WHAT'S NEW?
Loading...

নিউজিল্যান্ড সিরিজের টাইগার স্কোয়াড মূল্যায়ন

                                                                 


বিসিবি বাংলাদেশের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের টিটুয়েন্টি সিরিজের সূচি চূড়ান্ত করেছে । ইতিমধ্যে এই সিরিজের জন্য বাংলাদেশের  স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে। আসন্ন টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এই সিরিজটি বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তারকা ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম এবং জনপ্রিয় ওপেনার লিটন দাস দলে ফিরেছেন।অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সদ্যসমাপ্ত টিটুয়েন্টি সিরিজ জিতে বাংলাদেশ দল বেশ ভালো একটি সময় পার করছে। এবং কিউইদের বিপক্ষে আসন্ন টিটুয়েন্টি সিরিজটিও বাংলাদেশ জিতবে বলেই আমাদের ধারণা। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন টিটুয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশ দলের সমস্যা সম্ভাবনা নিয়ে একটি বিশ্লেষণ এখানে তুলে ধরছি।



ওপেনিংয়ে কারা খেলবেন


এই সিরিজেও তামিম বাংলাদেশের স্কোয়াডে নেই। এবং টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এটি বাংলাদেশের জন্য  একটি দুঃসংবাদ।এর ফলে নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য টাইগারদের যে স্কোয়াড দেয়া হয়েছে তাতে দেখা যায় স্পেশালিষ্ট ওপেনার রয়েছেন তিনজন (লিটন দাস,নাঈম শেখ এবং সৌম্য সরকার)।এখন প্রশ্ন হচ্ছে লিটন অটোচয়েজ হিসেবে খেলবেন ।হয়তো সৌম্য সরকার অষ্ট্রেলিয়া সিরিজের পারফরম্যান্স বিবেচনায় এই সিরিজেও সুযোগ পেতে পারেন । আবার নাঈম শেখ এই সময়ে দেশের অন্যতম প্রতিভাবান ওপেনার এবং আসন্ন টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা বিবেচনায় তিনিও একাদশে থাকার যোগ্য। এছাড়া টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের টিম কম্বিনেশন বিবেচনায় নাঈম শেখ গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ার।এমন অবস্থায় এই সিরিজে তিন ওপেনারকে নির্বাচকরা কিভাবে হ্যান্ডেল করেন সেটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।



চেনা উইকেটে টোটাল বাড়াতে হবে


অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সদ্যসমাপ্ত টিটুয়েন্টি সিরিজ জয়ের ঘটনা টাইগারদের বড় এক সাফল্য হিসেবে স্বীকৃত হয়েছে।তবে একটি বিষয় অবশ্যই ভাবনার ছিল আর সেটি হলো অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের দলীয় টোটাল রান কিন্তু কোন ম্যাচেই সন্তোষজনক ছিল না। এবং টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এই বিষয়ে আরো সচেতন হবে।চেনা উইকেটে দলীয় টোটাল আরো কিছুটা বেশি হলে ভালো লাগতো। কিউইদের বিপক্ষে এই সিরিজে প্রত্যাশা থাকবে বাংলাদেশ যেন দলীয় টোটালের প্রতি আরো যত্নবান হয়। তাছাড়া সাকিব, মুশফিক, মাহমুদুল্লাহ,লিটন,আফিফদের জন্য এই সিরিজে টিটুয়েন্টি স্টাইকরেট বাড়ানোর সুযোগ থাকবে।



বিশ্বকাপের আগে অলরাউন্ডারদের পারফরম্যান্স


একথা প্রায় সবাই স্বীকার করবেন যে বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের এক গুরুত্বপূর্ণ শক্তি হচ্ছে দারুণ কজন অলরাউন্ডার দলটিতে রয়েছে। সাবেক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সাথে আফিফ হোসেন, সাইফুদ্দিনের মত একাধিক মেধাবী অলরাউন্ডার বাংলাদেশ দলে রয়েছেন।এই সিরিজে বাংলাদেশের সাফল্যের জন্য অলরাউন্ডারদের পারফরম্যান্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে বিশ্বকাপের আগে খেলার সুযোগ দেয়া উচিত।এর ফলে এই সিরিজের পাশাপাশি আসন্ন টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ একটি ব্যালেন্সড কম্বিনেশন সহজে পেয়ে যাবে।


বোলারদের জন্য বলার কিছু নেই


জিম্বাবুয়ে সিরিজ ও অষ্ট্রেলিয়া সিরিজে বাংলাদেশের সাফল্যের মূল রূপকার ছিলেন বোলাররা। এবং সেই বিবেচনায় এই সিরিজেও টাইগার বোলাররা ভালো করবেন বলেই মনে হয়। মোস্তাফিজ মিরপুরের উইকেটে বরাবরই সফল । এছাড়া সাকিবের সাথে  বল হাতে নাসুম আহমেদ, শেখ মেহেদী হাসানও ভালো  করছেন।এটি টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের জন্য বাড়তি অ্যাডভান্টেজ হিসেবে দেখতে হবে।নাসুম আহমেদ ভালো করলে সাকিবের উপর চাপ কমে যায়। সেইসাথে এবার আমিনুল ইসলাম বিপ্লবকে খেলার সুযোগ দেয়া যেতে পারে।কারণ টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপে বিপ্লব ব্রেকথ্রো লেগস্পিনার হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারেন। তাছাড়া এবারের টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের ভেন্যু (মধ্যপ্রাচ্য) বিবেচনায় একজন লেগস্পিনারকে খেলার মধ্যে রাখা বাড়তি অ্যাডভান্টেজ হতে পারে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো আসন্ন টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রায় সব বড় দলেই কিন্তু স্পেশালিষ্ট লেগস্পিনার থাকবে।
সবশেষে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।



কিউইদের বিপক্ষে বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি রেকর্ড



মোট ম্যাচ - ১০

বাংলাদেশ - জয় নেই

নিউজিল্যান্ড- ১০ জয়



বাংলাদেশ স্কোয়াড ও ম্যাচসূচি


নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টিটুয়েন্টি সিরিজের বাংলাদেশ স্কোয়াড ও সিরিজ সূচি দেখে নিন।

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান,সৌম্য সরকার, লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত,আফিফ হোসেন,নাঈম শেখ, নুরুল হাসান সোহান, শামীম হোসেন পাটোয়ারী, রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, শরিফুল ইসলাম, তাইজুল ইসলাম,শেখ মেহেদী হাসান, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব,নাসুম আহমেদ।


বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড টিটুয়েন্টি ম্যাচসূচি


১ সেপ্টেম্বর - ১ম টিটুয়েন্টি - ভেন্যু (শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম)-বিকেল ৪টা

৩ সেপ্টেম্বর- ২য় টিটুয়েন্টি- ভেন্যু-( শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম)- বিকাল ৪টা

৫ সেপ্টেম্বর- ৩য় টিটুয়েন্টি - ভেন্যু-( শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম)- বিকাল ৪টা

৮ সেপ্টেম্বর- ৪র্থ টিটুয়েন্টি - ভেন্যু-( শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম) বিকাল ৪টা

১০ সেপ্টেম্বর- ৫ম টিটুয়েন্টি - ভেন্যু-( শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম) বিকাল ৪টা


লিখেছেনঃ প্রভাকর চৌধুরী