WHAT'S NEW?
Loading...

                                                                 


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আগামী মাসে(১৩ ফেব্রুয়ারি) শুরু হচ্ছে পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) অষ্টম আসর। ইতোমধ্যে আসন্ন পিএসএলের প্লেয়ার ড্রাফট সম্পন্ন হয়েছে। অষ্টম পিএসএলের সবগুলো স্কোয়াড এখানে তুলে ধরছি।


কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স 


সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক), মার্টিন গাপটিল,ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, মোহাম্মদ নেওয়াজ, জেসন রয়, ইফতেখার আহমেদ, নাসিম শাহ,ওডিয়ান স্মিথ, মোহাম্মদ হাসনাইন,উমর আকমল,নাভিন উল হক, আহসান আলী,উইল স্মিথ,উমাইদ আসিফ, মোহাম্মদ জাহিদ, আব্দুল ওয়াহিদ বাঙ্গলজাই,আইমাল খান,উমাইর বিন ইউসুফ,কোয়াইস আহমেদ,সউদ সাকিল,ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস,উইল জেকস, নুয়ান থুশারা।



পেশোয়ার জালমি 


বাবর আজম (অধিনায়ক),রভম্যান পাওয়েল,ভানুকা রাজাপাকসে, জিমি নিলাম,ওয়াহাব রিয়াজ,শেরফানে রাদারফোর্ড, উসমান কাদির,মুজিব উর রহমান, মোহাম্মদ হারিস,টম কোহলার-ক্যাডমোর,দানিশ আজিজ,আমির জামাল, আরশাদ ইকবাল, সালমান ইরশাদ,সাইম আইয়ুব, সুফিয়ান মুকিম,হাসিবুল্লাহ খান,কুরাম শাহজাদ,হারিস সোহেল, রিচার্ড গ্লিসন।



ইসলামাবাদ ইউনাইটেড 


শাদাব খান (অধিনায়ক),আলেক্স হেলস,কলিন মুনরো,পল স্টারলিং,মঈন আলী,রহমানউল্লাহ গুরবাজ, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র,আসিফ আলী,ফজলহক ফারুকি, হাসান আলী,ফাহিম আশরাফ,আজম খান, শোয়েব মাকসুদ, আবরার আহমেদ, জিসান জামির,রুমান রইস,মুবাসির খান, জাফর গোয়ার,হাসান নওয়াজ,টম কুরান,গাজ অ্যাটকিনসন,টাইমাল মিলস।




লাহোর কালান্দার্স 


শাহিন শাহ আফ্রিদি (অধিনায়ক),ফখর জামান, রশিদ খান,হারিস রউফ,ডেভিড ভিসা,হ্যারি ব্রুক, আবদুল্লাহ শফিক, হুসাইন তালাত, সিকান্দার রাজা, জামান খান,লিয়াম ডওসন,কামরান গোলাম,জর্ডান কক্স,দিলবার হোসেন, মীর্জা তাহির বেগ, আহমেদ দানিয়েল,শাহওয়াইজ ইরফান,জালাত খান,এহসান ভাটি,স্যাম বিলিংস,শেন জেডর্সওয়েল,কুশল মেন্ডিস।



মুলতান সুলতান্স 


মোহাম্মদ রিজওয়ান (অধিনায়ক),জস লিটল,ডেভিড মিলার,রাইলি রুশো,খুশদিল শাহ,শান মাসুদ,আদিল রশিদ, শাহনেওয়াজ ধাহানি,টিম ডেভিড, আকিল হোসেন, উসমান খান,উসামা মির,সামিন গুল, আনোয়ার আলী,আব্বাস আফ্রিদি, মোহাম্মদ সারোয়ার, ইহসানউল্লাহ, আরাফাত মিনহাস,কিওরেন পোলার্ড, আহমেদ বাট, ইজহারুল হক নাভিদ,ওয়েন পার্নেল। 




