WHAT'S NEW?
Loading...

ক্রিকেটে এবি ডিভিলিয়ার্সের আবেদন কেন বেশি

                   
 ক্রিকেটে খুব কম প্লেয়ার আছে যারা একই সাথে ব্যাটিং-ফিল্ডিং ও অন্যান্য টোটাল স্কিলে সমান পারদর্শী। এবি ডিভিলিয়ার্স এমনই এক প্লেয়ার।ইনোভেটিভ শট, ব্যাটিংয়ে আধিপত্য বিস্তার করে খেলা, ফিল্ডিংয়ে অসাধারণ দক্ষতা সবকিছু মিলে ডিভিলিয়ার্স ক্রিকেটের এক বিরল প্রতিভা। বর্তমান ক্রিকেটে বিরাট কোহলিই শুধু তার সাথে  তুলনার যোগ্য।আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছেড়ে দিয়েছেন।তবে ক্রিকেটভক্তদের কাছে তার আবেদন সামান্য কমেনি।এখানে উইকিপিডিয়া ও অন্যান্য অনলাইন মিডিয়ার সৌজন্যে এবি ডিভিলিয়ার্সের ভালো ,মন্দ , আবেদন ইত্যাদির খোঁজ করব।

ইনোভেটিভ ব্যাটসম্যান:

ডিভিলিয়ার্সের বড় গুণ নতুন নতুন শট আবিষ্কার করা। যখন ফিল্ডিংয়ে গ্যাপ খোঁজে খোঁজে ব্যাটসম্যানরা ক্লান্ত সেখানে ডিভিলিয়ার্স বেশকিছু নতুন ধাচের শট আবিষ্কার করেছেন।যা তাকে চৌকস ব্যাটসম্যানের স্বীকৃতি দিয়েছে।

সবধরণের শট খেলার কৃতিত্ব:

ডিভিলিয়ার্স সবধরণের ক্রিকেটিং শট খেলতে পারঙ্গম ছিলেন। শুধু বিরাট কোহলি এক্ষেত্রে তার সাথে তুলনীয়।

অডিআই ক্রিকেটে দ্রুততম শতক: 

ডিভিলিয়ার্স অডিআই ক্রিকেটে দ্রুততম শতকের মালিক।২০১৫খ্রিষ্টাব্দে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩১বলে ১০০রান করে তিনি এ রেকর্ড গড়েন ।

ক্রিকেটে তিন ফরম্যাটেই সফল:

ডিভিলিয়ার্স ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে সফল এক ব্যাটসম্যান। তিনি টেষ্ট ক্রিকেটে ২২সেঞ্চুরি,অডিআই ক্রিকেটে ২৫ সেঞ্চুরির পাশাপাশি টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ১০হাফসেঞ্চুরির রূপকার।

অসাধারণ এক ফিল্ডার:

 ডিভিলিয়ার্স ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা ফিল্ডারদের অন্যতম। যদিও উইকেটরক্ষক হিসেবে তার ফিল্ডিং ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল।পরে উইকেটের পেছনের দায়িত্ব ছেড়ে গ্ৰাউন্ড ফিল্ডিং শুরু করেন।ক্ষিপ্রতার জন্য তিনি ফিল্ডিংয়ে স্মরণীয়।

টানা তিনবারের বিশ্বসেরা অডিআই ক্রিকেটার:

এবি ডিভিলিয়ার্স টানা তিনবার আইসিসি অডিআই প্লেয়ার অব দা ইয়ার নির্বাচিত হন।যা ক্রিকেটের ইতিহাসে বিরল।

বিশ্বসেরা মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান:

 সর্বকালের সেরা মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ডিভিলিয়ার্সের নাম থাকবেই। দ্রুত রান তুলে ব্যাটিংয়ে সহজেই আধিপত্য বিস্তারের ক্ষমতা ছিল তার।

Written by provakar chowdhury.