WHAT'S NEW?
Loading...

ইরফান পাঠানের ক্রিকেট একাডেমি

                                                                   


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ভারতের সাবেক তারকা অলরাউন্ডার ইরফান পাঠান নতুন ক্রিকেট প্রতিভা তৈরির উদ্দেশ্যে একটি ক্রিকেট একাডেমি করেছেন। ইরফান পাঠানের ক্রিকেট একাডেমির নাম " পাঠান ক্রিকেট একাডেমি (সিএপি)"। ইরফান পাঠান তাঁর ক্রিকেট একাডেমিটি গড়ে তুলেছেন ভারতের হায়দারাবাদে। উল্লেখ্য ক্রিকেটতারকাদের একাডেমি তৈরির ঘটনা এটিই প্রথম নয়।এর আগেও বেশকজন তারকা ক্রিকেটার একাডেমি তৈরি করেছেন। এক্ষেত্রে বাংলাদেশের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, ভারতের সুরেশ রায়নার কথা বলা যায়(তথ্যসূএ: যুগান্তর অনলাইন)।

পাঠান ক্রিকেট একাডেমি

ইরফান পাঠান মূলত বিশ্বমানের অবকাঠামো ও কোচিং সুবিধা প্রদানের উদ্দেশ্যে ভারতের হায়দারাবাদে তাঁর পাঠান ক্রিকেট একাডেমি (সিএপি) গড়ে তুলেছেন। ইরফান পাঠান এই একাডেমি করতে পেরে খুবই আনন্দিত বলে জানিয়েছেন। ভারতের সাবেক এই অলরাউন্ডার একথাও জানিয়েছেন যে তিনিও হায়দারাবাদে একসময় খেলেছেন। এছাড়া এই একাডেমিতে সুবিধাবঞ্চিত ক্রিকেটারদের জন্য দশ শতাংশ আসন বরাদ্দের ব্যবস্থা রাখবেন এমন কথাও বলেছেন ইরফান পাঠান। ইরফান পাঠান বলেছেন এমন একটি ক্রিকেট একাডেমি গড়ে তোলার পেছনে তাঁর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে নতুন প্রতিভাবান ক্রিকেটার খুঁজে বের করা। এসবকিছুর সাথে আরো একটি সুঃসংবাদ হলো ইরফান পাঠান ভারতে আরো ২৫টি একাডেমি তৈরির পরিকল্পনা করছেন।

পরামর্শক গ্ৰেগ চ্যাপেল 

ইরফান পাঠানের পাঠান ক্রিকেট একাডেমির মূল পরামর্শক হিসেবে রয়েছেন অষ্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক গ্ৰেগ চ্যাপেল।

ইরফান পাঠানের ক্রিকেট ক্যারিয়ার

ইরফান পাঠান ভারতের হয়ে একসময় দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন।বিশেষত ব্যাট ও বল হাতে অসাধারণ ক্রিকেটীয় দক্ষতা ইরফান পাঠানকে দিয়েছে দারুণ এক অলরাউন্ডারের স্বীকৃতি। ভারতের হয়ে টেস্ট, ওয়ানডে ও টিটুয়েন্টি তিন ধরণের ক্রিকেটে দারুণ সব ম্যাচ উপহার দিয়েছেন ইরফান পাঠান।বিশেষত বল হাতে উইকেটের দুই পাশে সুইং দিয়ে ব্যাটসম্যানদের কাজকে সবসময়ই কঠিন করে তুলতেন এই বাঁহাতি মিডিয়াম পেসার। ইরফান পাঠানকে একসময় ওয়াসিম আকরামের সাথে তুলনা করা হতো।তরুণ বয়সে দুর্দান্ত অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সের জন্য তাকে কপিল দেবের সাথে তুলনা করা হতো।

টেস্ট ক্যারিয়ার

ব্যাটিং- ২৯টেষ্ট- ১১০৫রান-সেঞ্চুরি(১)/হাফসেঞ্চুরি (৬)।
বোলিং- ২৯টেষ্ট - ১০০উইকেট- ১০উইকেট(২বার)/৫উইকেট(৭বার)।

ওয়ানডে ক্যারিয়ার

ব্যাটিং- ১২০ ওয়ানডে- ১৫৪৪ রান- হাফসেঞ্চুরি (৫)।
বোলিং- ১২০ ওয়ানডে - ১৭৩উইকেট - ৫উইকেট(২বার)।

টিটুয়েন্টি ক্যারিয়ার

ব্যাটিং - ২৪ টিটুয়েন্টি- ১৭২ রান।
বোলিং- ২৪টিটুয়েন্টি - ২৮উইকেট।