করাচি কিংস 


ইমাদ ওয়াসিম (অধিনায়ক), হায়দার আলি, শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ আমির,ম্যাথু ওয়েড, আমির ইয়ামিন,মীর হামজা,শারজিল খান, ইমরান তাহির,জেমস ভিন্স,জেমস ফুলার,এন্ডু টাই,তাবরিজ সামসি, মোহাম্মদ আখলাক, মোঃ ইরফান খান নিয়াজি,তৈয়ব তাহির,কাসিম আকরাম, মোহাম্মদ উমর,বেন কাটিং,মুসা খান,ফয়সল আকরাম,।





                                                               

 

 

প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো অন্য বছরের ন্যায় এবারও বর্ষসেরা(২০২২) ওয়ানডে দল ঘোষণা করেছে । উল্লেখ্য ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে বাংলাদেশের মেহেদী হাসান মিরাজের নাম রয়েছে। এছাড়া ইএসপিএন ক্রিকইনফোর (২০২২) বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে অধিনায়ক হিসেবে রয়েছেন পাকিস্তানের বাবর আজম। ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বিবেচনায় ২০২২ সালের বর্ষসেরা ওয়ানডে দলের বিস্তারিত এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।


কোন দেশের কতজন প্লেয়ার রয়েছেন 


ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে সর্বাধিক (তিনজন) প্লেয়ার রয়েছেন ভারতের। এছাড়া অষ্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের দু'জন করে  এবং বাংলাদেশ, ওয়েষ্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তান ও জিম্বাবুয়ের একজন করে প্লেয়ার ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে রয়েছেন । তবে শীর্ষ ওয়ানডে টিমগুলোর মধ্যে ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তানের কোন প্লেয়ার ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে জায়গা পাননি।


ওপেনিং 


অষ্ট্রেলিয়ার ট্রেভিস হেড ও ভারতের শুভমান গিল ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে ওপেনার হিসেবে রয়েছেন।



মিডলঅর্ডার 


ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলের মিডল অর্ডারে রয়েছেন যথাক্রমে পাকিস্তানের বাবর আজম, ভারতের শ্রেয়াশ আয়ার, নিউজিল্যান্ডের টম লাথাম, জিম্বাবুয়ের সিকান্দার রাজা ও বাংলাদেশের মেহেদী হাসান মিরাজ।


উইকেটরক্ষক


ইএসপিএন ক্রিকইনফোর ২০২২ সালের বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে উইকেটরক্ষক হিসেবে রয়েছেন নিউজিল্যান্ডের টম লাথাম।


স্পিনার 


ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে স্বীকৃত স্পিনার হিসেবে রয়েছেন যথাক্রমে বাংলাদেশের মেহেদী হাসান মিরাজ , অষ্ট্রেলিয়ার এডাম জাম্পা ও জিম্বাবুয়ের সিকান্দার রাজা।

পেসার 


ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে স্বীকৃত পেসার রয়েছেন তিনজন ( ওয়েষ্ট ইন্ডিজের আলজারি জোসেফ, ভারতের মোহাম্মদ সিরাজ ও নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট)।

ইএসপিএন ক্রিকইনফো বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দল 


ট্রেভিস হেড,শুভমান গিল,বাবর আজম (অধিনায়ক),শ্রেয়াশ আয়ার, টম লাথাম, সিকান্দার রাজা, মেহেদী হাসান মিরাজ, আলজারি জোসেফ, মোহাম্মদ সিরাজ,অ্যাডাম ও জাম্পা ট্রেন্ট বোল্ট।



                                                                 


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইসিসি) প্রতিবছরের ন্যায় বর্ষসেরা (২০২২) টেস্ট, ওয়ানডে ও টিটুয়েন্টি দল ঘোষণা করেছে। আইসিসির বর্ষসেরা(২০২২) ওয়ানডে দলে জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশের মেহেদী হাসান মিরাজ।তবে আইসিসির ২০২২ সালের বর্ষসেরা টেস্ট ও টিটুয়েন্টি দলে বাংলাদেশের কোন ক্রিকেটারের নাম নেই। আইসিসির তিন ফরম্যাটের বর্ষসেরা (২০২২)  (টেস্ট, ওয়ানডে ও টিটুয়েন্টি) দলের বিস্তারিত এখানে দেখে নিন।


আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২)  টেস্ট দল 


সম্প্রতি আইসিসি তাদের বিবেচনায় বর্ষসেরা (২০২২) টেস্ট দল ঘোষণা করেছে। আইসিসির বিবেচনায় ২০২২ এর বর্ষসেরা টেস্ট দলের বিস্তারিত এখানে দেখে নিন।

কোন দেশের কতজন ক্রিকেটার রয়েছেন 


আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) টেস্ট দলে সবচেয়ে বেশি ক্রিকেটার রয়েছেন অষ্ট্রেলিয়ার(চারজন)। এছাড়া ইংল্যান্ডের রয়েছেন তিনজন এবং দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ,ভারত ও পাকিস্তানের একজন করে ক্রিকেটার আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) টেস্ট দলে রয়েছেন।

বেন স্টোকস(অধিনায়ক), উসমান খাজা, মারনাস লাবুসেন,বাবর আজম,জনি বেয়ারস্টো,ঋষভ পন্ত,ক্রেইগ ব্রার্থওয়েট,প্যাট কামিন্স,কাগিছো রাবাদা, নাথান লায়ন,জেমস এন্ডারসন।



আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২)  ওয়ানডে দল 


সম্প্রতি আইসিসি ২০২২ সালের পারফরম্যান্স বিবেচনায় বর্ষসেরা ওয়ানডে দল ঘোষণা করেছে। এখানে আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলের বিস্তারিত দেখে নিন।

কোন দেশের কতজন ক্রিকেটার রয়েছেন 


আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে ভারত,অষ্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সর্বোচ্চ দু'জন করে ক্রিকেটার রয়েছেন । এছাড়া বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও জিম্বাবুয়ের একজন করে ক্রিকেটার আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে দলে রয়েছেন।

বাবর আজম( অধিনায়ক),ট্রেভিস হেড,শাই হোপ,শ্রেয়াশ আয়ার,টম লাথাম, সিকান্দার রাজা, মেহেদী হাসান মিরাজ, আলজারি জোসেফ,  মোহাম্মদ সিরাজ,ট্রেন্ট বোল্ট ও এডাম জাম্পা।


আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) টিটুয়েন্টি দল


সম্প্রতি আইসিসি তাদের বিবেচনায় গেল বছরের বর্ষসেরা টিটুয়েন্টি দল ঘোষণা করেছে। এখানে আইসিসির বর্ষসেরা(২০২২) টিটুয়েন্টি দলের বিস্তারিত দেখে নিন।

কোন দেশের কতজন ক্রিকেটার রয়েছেন 


আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) টিটুয়েন্টি দলে সবচেয়ে বেশি ক্রিকেটার রয়েছেন ভারতের (তিনজন)। এছাড়া আইসিসির বর্ষসেরা (২০২২) টিটুয়েন্টি দলে  ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের (দু'জন করে), নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়ে ও আয়ারল্যান্ডের একজন করে ক্রিকেটার রয়েছেন।

জস বাটলার (অধিনায়ক), মোহাম্মদ রিজওয়ান,বিরাট কোহলি,সূর্যকুমার যাদব,গ্লেন ফিলিপস, সিকান্দার রাজা,হ্নাদিক পান্ডিয়া,স্যাম কারেন,ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা,হারিস রউফ,জস লিটল।



                                                                 
                                                ছবি: হাসিম আমলা


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটার হাসিম আমলা সবধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন। উল্লেখ্য আমলা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে আগেই অবসর নিয়েছিলেন যদিও এই প্রোটিয়া ব্যাটার  ফাষ্টক্লাস ক্রিকেটে নিয়মিত ছিলেন।আর এবার আমলা ফাষ্টক্লাস ক্রিকেট থেকেও অবসর নিলেন ।হাসিম আমলার ক্যারিয়ারচিত্র এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।


