বয়স শিথিলযোগ্য।


আবেদন প্রক্রিয়া: অনলাইন (ভিজিট : http://ngi.teletalk.com.bd)



আবেদন ফি : ১০০টাকা 



আবেদনের শেষ তারিখ : ২২.০২.২০২২


সূত্র : প্রথম আলো অনলাইন



বিপিএল ফাইনালের আগে দুদলের সেরা পারফরমার

                                                             


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ  আগামীকাল ১৮ ফেব্রুয়ারি,২০২২ এবারের বিপিএলের ফাইনাল ম্যাচ মাঠে গড়াবে। এবারের বিপিএলের ফাইনালে উঠেছে সাকিব আল হাসানের ফরচুন বরিশাল ও ইমরুল কায়েসের কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এবারের বিপিএলের ফাইনালিস্ট দুই দলই তারকাসমৃদ্ধ। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে যেমন ফাফ ডু প্লেসিস,মঈন আলী , মুস্তাফিজুর রহমানের মত তারকা প্লেয়াররা রয়েছেন তেমনি ফরচুন বরিশালে  সাকিব আল হাসান,ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভোর মত তারকারা রয়েছেন।আসুন বিপিএলের ফাইনালের আগে দুদলের সেরা পারফরমারদের পরিসংখ্যান দেখে নিই।


ফরচুন বরিশালের সেরা পারফরমার 


ফরচুন বরিশাল এবারের বিপিএলে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে চমৎকার ক্রিকেট উপহার দিয়ে ফাইনালে উঠেছে। ফাইনালের আগে ফরচুন বরিশালের সেরা পাঁচ ব্যাটার ও বোলারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।

সেরা পাঁচ ব্যাটার 


১.সাকিব আল হাসান -১০ ম্যাচে ২৭৭ রান

২.ক্রিস গেইল - ৯ ম্যাচে ২০৮ রান 

৩.মুনিম শাহরিয়ার - ৫ ম্যাচে ১৭৮ রান 

৪.নাজমুল হোসেন শান্ত - ১০ ম্যাচে ১৭৬ রান 

৫.তৌহিদ হ্নদয় - ১০ ম্যাচে ১২৭ রান 


সেরা পাঁচ বোলার 

১. ডোয়াইন ব্রাভো - ৯ ম্যাচে ১৭ উইকেট 

২.সাকিব আল হাসান - ১০ ম্যাচে ১৫ উইকেট 

৩.মেহেদি হাসান রানা -৭ ম্যাচে ১০ উইকেট 

৪.মুজিব উর রহমান -৭ ম্যাচে ৮ উইকেট 

৫.শফিকুল ইসলাম - ৭ ম্যাচে ৮ উইকেট 


কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সেরা  পারফরমার


ইমরুল কায়েসের নেতৃত্বাধীন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এবারের বিপিএলে দারুণ ক্রিকেট উপহার দিয়ে ফাইনালে উঠেছে। ফাইনালের আগে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সেরা পাঁচ ব্যাটার ও বোলারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।

সেরা পাঁচ ব্যাটার 


১.ফাফ ডু প্লেসিস -১০ ম্যাচে ২৯১ রান 

২.মাহমুদুল হাসান জয় - ১০ ম্যাচে ২২৭ রান 

৩.লিটন দাস - ৮ ম্যাচে ২০৫ রান 

৪.মঈন আলী - ৭ ম্যাচে ১৮৭ রান

৫.ইমরুল কায়েস - ১০ ম্যাচে ১৮৪ রান 


সেরা পাঁচ বোলার 


১.মুস্তাফিজুর রহমান -১০ ম্যাচে ১৮ উইকেট 

২.তানভির ইসলাম -১১ ম্যাচে ১৪ উইকেট 

৩.শহিদুল ইসলাম -৭ ম্যাচে ১৩ উইকেট 

৪.নাহিদুল ইসলাম - ১০ ম্যাচে ১১ উইকেট 

৫.মঈন আলী -৭ ম্যাচে ৯ উইকেট 



মুস্তাফিজের আইপিএল রেকর্ড

                                                            


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ এবারের  আইপিএলের ( ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ) মেগা নিলামে বাংলাদেশের একমাত্র প্লেয়ার হিসেবে দল পেয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। ২০২২ আইপিএলের মেগা নিলামে দিল্লি ক্যাপিটালস ২কোটি রুপি ভিওিমূল্যে এই পেসারকে দলভুক্ত করে। উল্লেখ্য ২০১৬ সালে প্রথমবার মুস্তাফিজুর রহমান আইপিএলে খেলার সুযোগ পান । পরবর্তীতে ২০১৭,২০১৮ এবং সর্বশেষ ২০২১ সালের আইপিএলে অংশ নিয়েছেন এই পেসার। আইপিএলে ইতিমধ্যে ৩৮ ম্যাচ খেলে মুস্তাফিজের সংগ্ৰহ ৩৮ উইকেট। আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ৩/১৬ (২০১৬)। মুস্তাফিজুর রহমানের আইপিএল রেকর্ড এখানে তুলে ধরছি।


