WHAT'S NEW?
Loading...

সেঞ্চুরিতে শীর্ষ দশ ব্যাটসম্যান

প্রিয় ক্রিকেট ডটকম : ক্রিকেটের অভিজাত ফিগারগুলোর একটি সেঞ্চুরি। সব ক্রিকেটারই ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেলে সেঞ্চুরি করতে চায়।আর ব্যাটসম্যানদের জন্য স্বপ্নের এক ফিগার সেঞ্চুরি। ক্রিকেটের ইতিহাস ঘাটলে সেঞ্চুরির গল্প শেষ হবে না।প্রায় প্রতিদিনই কোন না কোন ব্যাটসম্যান বিশ্বের কোথাও না কোথাও সেঞ্চুরির দেখা পাচ্ছেন।কত ব্যাটসম্যান তীরে এসে তরী ডোবানোর মত নার্ভাস নাইনটিজে আউট হচ্ছেন এবং পরবর্তীতে নতুন শুরুর অপেক্ষায় নিজেকে সান্ত্বনা দিয়েছেন। এভাবেই বয়ে চলেছে ক্রিকেট ইতিহাসে সেঞ্চুরির অধ্যায়। আবার এসব সাফল্য ও ব্যর্থতার যৌথপ্রচেষ্ঠায় কেউবা সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি ছোয়ে ক্রিকেটকে করেছেন মহীয়ান।তিন ফরমেট মিলিয়ে ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বাধিক সেঞ্চুরির রূপকার শীর্ষ দশ ব্যাটম্যানকে নিয়ে এই লেখা।(তথ্যসূএ : ইএসপিএন ক্রিকইনফো)

শচীনের সেঞ্চুরি সবচেয়ে বেশি

                                                                  


ক্রিকেটের বিস্ময়কর সৃষ্টি শচীন রমেশ টেন্ডুলকার এখনঅব্দি সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির মালিক। ক্রিকেটের লিটলমাষ্টার খ্যাত এই ব্যাটসম্যান ক্যারিয়ারে বিপুলসংখ্যক রানের মালিক।শচীন তাঁর ক্যারিয়ারে মোট ১০০টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন।১৯৮৯ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ক্রিকেটের মাঠে ব্যাট হাতে আধিপত্য করেছেন এই ব্যাটিং জিনিয়াস। ক্রিকেটে সর্বমোট ৩৫৩৫৭ রান করেছেন এই ভারতীয় ব্যাটসম্যান। অসাধারণ টেকনিক , টাইমিং আর ধারাবাহিকতার জন্য ক্রিকেটে একটি নতুন অধ্যায় রচনা করেছেন শচীন টেন্ডুলকার। শচীনের সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল অপরাজিত ২৪৮ রানের।

রিকি পন্টিং সেঞ্চুরিতে শীর্ষ দশে রয়েছেন

                                                               

ক্রিকেট ইতিহাসে চৌকস ব্যাটিংটেকনিকের জন্য রিকি পন্টিং এক উল্লেখযোগ্য নাম। উইকেটের চারপাশে শট খেলতে সমান পারঙ্গম এই সাবেক অসি গ্ৰেট ক্যারিয়ারে সবমিলিয়ে ৭১টি সেঞ্চুরি করেছেন।অষ্ট্রেলিয়ার সাবেক এই বিশ্বকাপজয়ী ব্যাটসম্যান ১৯৯৫সাল থেকে ২০১২সাল পর্যন্ত ক্রিকেটে সর্বমোট ৫৬০টি ম্যাচ খেলেছেন।রিকি পন্টিং ক্যারিয়ারে সর্বমোট ২৭৪৮৩ রান করেছেন। তাঁর সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল ২৫৭ রানের।রিকি পন্টিংয়ের মত নিখুঁত ব্যাটসম্যান ক্রিকেটে খুব কমই দেখা যায়।ক্লাসের সাথে পাওয়ারহিটিং মিলিয়ে অসাধারণ এক ব্যাটসম্যান ছিলেন রিকি পন্টিং।

বিরাট কোহলি সেঞ্চুরিতে শীর্ষদশে রয়েছেন

                                                                