টেস্ট ক্যারিয়ার 


১২৪ টেস্ট ৯২৮২ রান।২৮ শতক ও ৪১ ফিফটি।১টি ট্রিপল সেঞ্চুরি।

ওয়ানডে ক্যারিয়ার 


১৮১ ওয়ানডে ৮১১৩ রান।২৭ সেঞ্চুরি ও ৩৯ ফিফটি।

টিটুয়েন্টি ক্যারিয়ার 


৪৪টি আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টি।মোট ১২৭৭ রান।৮টি ফিফটি। 

ফাষ্টক্লাস ক্যারিয়ার 


২৫৪ ম্যাচ ১৮,৯০৭ রান।৫৫ সেঞ্চুরি ও ৯১টি ফিফটি।


হাসিম আমলার কিছু অজানা রেকর্ড 


হাসিম আমলার ক্যারিয়ারের বিভিন্ন অজানা রেকর্ড এখানে দেখে নিন।

আমলার আদিপুরুষ ভারতীয় 


হাসিম আমলার জন্ম বেড়ে ওঠা দক্ষিণ আফ্রিকায় তবে এই ক্রিকেটারের আদিপুরুষ ভারতের গুজরাটে বসবাস করতেন।


দক্ষিণ আফ্রিকার অনুর্ধ্ব ১৯ টিমের অধিনায়কত্ব 


হাসিম আমলা ২০০২ সালের অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকা টিমের অধিনায়ক ছিলেন। আমলার নেতৃত্বে দক্ষিণ আফ্রিকা অনুর্ধ্ব ১৯ টিম সেবার ফাইনালে উঠতে সক্ষম হয়।


আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক 


হাসিম আমলার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় ভারতের বিপক্ষে ২০০৪ সালে (কলকাতা টেষ্টে)।


দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে  ট্রিপল সেঞ্চুরি 


২০১২ সালে হাসিম আমলা দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ব্যাটার হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে ট্রিপল সেঞ্চুরি (প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড) করেন।


উইজডেন ক্রিকেটার অব দ্য ইয়ার 


দারুণ পারফরম্যান্সের জন্য হাসিম আমলা ২০১৩ সালে উইজডেন ক্রিকেটার অব দ্য ইয়ার মনোনিত হন।


রানমেসিন হিসেবে পরিচিতি 


ব্যাট হাতে ধারাবাহিকতার জন্য একসময় হাসিম আমলা ক্রিকেটের রানমেসিন হিসেবে পরিচিতি পান। উল্লেখ্য আমলা ওয়ানডে ক্রিকেটে দ্রুততম ২,০০০(৪০ ইনিংস)৩,০০০(৫৯ ইনিংস),৪,০০০(৮১ ইনিংস),৫,০০০(১০১ ইনিংস),৬,০০০(১২৩ ইনিংস) রানের মাইলফলক স্পর্শ করা একমাত্র ব্যাটার।


ওয়ানডেতে দ্রুততম ধারাবাহিক সেঞ্চুরির রেকর্ড


হাসিম আমলা ওয়ানডে ক্রিকেটে দ্রুততম সময়ে নিজের ১৬,১৭,১৮,১৯,২০,২১ ও ২২তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি পূর্ণ করা একমাত্র ব্যাটার।


সব টেস্টপ্লেয়িং টিমের বিপক্ষে ওয়ানডে সেঞ্চুরি 


 সব টেস্টপ্লেয়িং টিমের বিপক্ষে আমলার ওয়ানডে সেঞ্চুরি রয়েছে।আমলা চতুর্থ ব্যাটার হিসেবে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন।


                                                                 


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আজ বিশ্বজুড়ে হিন্দুসম্প্রদায়ের সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।প্রতিবছর হিন্দুসম্প্রদায় মাঘ মাসের শুক্লা পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী পূজার আয়োজন করে থাকেন।দেবী সরস্বতীকে বিদ্যা ও সংগীতের দেবী হিসেবে পূজা করা হয়।প্রিয় ক্রিকেট ডটকম' এর পক্ষ থেকে সকল পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীকে সরস্বতী পূজার শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও হিন্দুসম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীরা সরস্বতী পূজার আয়োজন করে থাকেন।