মুস্তাফিজের আইপিএল রেকর্ড 


এই সময়ের ক্রিকেটের সফল পেসারদের একজন বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান। আইপিএলেও এই পেসার যথারীতি সফল। আসুন মুস্তাফিজুর রহমানের আইপিএল রেকর্ডগুলো দেখে নিই।


২০১৬ আইপিএল 


মুস্তাফিজুর রহমান ২০১৬ সালে প্রথমবারের মত আইপিএলে খেলার সুযোগ পান।সেই আসরে মুস্তাফিজকে ১কোটি ৪০ রুপিতে দলে ভেড়ায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।সেই আসরে তাঁর দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ আইপিএল শিরোপা জয় করে এবং মুস্তাফিজ ১৭টি উইকেট নিয়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের আইপিএল শিরোপা জয়ে দারুণ সহায়তা করেন।২০১৬ আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৩/১৬।


২০১৭ আইপিএল 


২০১৭ সালের আইপিএলেও মুস্তাফিজুর রহমান সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএলে অংশ নেন।তবে ২০১৭ আইপিএলে এই পেসার খুব বেশি সুবিধা করতে পারেননি সেবার ১টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান।


২০১৮ আইপিএল 


মুস্তাফিজুর রহমান ২০১৮ সালের আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলার সুযোগ পান। সেবার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স তাকে ২ কোটি ২০ লাখ রুপিতে দলে ভেড়ায়।সেই আসরে মুস্তাফিজ খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি ৭ ম্যাচ খেলে ৭টি উইকেট নেন।২০১৮ আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৩/২৪।


২০২১ আইপিএল 


২০২০ সালের আইপিএলে কেকেআর মুস্তাফিজকে দলভুক্ত করার আগ্ৰহ দেখালেও বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য সেবার এই পেসার আইপিএলে খেলতে পারেননি।তবে ২০২০ আইপিএলে না খেললেও ২০২১ সালের আইপিএলে এই পেসার ১কোটি রুপিতে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে মাঠে নামেন এবং  বল হাতে ১৪টি উইকেট নিয়ে রাজস্থান রয়্যালসকে চমৎকার সাপোর্ট দেন।২০২১ আইপিএলে মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৩/২০।



হেলথ চেকআপ : কোথায় কত খরচ

                                                            


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সুস্বাস্থ্যের জন্য যেমন  নিয়মিত কিছু নিয়ম কানুন মেনে চলা জরুরি তেমনি বছরে অন্তত একবার হেলথ চেকআপও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদিও দৈনন্দিন বিবিধ ব্যস্ততায় অনেকের পক্ষে নিয়মিত হেলথ চেকআপ সম্ভব হয়ে ওঠে না।তবে বছরে অন্তত একবার হেলথ চেকআপ করা উচিত বলেই স্বাস্থ্যবিদরা বলে থাকেন। আসুন  বাংলাদেশের বিভিন্ন শীর্ষস্থানীয় মেডিকেল সার্ভিসেস প্রতিষ্ঠানের হেলথ চেকআপ চার্জ সম্পর্কে জেনে নিই।


ইউনাইটেড হসপিটাল 


বাংলাদেশের জনপ্রিয় ও বিশ্বস্ত মেডিকেল সার্ভিসেস প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ইউনাইটেড হসপিটাল অন্যতম। ইউনাইটেড হসপিটালের বিভিন্ন ধরণের হেলথ চেকআপ সার্ভিস রয়েছে যেমন এক্সিকিউটিভ বেসিক চেকআপ, এক্সিকিউটিভ প্রিমিয়ার চেকআপ, হোল বডি চেকআপ এর মধ্যে অন্যতম। ইউনাইটেড হসপিটালের বেসিক চেকআপ চার্জ ৯,০০০ টাকা। তাদের এক্সিকিউটিভ প্রিমিয়ার চেকআপ চার্জ ১২,০০০ টাকা (পুরুষ) ও নারী (১৫,০০০টাকা)। এছাড়া ইউনাইটেড হসপিটালের হোল বডি চেকআপ চার্জ সর্বনিম্ন ২০,০০০টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২৮,০০০ টাকা। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন (www.uhlbd.com)।


বারডেম জেনারেল হসপিটাল 


বাংলাদেশের সুপরিচিত ও বিশ্বস্ত মেডিকেল সার্ভিসেস প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বারডেম জেনারেল হসপিটাল অন্যতম।বারডেম জেনারেল হসপিটালে বিভিন্ন ধরণের হেলথ চেকআপ প্যাকেজ রয়েছে।তাদের এক্সিকিউটিভ হেলথ চেকআপ প্যাকেজের আওতায় জেনারেল হেলথ চেকআপ চার্জ ৬,১৮০ টাকা। এছাড়া রয়েছে এনুয়াল কার্ডিয়াক হেলথ চেকআপ যার চার্জ ৯,৬৬০ টাকা । বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন (www.birdembd.org)।


