WHAT'S NEW?
Loading...

ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড সেমির আগে

                                                                 


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আর কিছুক্ষণ পরেই মাঠে গড়াতে যাচ্ছে এবারের ম্যানস টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনাল।প্রথম সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। দুদলই এবার দারুণ খেলছে। এবং ব্যাটিং, বোলিং,ফিল্ডিং তিন দিক বিবেচনায় দুদলই প্রায় কাছাকাছি অবস্থানে রয়েছে।যদিও এবারের বিশ্বকাপ পারফরম্যান্স বিবেচনায় ইংল্যান্ডকে বেশি সাবলিল মনে হচ্ছে তবে কিউইদেরও খাটো করে দেখার সুযোগ কম।আসুন এ দুদলের সম্ভাবনাগুলো দেখে নিই।



ব্যাটিংয়ের শক্তিমত্তা



এবারের টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের অভিজ্ঞ টপঅর্ডার চমৎকার ব্যাটিং করছে।বিশেষত জস বাটলার,জেসন রয় দারুণ ব্যাটিং করছেন। বাটলার এই বিশ্বকাপে ইতিমধ্যে একটি সেঞ্চুরিও করেছেন।যদিও জেসন রয় ইতিমধ্যে ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়েছেন।তবু এউইন মরগান,বেয়ারষ্টো,মঈন আলী এরা প্রত্যেকেই বড় ম্যাচের প্লেয়ার হিসেবে স্বীকৃত।তাই ইংল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপকে শক্তিশালী হিসেবে ধরতেই হবে। এদিকে কিউইদের ব্যাটিং লাইনআপও বেশ অভিজ্ঞতাসমৃদ্ধ।মার্টিন গাপটিল,কেন উইলিয়ামসন,জিমি নিশাম,ডেভন কনওয়ের মত তারকা ব্যাটার কিউই টিমে রয়েছেন। গাপটিল,জিমি নিশাম, ডেভন কনওয়ের মত  ব্যাটাররা জ্বলে উঠলে কিউইদের হারানো কঠিন হয়ে যেতে পারে।



বোলিং বিবেচনা


যদিও ইংলিশ বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জোফরা আর্চার,বেন স্টোকসের মত তারকা পেসার এবার নেই তবু টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের সেরা পেসারদের অনেকেই ইংল্যান্ডের এই স্কোয়াডে রয়েছেন। ইংল্যান্ডের পেস অ্যাটাকে ক্রিস জর্ডানের মত তারকা টিটুয়েন্টি পেসার রয়েছেন। এছাড়া ইংল্যান্ডের এবারের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে এই সময়ের ক্রিকেটের সেরা দুই টিটুয়েন্টি স্পিনার (আদিল রশিদ ও মঈন আলী) রয়েছেন।এই দুই স্পিনার এবারের টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপে চমৎকার বোলিং করছেন। কিউইদের বোলিং অ্যাটাকও বেশ শক্তিশালী ও সমৃদ্ধ। বিশেষত কিউই পেস অ্যাটাকে টিম সাউদি,ট্রেন্ট বোল্টের মত বিশ্বসেরা টিটুয়েন্টি বোলার রয়েছেন। এছাড়া কিউই শিবিরে একাধিক তারকা মিডিয়াম পেসার রয়েছেন।এর বাইরে কিউইদের বোলিং অ্যাটাকে এই সময়ের অন্যতম সেরা লেগস্পিনার ইস সোদি রয়েছেন। এবং এসব কিছু বিবেচনায় বলা যায় আজকের সেমিফাইনালে দর্শকদের জন্য  বেশ জমজমাট ব্যাটবলের লড়াই অপেক্ষা করছে।




ফিল্ডিং শক্তিমত্তা



একটি ক্ষেএে আজকের সেমিফাইনালের দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে মিল রয়েছে আর সেটি হলো দুদলের চমৎকার ফিল্ডিং সামর্থ্য।বলা হয় নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটের সবচেয়ে  শক্তির একটি জায়গা তাদের দারুণ ফিল্ডিং সামর্থ্য। এবারের টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপেও কিউইদের অসাধারণ ফিল্ডিং চোখে পড়েছে। কিউইদের এবারের টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপে এতোদূর আসার পেছনে তাদের ভালো ফিল্ডিংয়ের ভূমিকা রয়েছে। অনুরূপভাবে ইংল্যান্ডের এই টিমের শক্তির বড় এক জায়গা কিন্তু তাদের ভালো ফিল্ডিং সামর্থ্য।আর এক্ষেত্রে আজকের সেমিফাইনালের দুই দলকেই কাছাকাছি অবস্থানে রাখতে হচ্ছে।



পাওয়ারপ্লে শক্তি



টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে পাওয়ারপ্লে খুব গুরুত্বপূর্ণ এক বিষয়। এখানে যারা এগিয়ে থাকবে তাদের জন্য ম্যাচ সহজ হয়ে যায়। আজকের সেমিফাইনালের দুই দলেরই পাওয়ারপ্লে ব্যাটিং ও পাওয়ারপ্লে বোলিংয়ে চমৎকার সফলতার রেকর্ড রয়েছে।তবে উইকেট যদি স্পিন সহায়ক হয় তবে ইংল্যান্ডকে পাওয়ারপ্লের হিসেবে কিছুটা এগিয়ে রাখতে হবে।



হেড টু হেড পরিসংখ্যান



নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের মধ্যে ইতিপূর্বে ২১টি টিটুয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে যেখানে ১৩টি ম্যাচে ইংল্যান্ড জয়লাভ করেছে এবং ৭টি ম্যাচে নিউজিল্যান্ড জয়ী হয়েছে। এছাড়া এ দুদলের মধ্যকার ১টি ম্যাচে ফল নিষ্পত্তি হয়নি।