                                                               


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ  ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট 'উইজডেন' প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ২০২২ সালের বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশ ঘোষণা করেছে। সাধারণত ক্রিকেটের একটি ক্যালেন্ডার ইয়ার শেষে উইজডেন বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশ ঘোষণা করে। উল্লেখ্য উইজডেনের বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে একাদশে বাংলাদেশের অলরাউন্ডার  মেহেদী হাসান মিরাজের নাম রয়েছে। উইজডেনের বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে একাদশ এখানে দেখে নিন।


ওপেনিং 


উইজডেনের বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে একাদশে ওপেনার হিসেবে রয়েছেন অষ্ট্রেলিয়ার ট্রেভিস হেড ও পাকিস্তানের ইমাম উল হক। উল্লেখ্য ২০২২ সালে এই দুই ওপেনার ওয়ানডে ক্রিকেটে চমৎকার পারফর্ম করেন।


মিডলঅর্ডার 


উইজডেনের বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে একাদশের টপঅর্ডারে যথাক্রমে ৩,৪,৫ ও ৬ নম্বরে রয়েছেন পাকিস্তানের বাবর আজম, ভারতের শ্রেয়াশ আয়ার, নিউজিল্যান্ডের টম লাথাম ও দক্ষিণ আফ্রিকার রাসি ফন ডার ডুসেন । উল্লেখ্য এই চার ব্যাটার গেল বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে দারুণ ব্যাটিং করেন। 


উইকেটরক্ষক 


উইজডেনের (২০২২) বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে উইকেটরক্ষক হিসেবে রয়েছেন নিউজিল্যান্ডের টম লাথাম। 



অলরাউন্ডার 


উইজডেনের বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে একমাত্র স্বীকৃত অলরাউন্ডার হিসেবে রয়েছেন বাংলাদেশের মেহেদী হাসান মিরাজ। উল্লেখ্য মিরাজ গেল বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে অলরাউন্ডার হিসেবে চমৎকার পারফর্ম করেন।


স্পিনার 



উইজডেনের বিবেচনায় গেল বছরের সেরা ওয়ানডে একাদশে স্বীকৃত স্পিনার হিসেবে রয়েছেন অষ্ট্রেলিয়ার এডাম জাম্পা ও বাংলাদেশের মেহেদী হাসান মিরাজ। উল্লেখ্য জাম্পা ও মিরাজ ২০২২ সালে ওয়ানডেতে দারুণ বোলিং করেন।


পেসার 



উইজডেনের বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে একাদশে তিনজন পেসার রয়েছেন। উইজডেনের বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশের পেসাররা হলেন যথাক্রমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের আলজারি জোসেফ, ভারতের মোহাম্মদ সিরাজ ও নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট। উল্লেখ্য এই তিন পেসার গেল বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে চমৎকার পারফর্ম করেন।


দ্বাদশ প্লেয়ার 


উইজডেনের বর্ষসেরা(২০২২) ওয়ানডে একাদশে দ্বাদশ প্লেয়ার হিসেবে রয়েছেন জিম্বাবুয়ের সিকান্দার রাজা। উল্লেখ্য সিকান্দার রাজা গেল বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে ব্যাট ও বল হাতে চমৎকার পারফর্ম করেন।



উইজডেনের বর্ষসেরা (২০২২) ওয়ানডে একাদশ 


ট্রেভিস হেড,ইমাম উল হক,বাবর আজম,শ্রেয়াশ আয়ার,টম লাথাম (উইকেটরক্ষক),রাসি ফন ডার ডুসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ,আলজারি জোসেফ, মোহাম্মদ সিরাজ,এডাম জাম্পা,ট্রেন্ট বোল্ট, সিকান্দার রাজা (দ্বাদশ প্লেয়ার)।