স্কয়ার হসপিটাল 


বাংলাদেশের বর্তমান সময়ের শীর্ষ মেডিকেল সার্ভিসেস প্রতিষ্ঠানের মধ্যে স্কয়ার হসপিটাল লিমিটেড অন্যতম।স্কয়ার হসপিটালে বিভিন্ন ধরণের হেলথ চেকআপ প্যাকেজ রয়েছে। এখানে এক্সিকিউটিভ হেলথ চেক (বেসিক) চার্জ ৪,৯৯০ টাকা। এছাড়া এক্সিকিউটিভ হেলথ চেক (মডারেট) চার্জ ১২,০০০ টাকা।স্কয়ার হসপিটালের এক্সিকিউটিভ হেলথ চেক (প্রিমিয়াম )প্যাকেজের চার্জ ১৪,৫০০ টাকা। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন (www.squarehospital.com)।


ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হসপিটাল 


বাংলাদেশের শীর্ষ ও বিশ্বস্ত মেডিকেল সার্ভিসেস প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হসপিটাল অন্যতম।ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হসপিটালে বিভিন্ন ধরণের হেলথ চেকআপ প্যাকেজ রয়েছে। এখানে জেনারেল হেলথ চেকআপ চার্জ হচ্ছে ৫,০০০ টাকা। এছাড়া স্ট্যান্ডার্ড হেলথ স্ক্রিনিং প্যাকেজ চার্জ ৭,৫০০ টাকা। তাদের প্রিমিয়ার হেলথ স্ক্রিনিং প্যাকেজ চার্জ ১০,০০০ টাকা। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন (www.labaidhospital.com)।


পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার 


বাংলাদেশের বর্তমান সময়ের শীর্ষ মেডিকেল সার্ভিসেস প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার অন্যতম। এখানে বিভিন্ন ধরণের হেলথ চেকআপ প্যাকেজ রয়েছে। পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে প্রাইমারি হেলথ চেকআপ চার্জ (প্যাকেজ-২) ৪,২০০ টাকা। এছাড়া তাদের প্রাইমারি হেলথ চেকআপ চার্জ (প্যাকেজ-১) ৫,২০০টাকা। এখানে কম্প্রিহেনসিভ হেলথ চেকআপ (পুরুষ) চার্জ ৮,০০০টাকা ও (নারী) ৯,৮০০টাকা।




ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড

                                                              

                                             ছবি: কেনসিংটন ওভাল 

প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ক্রিকেটের জনপ্রিয় টিমগুলোর একটি ওয়েষ্ট ইন্ডিজ। ক্রিকেটের জনপ্রিয়তার পেছনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের  বিখ্যাত প্লেয়ারদের অবদান বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। ওয়েস্ট ইন্ডিজে জন্মগ্ৰহন করেছেন গ্যারফিল সোবার্স,ভিভ রিচার্ডস,এন্ডি রবার্টস, মাইকেল হোল্ডিং,ব্রায়ান লারা,কোটনি ওয়ালশ, শিবনারায়ণ চন্দরপল,ক্রিস গেইল,ডোয়াইন ব্রাভোর মত বিখ্যাত সব ক্রিকেটার। ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরনো টিমগুলোর মধ্যেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ অন্যতম। এছাড়া এসবের সাথে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সুদৃশ্য ক্রিকেটগ্ৰাউন্ডগুলোর কথাও বিশেষভাবে বলতে হয়।  এখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ক্রিকেটগ্ৰাউন্ডগুলোর পরিচিতি তুলে ধরছি(সূত্র: উইকিপিডিয়া)।



ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড ‌


ক্রিকেটের জন্য ওয়েষ্ট ইন্ডিজে গড়ে উঠেছে বেশকিছু সুদৃশ্য স্টেডিয়াম। ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ডগুলোর মধ্যে কেনসিংটন ওভাল,বহুরডা(গায়ানা),কুইন্সপার্ক ওভাল, সাবিনা পার্ক,প্রভিডেন্স স্টেডিয়াম প্রভৃতি অন্যতম।



কেনসিংটন ওভাল 


ক্রিকেটের জন্য যতগুলো মাঠ ওয়েস্ট ইন্ডিজে গড়ে উঠেছে এরমধ্যে  কেনসিংটন ওভাল অন্যতম। কেনসিংটন ওভাল স্টেডিয়াম বারবাডোসে অবস্থিত। দর্শকধারণক্ষমতা বিবেচনায় কেনসিংটন ওভাল ওয়েষ্ট ইন্ডিজের বৃহত্তম ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড।এই মাঠের দর্শকধারণক্ষমতা ২৮ হাজার। অর্থাৎ কেনসিংটন ওভালে একসাথে ২৮,০০০ দর্শকের খেলা দেখার সুবিধা রয়েছে।


বহুরডা (গায়ানা) 


ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ডগুলোর মধ্যে বহুরডা (গায়ানা) অন্যতম। দর্শকধারণক্ষমতা বিবেচনায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের অন্যতম বৃহৎ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ডও এটি।বহুরডা (গায়ানা) স্টেডিয়ামের দর্শকধারণক্ষমতা ২৫,০০০। অর্থাৎ এই স্টেডিয়ামে একসাথে ২৫ হাজার দর্শকের খেলা দেখার সুবিধা রয়েছে।


কুইন্সপার্ক ওভাল 


কুইন্সপার্ক ওভাল ওয়েষ্ট ইন্ডিজের অন্যতম বৃহৎ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড।কুইন্সপার্ক ওভাল ক্রিনিদাদ এন্ড টোবাগোতে অবস্থিত।কুইন্সপার্ক ওভালের দর্শকআসন সংখ্যা ২০,০০০। অর্থাৎ কুইন্সপার্ক ওভালে একসাথে ২০ হাজার দর্শকের খেলা দেখার সুবিধা রয়েছে।


ন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়াম (গ্ৰানাডা) 


দর্শকধারণক্ষমতা বিবেচনায় ওয়েষ্ট ইন্ডিজের অন্যতম বৃহৎ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড হচ্ছে ন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়াম ( গ্ৰানাডা)।এই স্টেডিয়ামের দর্শকধারণক্ষমতা ২০,০০০। অর্থাৎ ন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়াম (গ্ৰানাডা) এ একসাথে ২০হাজার দর্শক ক্রিকেট উপভোগ করতে পারেন। 


আর্নস ভেইল স্টেডিয়াম 


ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ডগুলোর মধ্যে আর্নস ভেইল স্টেডিয়াম অন্যতম।এই ক্রিকেট গ্ৰাউন্ডটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের 'সেন্ট ভিনসেন্ট এন্ড দ্য গ্ৰেনাডাইনস' এ অবস্থিত।আর্নস ভেইল স্টেডিয়ামের দর্শকধারণক্ষমতা ১৮,০০০। অর্থাৎ আর্নস ভেইল স্টেডিয়ামে একসাথে ১৮ হাজার দর্শকের খেলা দেখার সুবিধা রয়েছে।


সাবিনা পার্ক 


দর্শকআসন বিবেচনায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের অন্যতম বৃহৎ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড জামাইকার সাবিনা পার্ক।এ মাঠের দর্শকধারণক্ষমতা ১৫,৬০০। অর্থাৎ সাবিনা পার্কে একসাথে ১৫,৬০০ দর্শক ক্রিকেট উপভোগ করতে পারেন।


ডারেন সামি ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড 


ওয়েস্ট ইন্ডিজের শীর্ষ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ডগুলোর মধ্যে ডারেন সামি ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড অন্যতম।ডারেন সামি ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড সেন্ট লুসিয়ায় অবস্থিত।এ মাঠের দর্শকধারণক্ষমতা ১৫,০০০। অর্থাৎ ডারেন সামি ক্রিকেট গ্ৰাউন্ডে একসাথে ১৫ হাজার দর্শকের খেলা দেখার সুবিধা রয়েছে।


প্রভিডেন্স স্টেডিয়াম 


গায়ানায় অবস্থিত প্রভিডেন্স স্টেডিয়াম ওয়েস্ট ইন্ডিজের অন্যতম শীর্ষ ক্রিকেট গ্ৰাউন্ড।এই মাঠের দর্শকধারণক্ষমতা ১৫,০০০। অর্থাৎ প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে একসাথে ১৫ হাজার দর্শক ক্রিকেট উপভোগ করতে পারেন।



যুব বিশ্বকাপের সেরা দল দেখে নিন

                                                             




প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ এবারের(২০২২) যুব বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত। ভারতের যুবটিম ফাইনালে ইংল্যান্ডের যুব টিমকে হারিয়ে শিরোপা জয় করে । সম্প্রতি ২০২২ সালের যুব বিশ্বকাপের সেরা দল ঘোষণা করা হয়েছে।এক্ষেএে ধারাভাষ্যকার, আইসিসি ম্যাচ রেফারি ও সাংবাদিকদের নিয়ে গড়া নির্বাচক প্যানেল সাজিয়েছেন তাদের বিবেচনায় এবারের যুব বিশ্বকাপের  সেরা দল । উল্লেখ্য এবারের যুব বিশ্বকাপের সেরা দল ১২ জন প্লেয়ারকে (দ্বাদশ প্লেয়ার সহ) নিয়ে তৈরি করা হয়েছে। বাংলাদেশের একমাত্র প্লেয়ার হিসেবে পেসার রিপন মন্ডল যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে স্থান পেয়েছেন।


