WHAT'S NEW?
Loading...

যেখানে মার্ক বাউচার অনন্য

প্রিয় ক্রিকেট ডটকম: ক্রিকেটে উইকেটরক্ষকদের গুরুত্ব খুব তাৎপর্যপূর্ণ।আবার অনেকের কাছে এমনটিও মনে হতে পারে যে দল থাকলে একজনতো উইকেটের পেছনে থাকবেই।তবে ক্রিকেটবোদ্ধাদের কাছে একজন উইকেটরক্ষক খুব ভাইটাল।একজন উইকেটরক্ষক ক্রিকেটম্যাচকে যেকোন সময় বদলে দিতে পারেন এরকম উদাহরণ কম নেই। এমনকি একজন সেট ব্যাটসম্যানকে স্টাম্পিং বা ক্যাচের ফাঁদে ফেলে ম্যাচকে বদলে দিতে পারেন একজন চৌকস উইকেটরক্ষক।এবং ক্রিকেটের ইতিহাস ঘাটলে এরকম বেশকজন চৌকস ও সফল উইকেটরক্ষকের সন্ধান পাওয়া যায়।আর তিন ফরমেট মিলিয়ে ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল উইকেটরক্ষক হিসেবে মার্ক বাউচারকে পাওয়া যায়।

তিন ফরমেট মিলিয়ে সর্বকালের পাঁচ সেরা উইকেটরক্ষক

ক্রিকেটের তিন ফরমেট মিলিয়ে বেশকজন সফল উইকেটরক্ষকের সন্ধান পাওয়া যায়।আর এদের প্রথম পাঁচজনকে খুঁজলে সবার আগে মার্ক বাউচারের নামটি আসে।টেষ্ট,অডিআই ও টিটুয়েন্টি মিলিয়ে সবচেয়ে বেশি ডিসমিসাল বাউচারের।মার্ক বাউচার দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে দীর্ঘ সময় উইকেটের পেছনে দায়িত্ব পালন করেছেন।তারপর ক্রিকেটের পাঁচ সেরা উইকেটরক্ষক যথাক্রমে অষ্ট্রেলিয়ার  এডাম গিলক্রিস্ট, ভারতের এম এস ধোনি, শ্রীলঙ্কার  কুমা সাঙ্গাকারা,অষ্ট্রেলিয়ার ইয়ান হিলি(সূএ: ইএসপিএন ক্রিকইনফো)


মার্ক বাউচার (১৯৯৭-২০১২)

                                                            

মার্ক বাউচার দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক উইকেটরক্ষকব্যাটসম্যান।বাউচার টেষ্ট,অডিআই ও টিটুয়েন্টি মিলিয়ে সবচেয়ে বেশি ডিসমিসালের মালিক। বাউচার উইকেটরক্ষক হিসেবে সব ক্রিকেটপ্লেয়িং কন্ডিশনে খেলেছেন।বাউচারের উইকেটের পেছনের ক্ষিপ্রতা , বিচক্ষণতা সত্যিই এক দৃষ্টিনন্দন বিষয় ছিল। এছাড়া দুর্দান্ত সব ডাইভের জন্যও বাউচার ক্রিকেটে স্মরণীয়।বাউচার ৪৬৭ ম্যাচ খেলে মোট ৯৯৮টি ডিসমিসালের মালিক হয়েছেন যেখানে রয়েছে ৯৫২টি ক্যাচ ও ৪৬টি স্টাম্পিং।


এডাম গিলক্রিস্ট (১৯৯৬-২০০৮)

                                                                

এডাম গিলক্রিস্ট অষ্ট্রেলিয়ার সর্বকালের সেরা উইকেটরক্ষক। গিলক্রিস্ট তাঁর অসাধারণ বুদ্ধিমওা ও বিচক্ষণতার জন্য বিখ্যাত।এবং নিখুঁতপেশাদারিত্ব ছিল গিলক্রিস্টের বড় শক্তি। গিলক্রিস্ট তিন ফরমেট মিলিয়ে মোট ৯০৫টি ডিসমিসালের রুপকার। গিলক্রিস্ট  ৮১৩টি ক্যাচ ও ৯২টি স্টাম্পিং করেছেন।


এম এস ধোনি(২০০৪-২০১৯)

                                                               


এম এস ধোনি ভারতের সাবেক বিশ্বকাপজয়ী উইকেটরক্ষক।ধোনি বুদ্ধিমান উইকেটরক্ষক ছিলেন। উইকেটের পেছনে ক্ষিপ্রতা ,ব্যাটসম্যানকে পর্যবেক্ষণের দারুণ মনসংযোগ এবং পেশাদারিত্বের জন্য ধোনি উইকেটরক্ষক হিসেবে সবার প্রিয়।ধোনির কারণে বহুম্যাচের রূপ বদলেছে।আর ধোনি উইকেটের পেছনে থাকলে যেকোন ব্যাটসম্যান সতর্ক হতে বাধ্য।ধোনি ৫৩৮ম্যাচে কিপিং করেছেন । তাঁর তিন ফরমেট মিলিয়ে মোট ডিসমিসাল  ৮২৯টি।ধোনি তিনধরণের ক্রিকেটমিলিয়ে ৬৩৪টি ক্যাচ ও ১৯৫টি স্টাম্পিং করেছেন।

কুমার সাঙ্গাকারা (২০০০-২০১৫)

                                                              

শ্রীলঙ্কার সর্বকালের সেরা উইকেটরক্ষকব্যাটসম্যান সাঙ্গাকারা ক্রিকেট ইতিহাসের চতুর্থ সেরা উইকেটরক্ষক। সাঙ্গাকারা দীর্ঘ দিন শ্রীলঙ্কার উইকেটরক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।সাঙ্গা ৫৯৪ম্যাচে কিপিং করে তিনফরমেট মিলিয়ে ৬৭৮টি ডিসমিসালের মালিক হয়েছেন।সাঙ্গা এর মধ্যে ৫৩৯টি ক্যাচ ও ১৩৯টি স্টাম্পিং করেছেন।


 ইয়ান হিলি(১৯৮৮-১৯৯৯)

                                                                

অষ্ট্রেলিয়ার সাবেক গ্ৰেট উইকেটরক্ষক ইয়ান হিলি ক্রিকেটের তিন ফরমেট মিলিয়ে পঞ্চম সেরা উইকেটরক্ষক।ইয়ান হিলি বহু আগে ক্রিকেট ছেড়েছেন কিন্তু মোট ডিসমিসালের হিসেবে তাকে এখনো প্রথম পাঁচজনের মধ্যে রাখতে হচ্ছে।অষ্ট্রেলিয়ার সাবেক এই উইকেটরক্ষক টেষ্ট ও অডিআই মিলিয়ে ২৮৭ম্যাচে উইকেটের পেছনে দায়িত্ব পালন করেছেন।হিলি মোট ৬২৮টি ডিসমিসালের রূপকার। তিনি ৫৬০টি ক্যাচ ও ৬৮টি স্টাম্পিং করেছেন।