                                                                 
                                                ছবি: শুভমান গিল


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি আরও একটি ডাবল সেঞ্চুরি দেখলো ওয়ানডে ক্রিকেট। ভারতের শুভমান গিল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এক ওয়ানডে ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন।  গিলের ডাবল সেঞ্চুরিটি ওয়ানডে ক্রিকেটে সবচেয়ে কম বয়সে ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড । উল্লেখ্য এর ফলে  গিল পঞ্চম ভারতীয় ব্যাটার হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করলেন। ওয়ানডে ক্রিকেটে কোন ব্যাটার কত বছর বয়সে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন সেই পরিসংখ্যান এখানে দেখে নিন।


১. শুভমান গিল ২০৮ রান,২০২৩  (প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড) 


বয়স : ২৩ বছর ১৩২ দিন।



২. ইষাণ কিষাণ ২১০ রান,২০২২ (প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ) 


বয়স : ২৪ বছর ১৪৫ দিন।



৩. রোহিত শর্মা ২০৯ রান , ২০১৩ (প্রতিপক্ষ অষ্ট্রেলিয়া) 


বয়স : ২৬ বছর ১৮৬ দিন।



৪. রোহিত শর্মা ২৬৪ রান,২০১৪ (প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা) 


বয়স : ২৭ বছর ১৯৭ দিন।



৫. ফখর জামান ২১০ রান,২০১৮ (প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে) 


বয়স : ২৮ বছর ১০২ দিন।



৬. মার্টিন গাপটিল ২৩৭ রান, ২০১৫ (প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ)


বয়স : ২৮ বছর ১৭২ দিন।



৭. রোহিত শর্মা ২০৮ রান,২০১৭ (প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা) 


বয়স : ৩০ বছর ২২৭ দিন।



৮. বীরেন্দর শেবাগ ২১৯ রান,২০১১( প্রতিপক্ষ ওয়েষ্ট ইন্ডিজ) 


বয়স : ৩৩ বছর ৪৯ দিন।



৯. ক্রিস গেইল ২১৫ রান,২০১৫ (প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে)


বয়স : ৩৫ বছর ১৫৬ দিন।



১০. শচিন টেন্ডুলকার ২০০ রান,২০১০ (প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা) 


বয়স : ৩৬ বছর ৩০৬ দিন।



                                                                


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ২০২৩ আইপিএলের (ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ) প্লেয়ার ড্রাফট সম্পন্ন হয়েছে। এবারের আইপিএলের প্লেয়ার ড্রাফটে ১০টি ফ্রাঞ্চাইজি অংশগ্রহণ করে। এবারের আইপিএলের প্লেয়ার ড্রাফটে সবচেয়ে বড় একটি চমক  ছিল আর তা হচ্ছে বাংলাদেশের তিনজন ক্রিকেটার এবার দল পেয়েছেন। এছাড়া আইপিএলের ফ্রাঞ্চাইজিগুলো এবার প্লেয়ার ড্রাফটে নিজেদের পছন্দের ও সম্ভাব্য সেরা প্লেয়ারদের  দলে নেয়ার চেষ্টা করে।২০২৩ আইপিএলের ১০ স্কোয়াড এখানে তুলে ধরা হলো।


মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স 


রোহিত শর্মা,সূর্যকুমার যাদব,টিম ডেভিড,রমনদ্বীপ সিং,ইশান কিষাণ,তিলক ভার্মা,জোফরা আর্চার,ডেওয়াল্ড ব্রেভিস,ক্রিষ্টিয়ান স্টাবস,জাসপ্রিত বুমরা, অর্জুন টেন্ডুলকার,জেসন ব্রেহেনডর্থ,আরশাদ খান,কুমার কাত্তিকেয়া,ঋত্বিক শোকেন,আকাশ মাদওয়াল, ক্যামেরুন গ্ৰিন,ডোয়ান জেনসেন,ঝাই রিচার্ডসন,পিযুষ চাওলা,বিষ্ণু বিনোদ,নেয়াল ওয়াদেরা,সামস মুলানি,রাঘব গয়াল।