কোন দেশের কোন প্লেয়ার স্থান পেলেন 


যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে কোন দেশের কোন প্লেয়ার স্থান পেলেন সেই তালিকা এখানে তুলে ধরছি। উল্লেখ্য যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে ভারত থেকে সর্বাধিক তিনজন প্লেয়ার এছাড়া ইংল্যান্ড ও পাকিস্তান থেকে দু'জন করে প্লেয়ার রয়েছেন।যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে  বাংলাদেশ,অষ্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তানের একজন করে প্লেয়ার রয়েছেন।


ভারত : রাজ বাওয়া, যশ ধুল , ভিকি অষ্টওয়াল,


ইংল্যান্ড : টম প্রিষ্ট,জস বয়ডেন 


পাকিস্তান : হাসিবুল্লাহ খান,ওয়াইস আলী 


বাংলাদেশ : রিপন মন্ডল 


দক্ষিণ আফ্রিকা : ডেয়াল্ড ব্রেভিস 


শ্রীলঙ্কা : দুনিথ ওয়ালেলাগে 


আফগানিস্তান : নুর আহমেদ (দ্বাদশ প্লেয়ার)



টিম কম্বিনেশন 


যুব বিশ্বকাপের সেরা দলের টিম কম্বিনেশন এখানে তুলে ধরছি।

যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে অধিনায়ক হিসেবে রয়েছেন যশ ধুল (ভারত)। এছাড়া ওপেনার ও উইকেটরক্ষক হিসেবে রয়েছেন পাকিস্তানের হাসিবুল্লাহ খান। ওপর ওপেনার টিগ উইলি(অষ্ট্রেলিয়া)। টপঅর্ডারে রয়েছেন ডেয়াল্ড ব্রেভিস (দক্ষিণ আফ্রিকা),যশ ধুল (ভারত)।মিডল অর্ডারে রয়েছেন টম প্রিষ্ট (ইংল্যান্ড),দুনিথ ওয়ালেলাগে ( শ্রীলঙ্কা),রাজ বাওয়া (ভারত)। যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে স্পিনার হিসেবে রয়েছেন শ্রীলঙ্কার দুনিথ ওয়ালেলাগে ও ভারতের ভিকি অষ্টওয়াল। এছাড়া যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে পেসার হিসেবে রয়েছেন বাংলাদেশের রিপন মন্ডল,অষ্ট্রেলিয়ার যশ বয়ডেন ও পাকিস্তানের ওয়াইস আলী।যুব বিশ্বকাপের সেরা দলে দ্বাদশ প্লেয়ার হিসেবে আফগানিস্তানের নুর আহমেদকে রাখা হয়েছে।


যুব বিশ্বকাপের সেরা দল 


যশ ধুল - অধিনায়ক (ভারত),হাসিবুল্লাহ খান(পাকিস্তান),টিগ উইলি (অষ্ট্রেলিয়া),ডেয়াল্ড ব্রেভিস ( দক্ষিণ আফ্রিকা),টম প্রিষ্ট ( ইংল্যান্ড),দুনিথ ওয়ালেলাগে (শ্রীলঙ্কা),রাজ বাওয়া (ভারত),ভিকি অষ্টওয়াল (ভারত),রিপন মন্ডল (বাংলাদেশ),যশ বয়ডেন (অষ্ট্রেলিয়া),ওয়াইস আলী(পাকিস্তান),নুর আহমেদ- দ্বাদশ প্লেয়ার (আফগানিস্তান)।


২০২২ যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ পারফরমার

                                                             
                                               ছবি: রিপন মন্ডল


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ এবারের যুব বিশ্বকাপে (অনুর্ধ্ব ১৯) চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারতীয় যুব টিম। ফাইনালে ইংল্যান্ডের যুব টিমকে ৪ উইকেটে পরাজিত করে ভারতীয় যুব টিম চ্যাম্পিয়ন হয়। এবারের যুব বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে সবচেয়ে সফল ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটার ডেয়াল্ড ব্রেভিস (৫০৬ রান) । এছাড়া বল হাতে এবারের যুব বিশ্বকাপে সর্বাধিক উইকেট নেন শ্রীলঙ্কার দুনিথ ওয়ালেলাগে (১৭ উইকেট)। উল্লেখ্য এবারের যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ পাঁচ বোলারের তালিকায় বাংলাদেশের পেসার রিপন মন্ডলের (১৪ উইকেট) নাম রয়েছে।২০২২ যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ দশ পারফরমারের(ব্যাটার ও বোলার) পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।


২০২২ যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ পাঁচ ব্যাটার 


২০২২ যুব বিশ্বকাপে সর্বাধিক রানকারী শীর্ষ পাঁচ ব্যাটারের পরিসংখ্যান দেখে নিন।


১. ডেয়াল্ড ব্রেভিস (দক্ষিণ আফ্রিকা) - ৬ ম্যাচে ৫০৬ রান (২সেঞ্চুরি/৩ফিফটি) 


২.হাসিবুল্লাহ খান (পাকিস্তান) - ৬ ম্যাচে ৩৮০ রান (২সেঞ্চুরি/১ফিফটি) 


