WHAT'S NEW?
Loading...

কিভাবে আকর্ষণীয় সিভি প্রস্তুত করবেন

                                                         

বর্তমান কর্পোরেট কালচারের যুগে একটি সিভি বা জীবনবৃত্তান্ত পরোক্ষভাবে আপনার প্রতিনিধিত্ব করে।তাই যেকোন চাকরির সিভি তৈরির আগে প্রস্তুতি প্রয়োজন। কিছু বিষয়ে সতর্ক থাকলে  সহজেই একটি আকর্ষণীয় সিভি প্রস্তুত করা সম্ভব এবং সেইসাথে নিজের আদর্শ প্রতিলিপি তৈরি সম্ভব। আসুন জেনে নেই একটি আকর্ষণীয় সিভি প্রস্তুত করার টিপস।

সাদা কাগজে কম্পিউটারে কম্পোজ করা সিভি আকর্ষণীয়


কম্পিউটারে কম্পোজ করা সিভি সবচেয়ে ভালো। এবং সিভি সাদা কাগজে ছাপা করা উচিত।সিভিতে কখনো অধিক রঙচঙা কাগজ ব্যবহার করবেন না।

চেনা ফন্ট ব্যবহার করুন


সিভি তৈরির ক্ষেত্রে পরিচিত ফন্ট ব্যবহার করুন।সিভির উপরের হেডিংয়ে CV,Resume ইত্যাদি লিখবেন না। কারণ এসব হেডিং চাকরিদাতার কাছে একঘেয়ে মনে হতে পারে।

মার্জিত ছবি ব্যবহার করুন


সিভিতে সবসময় মার্জিত ছবি ব্যবহার করা উচিত। কারণ আপনার অমার্জিত ছবি চাকরিদাতাকে বিরক্ত করতে পারে। তাই সিভি প্রস্তুত করার সময় এ বিষয়ে সতর্ক থাকবেন।

আগ্ৰহ শখ ইত্যাদি অবশ্যই উল্লেখ করুন


সিভি তৈরির সময় সতর্কতার সাথে আপনার আগ্ৰহ শখ উল্লেখ করুন। অবশ্যই মিথ্যা তথ্য দেবেন না। কারণ ইন্টারভিউতে আপনার শখ সম্পর্কে জানতে চাইতে পারে।

কভার লেটার ছাড়া সিভি মূল্যহীন


সিভির সাথে অবশ্যই কভার লেটার যুক্ত করতে হবে। কভার লেটার মানে চাকরির মূল আবেদনপত্র। মনে রাখবেন কভার লেটার ছাড়া সিভি মূল্যহীন।

সিভিতে 'আমি''আমার''আমাদের' ইত্যাদি শব্দ এড়িয়ে চলুন


সিভি তৈরি করার ক্ষেত্রে আমি, আমার, আমাদের ইত্যাদি শব্দ এড়িয়ে চলা ভালো। কারণ এসব চাকরিদাতার কাছে বিরক্তিকর মনে হতে পারে।

সিভির দৈর্ঘ্য 


সিভির দৈর্ঘ্য যেন বেশি বড় না হয়। আবার বেশি ছোট ফন্ট ব্যবহার করে সিভিকে বিরক্তিকর করাও উচিত নয়। একটি ভালো সিভি তিন থেকে পাঁচ পেজ যথেষ্ট।

মিথ্যা তথ্য দেবেন না


সিভিতে কোন মিথ্যা তথ্য দেয়া উচিত নয়। কারণ মিথ্যা তথ্য আপনার ইন্টারভিউতে ডাক পাওয়ার সম্ভাবনা কমিয়ে দিতে পারে।

চিন্তা ভাবনা করে সিভি তৈরি করুন


আকর্ষণীয় সিভি তৈরি করার আগে নিজের সব ইতিবাচক তথ্য সময় নিয়ে চিন্তা করুন। পরিকল্পনা করে সিভি তৈরি করুন। আপনার অভিজ্ঞতা, ইতিবাচক গুণ ইত্যাদি আগে লিখে রাখুন।সিভিতে অতিরঞ্জিত কিছু লেখা উচিত নয়।

প্রয়োজনীয় সব তথ্য তুলে ধরুন


আপনার ব্যক্তিগত তথ্য,শিক্ষাগত তথ্য , ঠিকানা ইত্যাদি সিভিতে উল্লেখ করুন।ফোন নম্বর, ইমেইল এড্রেস অবশ্যই যুক্ত করুন।

চাকরির উদ্দেশ্য লিখুন


আপনি কেন এ চাকরি করতে চাচ্ছেন তা সিভিতে উল্লেখ করুন। আপনার জীবনের লক্ষ্য কি তা তুলে ধরুন।

রেফারেন্স ছাড়া সিভি দুর্বল


সিভিতে অবশ্যই উপযুক্ত রেফারেন্স ব্যবহার করুন।আর রেফারেন্সের ফোন নম্বর,ইমেইল এড্রেস দিন।

সিভির কাঠামো রুচিশীল হলে ভালো


সিভির পুরো কাঠামো যেন হিজিবিজি নাহয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। কারণ সিভির কাঠামো খারাপ হলে চাকরিদাতা নিরুৎসাহিত হতে পারেন।

Written by provakar chowdhury.