 কিছুটা অবাক হলেও বলতে হয় এই সময়ের ব্যাটিং জিনিয়াস বিরাট কোহলি শীর্ষ দশ সেঞ্চুরিয়ানের তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন।২০০৮সালে ক্রিকেটে পদার্পন করলেও নিজের অসাধারণ ব্যাটিং দিয়ে সেঞ্চুরির সংখ্যায় গ্ৰেটদের অনেককেই ছাড়িয়ে গেছেন। বিরাট কোহলি ইতিমধ্যে ৭০টি সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন। বিরাট কোহলি ক্যারিয়ারে মোট ৪২৩টি ম্যাচ খেলে ফেলেছেন এবং এথেকে তাঁর মোট রান দাঁড়িয়েছে ২২২৮৬।কোহলির এখনপর্যন্ত সর্বোচ্চ ইনিংসটি হচ্ছে অপরাজিত ২৫৪ রান। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে কোহলি ক্রিকেটের সেঞ্চুরির অধ্যায়টি আরো রঙিন করবেন বলেই বিশ্লেষকদের ধারণা।

কুমার সাঙ্গাকারার সেঞ্চুরির গল্প

                                                             

  

শ্রীলঙ্কার সাবেক উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারা ক্রিকেটের শীর্ষ দশ সেঞ্চুরিয়ানের তালিকায় উপরের দিকে রয়েছেন। ক্লাসিক্যাল ঘরাণার সেরা ব্যাটসম্যানদের অন্যতম  কুমার সাঙ্গাকারা। সাঙ্গাকারা ক্যারিয়ারে মোট ৫৯৪টি ম্যাচ খেলেছেন। সাঙ্গাকারার মোট সেঞ্চুরি ৬৩টি। সাবেক এই লংকান গ্ৰেট ক্যারিয়ারে সর্বমোট ২৮০১৬ রান সংগ্ৰহ করেন। সাঙ্গাকারার সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল ৩১৯ রানের। সাঙ্গাকারার ব্যাটিংয়ে ক্লাস ও টাইমিংয়ের দারুণ সমন্বয় ছিল। এছাড়া সাঙ্গাকারার ব্যাটিংয়ে দীর্ঘসময় মনোসংযোগসহকারে বলের গুণাগুণ বিচার করে খেলার বিষয়টি সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়। এরসাথে সাঙ্গার ব্যাটিংয়ে আরেকটি লক্ষণীয় দিক ছিল সোজাব্যাটে খেলার প্রবণতা।

জ্যাক ক্যালিস সেঞ্চুরিতে শীর্ষ দশে রয়েছেন

                                                                 
ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিস ক্যারিয়ারে ৬২টি সেঞ্চুরি করেছেন। কারষ্টেন,স্মিথ,গিবসদের মত তারকা ব্যাটসম্যানদের সাথে খেললেও সেঞ্চুরির হিসেবে এদেরকে ছাড়িয়ে গেছেন ক্যালিস। সবধরণের উইকেটে সাবলিল ব্যাটিং ছিল জ্যাক ক্যালিসের বড় এক গুণ।তিনিও মূলত ক্লাসিক্যাল ঘরাণার ব্যাটসম্যান।ক্যারিয়ারে ৫১৯ম্যাচ খেলে ২৫৫৩৪ রান করেছেন  দক্ষিণ আফ্রিকার এই অলরাউন্ডার।জ্যাক ক্যালিসের সর্বোচ্চ ইনিংস ছিল ২২৪ রানের।

হাসিম আমলার সেঞ্চুরির ইতিহাস

                                                                 

দক্ষিণ আফ্রিকার নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান হাসিম আমলা।হার্সেল গিবস,গ্ৰায়েম স্মিথের মত তারকা ব্যাটসম্যান নাহলেও সেঞ্চুরির হিসেবে এদেরকে ছাড়িয়ে গেছেন আমলা।ক্যারিয়ারে ধারাবাহিক ভালো ব্যাটিংয়ের জন্য আলোচিত এক ব্যাটসম্যান আমলা। দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটে চৌকস ব্যাটিংয়ের জন্য আমলাকে বারবার স্মরণ করা হয়।তিনিও ক্লাসিক্যাল টাইপের ব্যাটসম্যান।তবে উইকেটে সেট হয়ে গেলে টানা শট খেলতে অভ্যস্ত এই ওপেনার।৩৪৯ম্যাচ খেলে আমলা মোট ৫৫টি সেঞ্চুরি করেছেন। তাঁর মোট রানসংখ্যা ১৮৬৭২। সর্বোচ্চ ইনিংস অপরাজিত ৩১১ রান।

মাহেলা জয়াবর্ধনের সেঞ্চুরির গল্প

                                                               