৩.টম প্রিষ্ট (ইংল্যান্ড) - ৬ ম্যাচে ২৯২ রান (১সেঞ্চুরি/১ফিফটি) 


৪.অংক্রিস রঘুভানসি (ভারত) - ৬ ম্যাচে ২৭৮ রান (১সেঞ্চুরি/১ফিফটি) 


৫.টিগু উইলি (অষ্ট্রেলিয়া) - ৬ ম্যাচে ২৭৮ রান(১সেঞ্চুরি/২ফিফটি)



২০২২ যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ পাঁচ বোলার


২০২২ যুব বিশ্বকাপের সর্বাধিক উইকেট শিকারি পাঁচ বোলারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।

১.দুনিথ ওয়ালেলাগে (শ্রীলঙ্কা) - ৬ ম্যাচে ১৭ উইকেট 


২.জস বয়ডেন (ইংল্যান্ড) - ৬ ম্যাচে ১৫ উইকেট 


৩.ওয়াইস আলী (পাকিস্তান) - ৬ ম্যাচে ১৫ উইকেট 


৪.রিপন মন্ডল (বাংলাদেশ) - ৬ ম্যাচে ১৪ উইকেট 


৫.জোমা মিয়াজি (উগান্ডা ) - ৫ ম্যাচে ১৩ উইকেট 




যুব বিশ্বকাপ শিরোপা জিতল ভারত

                                                              


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ২০২২ অনুর্ধ্ব ১৯ (যুব বিশ্বকাপ) বিশ্বকাপের শিরোপা জিতল ভারত।অ্যান্টিগায় অনুষ্ঠিত এবারের যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দল ইংল্যান্ড অনুর্ধ্ব ১৯ দলকে ৪ উইকেটে পরাজিত করে।এটি ভারতের পঞ্চম যুব বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের রেকর্ড।এর আগে ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দল চারবার (২০০০,২০০৮,২০১২, ২০১৮) যুববিশ্বকাপ শিরোপা জয় করে। আসুন যুব বিশ্বকাপের বিভিন্ন আসরের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলের তালিকা(ফাইনাল পরিসংখ্যান) দেখে নিই।        


যুব বিশ্বকাপের ফাইনাল পরিসংখ্যান

আইসিসি অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ ( যুব বিশ্বকাপ)  ১৯৮৮ সালে প্রথমবার অনুষ্ঠিত হয়।তবে যুব বিশ্বকাপের দ্বিতীয় আসর কিছুটা বিলম্বে ১৯৯৮ সালে অনুষ্ঠিত হয় এবং এরপর প্রতি দুই বছর অন্তর নিয়মিত যুব বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যুব বিশ্বকাপের বিগত আসরগুলোর চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলের তালিকা এখানে তুলে ধরছি।

১৯৮৮ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ - পাকিস্তান

১৯৯৮ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল


চ্যাম্পিয়ন - ইংল্যান্ড 

রানার্সআপ - নিউজিল্যান্ড

২০০০ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - ভারত 

রানার্সআপ - শ্রীলঙ্কা 


২০০২ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ - দক্ষিণ আফ্রিকা 


২০০৪ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - পাকিস্তান 

রানার্সআপ - ওয়েস্ট ইন্ডিজ 

২০০৬ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - পাকিস্তান 

রানার্সআপ - ভারত 

২০০৮ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - ভারত 

রানার্সআপ - দক্ষিণ আফ্রিকা 


২০১০ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - অষ্ট্রেলিয়া 

রানার্সআপ - পাকিস্তান 

২০১২ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - ভারত 

রানার্সআপ - অষ্ট্রেলিয়া 

২০১৪ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - দক্ষিণ আফ্রিকা 

রানার্সআপ - পাকিস্তান 

২০১৬ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - ওয়েস্ট ইন্ডিজ 

রানার্সআপ - ভারত 


২০১৮ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যম্পিয়ন - ভারত 

রানার্সআপ - অষ্ট্রেলিয়া 

২০২০ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল 


চ্যাম্পিয়ন - বাংলাদেশ

রানার্সআপ - ভারত 

২০২২ যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল


চ্যাম্পিয়ন - ভারত 

রানার্সআপ - ইংল্যান্ড 



সরস্বতী পূজার শুভেচ্ছা

                                                           


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আজ হিন্দুসম্প্রদায়ের সরস্বতী পূজা। আজ বিশ্বজুড়ে হিন্দুসম্প্রদায় সরস্বতী পূজা উদযাপন করছেন।"প্রিয় ক্রিকেট ডটকম"এর পক্ষ থেকে সকল পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীকে সরস্বতী পূজার শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। উল্লেখ্য প্রতিবছর বিশ্বজুড়ে হিন্দুসম্প্রদায় মাঘ মাসের শুক্লা পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী পূজার আয়োজন করে থাকেন।দেবী সরস্বতীকে বিদ্যা ও সংগীতের দেবী হিসেবে পূজা করা হয়। বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও হিন্দু সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীরা সরস্বতী পূজার আয়োজন করে থাকেন।

যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ দশ সেঞ্চুরি

                                                              


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ অবশেষে এবারের যুববিশ্বকাপের দুই ফাইনালিস্ট টিম চূড়ান্ত হলো। এবারের যুববিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে ভারত ও ইংল্যান্ড যুব টিম। উল্লেখ্য এই নিয়ে টানা চতুর্থবারের মত যুববিশ্বকাপের ফাইনাল নিশ্চিত করল ভারতীয় যুবটিম (অনুর্ধ্ব ১৯)। আসুন  যুববিশ্বকাপের ইতিহাসে শীর্ষ দশ ব্যক্তিগত (সেঞ্চুরি) ইনিংসের রেকর্ড দেখে নিই।


যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ দশ সেঞ্চুরি 


ক্রিকেটের সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ আন্তর্জাতিক আসরগুলোর একটি যুব বিশ্বকাপ (অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ) । যুব বিশ্বকাপের শীর্ষ পারফরমারদের অনেকেই পরবর্তীকালে ক্রিকেটের বিখ্যাত তারকা হয়েছেন। তাছাড়া যুব বিশ্বকাপের পারফরম্যান্স বিভিন্ন দেশের বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের এক প্রধান স্মারক হিসেবেও পরিচিত।আর এসবকিছু মিলে যুব বিশ্বকাপের গুরুত্ব ক্রিকেটজগতে  ব্যাপক। যুব বিশ্বকাপের ইতিহাসে শীর্ষ দশ সেঞ্চুরির রেকর্ড এখানে তুলে ধরছি।


১. হাসিথা বয়াগোডা (শ্রীলঙ্কা) - ১৯১ রান - প্রতিপক্ষ কেনিয়া (২০১৮)


২.জ্যাকব বোলা (নিউজিল্যান্ড) - ১৮০ রান - প্রতিপক্ষ কেনিয়া (২০১৮) 


৩.ডেনোবান প্যাগন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) - ১৭৬ রান - প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড (২০০২) 


৪.ডেনিয়েল লরেন্স (ইংল্যান্ড) - ১৭৪ রান - প্রতিপক্ষ ফিজি (২০১৬) 


৫.কেগান সিমন্স ( ওয়েস্ট ইন্ডিজ) - ১৬৬ রান - প্রতিপক্ষ কানাডা (২০১৮)


৬.জেমস মার্শাল (নিউজিল্যান্ড) - অপরাজিত ১৬৪ রান- প্রতিপক্ষ নামিবিয়া(১৯৯৮)


৭.স্কট ক্রেমারস্কোতেন (অষ্ট্রেলিয়া) - ১৬৪ রান - প্রতিপক্ষ পাপুয়া নিউগিনি (১৯৯৮)


৮.নাথান ম্যাকসুইনি (অষ্ট্রেলিয়া) -১৫৬ রান - প্রতিপক্ষ পাপুয়া নিউগিনি (২০১৮)


৯. ক্যামেরন হোয়াইট (অষ্ট্রেলিয়া) - অপরাজিত ১৫৬ রান - প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড (২০০২) 


১০.করিম জানাত (আফগানিস্তান)  - ১৫৬ রান - প্রতিপক্ষ ফিজি (২০১৬)


(উল্লেখ্য যুববিশ্বকাপের ইতিহাসে দক্ষিণ আফ্রিকার ‌জ্যাকস রুডলপের একটি অপরাজিত ১৫৬ রানের  ইনিংস রয়েছে ।তবে তাঁর স্টাইকরেট করিম জানাতের চেয়ে কম ছিল)

বাংলাদেশ পুলিশে কনষ্টেবল(২০২২) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

                                                              






প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ বাংলাদেশ পুলিশে কনষ্টেবল(ট্রেইনি রিক্রুট কনষ্টেবল- টিআরসি) পদে নিয়োগের জন্য আবেদন চলছে।সম্প্রতি বাংলাদেশ পুলিশে কনষ্টেবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় । বাংলাদেশ পুলিশের সাম্প্রতিক কনষ্টেবল(টিআরসি) পদে নিয়োগের বিস্তারিত তথ্য এখানে তুলে ধরছি।


পদ : ট্রেইনি রিক্রুট কনষ্টেবল - টিআরসি 


পদসংখ্যা : ৪,০০০ (পুরুষ :৩,৪০০ ও নারী: ৬০০) 


যোগ্যতা : ন্যুনতম ২.৫ জিপিএসহ এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। 


বয়স ও অন্যান্য :২৮.০২.২০২২ তারিখে ১৮ থেকে ২০ বছর। বাংলাদেশের স্থায়ী নাগরিক ও অবিবাহিত হতে হবে।



