WHAT'S NEW?
Loading...

যারা টাকা জমাতে চান

                                                        ‌‌     


টাকা ছাড়া এখনকার জীবন প্রায় অচল।একসময় দ্রব্যের বিনিময়ে দ্রব্য পাওয়া যেত।তবে এখন এসব প্রায় অসম্ভব।এই সময়ের জীবনে লেনদেনের ক্ষেত্রে টাকাই সবচেয়ে বেশি দরকারি।আর টাকা রোজগারের সাথে এর ব্যয়ের সামঞ্জস্য থাকা উচিত।আয়-ব্যয়ের সামঞ্জস্য করার জন্য  টাকা জমানোর কৌশল জানার বিকল্প নেই।টাকা জমানোর কিছু টিপস এখানে তুলে ধরছি (সূত্র:ওয়েলথসিম্পল ডটকম)।

অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমাতে হবে

অনেকের অপ্রয়োজনীয় ব্যয়ের প্রবণতা রয়েছে।কারো নতুন বাইক বা গাড়ী কেনার বাতিক আছে।কারো ঘনঘন ভ্রমণের প্রবণতা রয়েছে। কেউবা আবার নিয়মিত কাপড়,জুতা কিনতে চান। টাকা জমাতে চাইলে বিশেষজ্ঞরা বলেন এসব প্রবণতা কমাতে হবে।এক্ষেএে বছরে দুই বা তিনবারে সারাবছরের কাপড়,জুতা ইত্যাদি নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্ৰী কেনার অভ্যাস করুন।এর ফলে বারবার এসবের জন্য টাকা খরচ লাগবে না এবং টাকা জমানোর উপায় পেয়ে যাবেন।

সেভিংস একাউন্ট খোলে ফেলুন

টাকা জমানোর জন্য যেকোন ব্যাংকে একটি সেভিংস একাউন্ট খোলে ফেলুন। খরচের পর নিয়মিত কিছু টাকা সেভিংস একাউন্টে রেখে দিন।

সপ্তাহের বাজার একবারে করুন

লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞদের মতে টাকা সেভ করতে চাইলে সপ্তাহের বাজার একবারে করা উচিত। এরসাথে তাদের পরামর্শ হচ্ছে যেসব দোকানে বিভিন্ন অফার,ছাড় থাকে সেখানে বাজার করা বুদ্ধিমানের কাজ।এতে টাকা সেভ হয়।আর এ প্রক্রিয়া মেনে চললে টাকা জমাতে সুবিধা হয়।

ঘরে তৈরি খাবার খান

বিশেষজ্ঞরা বলেন  বাইরে খেলে সাধারণত বেশি টাকা খরচ হয় ।আর নিয়মিত এভাবে ব্যয়বহুল বাইরের খাবার খেলে টাকা বাঁচানো কঠিন। এছাড়া নিয়মিত বাইরের খাবারে স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি রয়েছে।আর এক্ষেত্রে ঘরে তৈরি খাবার খেলে বেশকিছু টাকার অপচয় রোধ করা যায় এবং টাকা জমানো সহজ হয়।

বাইরের ফাষ্টফুড কফি এড়িয়ে চলুন

অনেকে নিয়মিত বাইরের ফাষ্টফুড,কফিতে বেশি মনোযোগ দেন। এগুলো টাকার অপচয় করে।এবং লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞদের মতে নিয়মিত বাইরে ফাষ্টফুড খেলে অতিরিক্ত খরচের ঝুঁকি বাড়ে।তাই টাকা জমাতে চাইলে এসব অভ্যাস কমাতে হবে।

ঝোঁকের বশে খরচ নয়

অনেকে ঝোঁকের বশে অহেতুক টাকা খরচ করেন। টাকা জমাতে চাইলে ঝোঁকের বশে হঠাৎ অপ্রয়োজনীয় খরচের অভ্যাস বন্ধ করতে হবে।তা নাহলে টাকা জমাতে সমস্যা হবে।

প্রতিদিন ব্যাংক নয়

অনেকে ব্যাংক থেকে প্রায় প্রতিদিন টাকা তুলে তারপর খরচ করেন।তবে বিশেষজ্ঞদের মতে এটি বরং টাকাখরচ বাড়িয়ে দেয়। তাদের পরামর্শ হচ্ছে সপ্তাহের একটি নির্দিষ্ট দিনে ব্যাংক থেকে টাকা তুলা বুদ্ধিমানের কাজ।আর টাকা খরচের হিসাব কোথাও লিখে রাখুন। টাকা খরচের হিসাব লিখে রাখলে কোথায় বেশি খরচ হচ্ছে সেটি বুঝতে সুবিধা হবে।এরফলে টাকা  জমানো সহজ হবে।

বাসে যাতায়াত করুন

অফিস কিংবা অন্যকাজে বাইরে বের হলে বাসে চলাচলের চেষ্টা করুন।এতে করে অহেতুক টাকা খরচ থেকে বেঁচে যাবেন। বিশেষজ্ঞদের মতে পাবলিক বাসে চড়ার অভ্যাস করলে টাকা সেভ করা সহজ হয়।

ঘনঘন ভ্রমণ বাদ দিন

ভ্রমণ খুব ভালো অভ্যাস।তবে ঘনঘন দূরে ভ্রমণে বেরোলে অহেতুক টাকা খরচের ঝুঁকি বেড়ে যায়।আর টাকা জমাতে চাইলে এ অভ্যাসে লাগাম টানতে হবে।এর চেয়ে বছরের নির্দিষ্ট এক সময়ে ভ্রমণের পরিকল্পনা করুন।

হুট করে বিশেষ খাবার নয়

কেউ কেউ হুট করে পার্টি বা বিশেষ কোন খাবারের প্ল্যান করে বসেন ফলে নিজের পকেটের টাকা হুট করে শেষ হয়ে যায়।আর টাকা জমাতে চাইলে এ প্রবণতা ছাড়তে হবে।কোন পার্টি বা বিশেষ খাবারের প্ল্যান থাকলে তা আগে থেকে গুছিয়ে নিতে হবে।এজন্য আলাদা করে কিছু  টাকা রেখে দিন। সাপ্তাহিক বাজারের সাথে ঐ বাজারটিও করে ফেলতে পারেন।

কত টাকা জমাবেন প্ল্যান করুন

লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞদের মতে শুধু একাউন্ট খোলাই শেষ নয় টাকা জমাতে চাইলে কতদিনে কতটাকা জমাতে চান তার একটি লক্ষ্য স্থির করুন। লক্ষ্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করুন ।

লিখেছেন: প্রভাকর চৌধুরী