শ্রীলংকার সাবেক গ্ৰেট মাহেলা জয়াবর্ধনে ক্রিকেটের শীর্ষ দশ সেঞ্চুরিয়ানের তালিকায় রয়েছেন। শ্রীলঙ্কার মিডলঅর্ডারের দীর্ঘ সময়ের কান্ডারী ছিলেন জয়াবর্ধনে। সবধরণের ক্রিকেটেই জয়াবর্ধনের ব্যাটিংকৌশল দৃষ্টিনন্দন ছিল । ক্লাসিক্যাল ঘরাণার ব্যাটসম্যান হলেও তাঁর ব্যাটিংয়ে কখনো রানরেট থেমে থাকেনি। চমৎকার গ্যাফশট খেলার বিখ্যাত ছিলেন জয়াবর্ধনে।একসময় জয়সুরিয়া, জয়াবর্ধনে, সাঙ্গাকারা এই ত্রয়ী মিলে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটকে নবজীবন দিয়েছেন। জয়াবর্ধনে ক্যারিয়ারে ৬৫২ম্যাচ খেলেছেন যাতে সেঞ্চুরি ছিল ৫৪টি। জয়াবর্ধনে তাঁর ক্যারিয়ারে মোট ২৫৯৫৭ রান সংগ্রহ করেন। তাঁর সর্বোচ্চ ইনিংস ছিল ৩৭৪রানের।


ব্রায়ান লারার সেঞ্চুরির গল্প

                                                          

উইন্ডিজ ক্রিকেটের এক বিস্ময়কর প্রতিভা ব্রায়ান চালর্স লারা। ক্রিকেটের বরপুত্র ব্রায়ান লারা ক্যারিয়ারে মোট ৫৩টি সেঞ্চুরি করেছেন। অসাধারণ ধৈর্য ও স্টাইলের জন্য বিখ্যাত এই উইন্ডিজ গ্ৰেট ক্যারিয়ারে বিপুলসংখ্যক ম্যাচ খেলেছেন। ক্রিকেটে অপরাজিত ৪০০রানের ইনিংস খেলে হয়েছেন চিরস্মরণীয়।লারার স্টাইলিশ ব্যাটিং ক্রিকেটের এক অন্যরকম গল্প। দারুণ স্টাইলের সাথে টাইমিং মিলে লারার ব্যাটিং ছিল সত্যিই এক অপূর্ব ঘটনা।ব্রায়ান লারা ক্যারিয়ারে মোট ২২৩৫৮ রান করেন।লারা তাঁর ক্যারিয়ারে মোট ৪৩০টি ম্যাচ খেলেছেন।

সেঞ্চুরির শীর্ষ দশে দ্রাবিড়

                                                              

ভারতের সাবেক গ্ৰেটব্যাটসম্যান রাউল দ্রাবিড় ক্রিকেটের শীর্ষ দশ সেঞ্চুরিয়ানের তালিকায় রয়েছেন। ধৈর্য ও ক্লাস মিলিয়ে দ্রাবিড়ের  মত এমন নিখুঁত ব্যাটসম্যান ক্রিকেটে খুব কম দেখা যায়।।শচীন টেন্ডুলকার,সৌরভ গাঙ্গুলী এবং রাউল দ্রাবিড়ের সমন্বয়ে গড়া  ভারতের টপ অর্ডারকে একসময় বিশ্বসেরা টপ অর্ডার বলা হতো। দ্য ওয়াল খ্যাত দ্রাবিড় মোট ৫০৯টি ম্যাচ খেলেছেন।দ্রাবিড় মোট ৪৮টি সেঞ্চুরি করেছেন। তাঁর মোট রানসংখ্যা ২৪২০৮। সর্বোচ্চ ইনিংস ২৭০ রানের।


এবি ডিভিলিয়ার্সের সেঞ্চুরির গল্প

                                                                 

এ সময়ের ক্রিকেটে এক বিস্ময়কর ব্যাটসম্যান এবি ডিভিলিয়ার্স।ডিভিলিয়ার্স ক্রিকেটের তিন ফরমেটে নিজের ব্যাটিংপ্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন। যদিও তিনি এখন টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে অধিক মনযোগী।  ডিভিলিয়ার্স দারুণ ব্যাটিংস্টাইল ও পাওয়ারহিটিংয়ের জন্য বিখ্যাত।ডিভিলিয়ার্স ৪২০ টি ম্যাচ খেলেছেন। তাঁর মোট রান সংখ্যা ২০০১৪।ডিভিলিয়ার্স ক্যারিয়ারে ৪৭টি সেঞ্চুরি করেছেন। তাঁর সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল অপরাজিত ২৭৮ রানের।