শারীরিক যোগ্যতা : পুরুষ প্রার্থীর উচ্চতা ৫ফুট ৬ ইঞ্চি এবং নারী প্রার্থীর উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি।তবে ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠী ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেএে শারীরিক যোগ্যতা (পুরুষ ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি ও নারী ৫ফুট ২ ইঞ্চি) । পুরুষ প্রার্থীর বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি এবং সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩৩ ইঞ্চি। এছাড়া মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেএে স্বাভাবিক অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি এবং সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি।


বেতনস্কেল : বর্তমান (২০১৫) জাতীয় বেতনস্কেল অনুযায়ী ১৭তম গ্ৰেড।


আবেদন শুরু : ০১/০২/২০২২ 


আবেদনের শেষ তারিখ : ২৮/০২/২০২২ রাত ১১.৫৯ ।


আবেদন ফি : ৩০টাকা ।


আবেদন প্রক্রিয়া : অনলাইন (ভিজিট police.teletalk.com.bd) এছাড়া বিস্তারিত তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.police.gov.bd।


সূত্র : সময় নিউজ 



আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টির হ্যাটট্রিক বৃওান্ত

                                                           

                                               ছবি : জেসন হোল্ডার 


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টির' হ্যাটট্রিক ও ডাবলহ্যাটট্রিক ক্লাবে' নিজের নাম যুক্ত করলেন  উইন্ডিজ অলরাউন্ডার জেসন হোল্ডার। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সম্প্রতি হোল্ডার নিজের প্রথম আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টি হ্যাটট্রিক (ডাবল হ্যাটট্রিকও ৪বলে ৪ উইকেটে))করেন।  হোল্ডারের হ্যাটট্রিকটি ছিল আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টির ইতিহাসে সাতাশতম হ্যাটট্রিক ও চতুর্থ ডাবলহ্যাটট্রিক  (উইন্ডিজ বোলার হিসেবে আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টিতে প্রথম হ্যাটট্রিক ও ডাবল হ্যাটট্রিক)।  উল্লেখ্য ২০২১ সালে আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টিতে রেকর্ড ১৩টি হ্যাটট্রিকের ঘটনা ঘটেছে। আসুন দেখে নিই আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টির হ্যাটট্রিক বৃওান্ত।


আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টির হ্যাটট্রিক বৃওান্ত


১.ব্রেট লির(অষ্ট্রেলিয়া) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ (২০০৭) 


২.জ্যাকব ওরামের (নিউজিল্যান্ড) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা (২০০৯) 


৩.টিম সাউদির (নিউজিল্যান্ড) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ পাকিস্তান (২০১০) 


৪.থিসারা পেরেরার(শ্রীলঙ্কা) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ ভারত (২০১৬) 


৫.লাসিথ মালিঙ্গার (শ্রীলঙ্কা) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ (২০১৭) 



৬.ফাহিম আশরাফের(পাকিস্তান) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা (২০১৭)


৭.রশিদ খানের(আফগানিস্তান) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড (২০১৯)


৮.লাসিথ মালিঙ্গার(শ্রীলঙ্কা) দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড(২০১৯)


৯.মোহাম্মদ হাসনাইনের (পাকিস্তান) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা (২০১৯)


১০.কাওয়ার আলীর(ওমান) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস (২০১৯)


১১.নরমান ভানুয়ার (পাপুয়া নিউগিনি) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ বারমুডা (২০১৯) 


১২.দীপক চাহারের (ভারত ) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ (২০১৯)


১৩.অ্যাষ্টন এগারের (অষ্ট্রেলিয়া) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা (২০২০)


১৪.আখিলা ধনঞ্জয়ার (শ্রীলঙ্কা) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ (২০২১) 


১৫.ওয়াসিম আব্বাসের(মাল্ট) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ বেলজিয়াম (২০২১) 


১৬.সিরাজ শেখের ( বেলজিয়াম) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ মাল্টা (২০২১) 


১৭.নাথান ইলিচের(অষ্ট্রেলিয়া) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ (২০২১) 


১৮.এলিজাও ওটিএনোর(কেনিয়া) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ উগান্ডা (২০২১) 


১৯.কাফি বাগাবেনার(ঘানা) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ সিচেলেস (২০২১) 


২০.কার্টিস কেম্পারের( আয়ারল্যান্ড) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস (২০২১) 


২১.ডিলান মিলিগনাটের(জার্মানি) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ ইতালি (২০২১) 


২২.দিনেশ নাকরানীর (উগান্ডা) হ্যাটটিক - প্রতিপক্ষ সিচেলেস (২০২১)


২৩.পিটার হোর (নাইজেরিয়া) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ সিয়েরালিওন (২০২১) 


২৪.ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গার(শ্রীলঙ্কা) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা (২০২১)


২৫.কাগিছো রাবাদার (দক্ষিণ আফ্রিকা) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড (২০২১) 


২৬.হারনার ফেনেলের (আর্জেন্টিনা) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ পানামা (২০২১) 


২৭.জেসন হোল্ডারের(ওয়েস্ট ইন্ডিজ ) হ্যাটট্রিক - প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড (২০২২)