কেকেআর 


শ্রেয়াশ আয়ার,আন্দ্রে রাসেল, সুনীল নারাইন, শার্দুল ঠাকুর,রহমানউল্লাহ গুরবাজ, ভেঙ্কটেশ আয়ার,টিম সাউদি,নীতিশ রানা,উমেশ যাদব,লোকি ফার্গুসন,হার্শিত রানা,বরুণ চক্রবর্তী, অনুকূল রয়,রিঙ্কু সিং ,সাকিব আল হাসান,লিটন দাস,মানদীপ সিং,বৈভব অরোরা,নারায়ণ জগদিশান,সুহাস শর্মা,ডেভিড উইজি,কুলান্ত কেজরোলিয়া।



সিএসকে 


এমএস ধোনি,ডেভন কনওয়ে,ঋতুরাজ গায়কোয়াড,আম্বাতি রাইডু,মঈন আলী, রবীন্দ্র জাদেজা,শিভম দুবে,শুভ্রানসু সেনাপতি,ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস,মিচেল স্যান্টনার,রাজবর্ধন হাঙ্গারেকার, তুষার দেশপান্ডে,মুকেশ চৌধুরী,মাথিশ পাতিরানা, দীপক চাহার,সিমারজিত সিং,মাহিশ থিকশানা,প্রশান্ত সোলাঙ্কি,বেন স্টোকস, আজিঙ্কা রাহানে,শেখ রাশিদ,নিশান্ত সিন্ধু,কাইল জেমিসন,ভগত ভার্মা,অজয় মন্ডল।


আরসিবি 


বিরাট কোহলি,ফাফ ডু প্লেসিস,গ্লেন ম্যাক্সওয়েল,ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা,জস হার্জেলউড,ফিন এলেন,ডেভিড উইলি,দীনেশ কার্তিক,রজত পাতিদার,হার্শাল প্যাটেল, মোঃ সিরাজ,সুহাশ প্রভূদেশাই,অনুজ রাওয়াত,শাহবাজ আহমেদ,কর্ন শর্মা,মহিপাল লমরুর,সিদ্ধার্থ কৌল,আকাশ দীপ,উইল জ্যাকস,রিস টপলি,হিমাংসু শর্মা,মনোজ বান্দাজে,আর সনু যাদব,রাজন কুমার,অভিনাশ সিং।



পাঞ্জাব কিংস 


জনি বেয়ারষ্টো,শিকর ধাওয়ান,ভানুকা রাজাপাকসে,লিয়াম লিভিংস্টোন,কাগিছো রাবাদা,অশ্বদীপ সিং, রাহুল চাহার,ঋষি ধাওয়ান,রাজ বাওয়া, নাথান ইলিচ,প্রবিসিমরাং সিং,অথর্ভ টেইড,শাহরুখ খান,হারপ্রিত ব্রার,বালতেজ সিং,স্যাম কারেন,হারপ্রিত ভাটিয়া, সিকান্দার রাজা,ভি কাভারেপ্পা,মহিত রাটে,শিভাম সিং,জিতেশ শর্মা।



দিল্লি ক্যাপিটালস 


মুস্তাফিজুর রহমান,ডেভিড ওয়ার্নার,ঋষভ পন্ত,রভম্যান পাওয়েল, পৃথ্বী শ,রিপাল প্যাটেল,সরফরাজ খান,ইয়াশ ধুল, মিশেল মার্শ,এনরিক নরকিয়া,অক্ষয় প্যাটেল,চেতন সাকারিয়া, কমলেশ নাগরকুটি, খলিল আহমেদ, ললিত যাদব,কুলদীপ যাদব,লোঙ্গি এনগিদি,আমান খান,প্রবিণ দুবে,ভিকি অষ্টোওয়াল, ফিল্ট সল্ট,রাইলি রুশো,ইশান্ত শর্মা,মুকেষ কুমার,মানিষ পান্ডে। 


লক্ষ্মৌ সুপার জায়ান্টস 


কেএল রাহুল,কুইন্টন ডি কক,মার্কাস স্টয়নিস,দীপক হুদা,কাইল মায়ের্স,ক্রুনাল পান্ডিয়া,মার্ক উড,আভিস খান,কৃষ্ণাপ্পা গৌতম,কর্ন শর্মা,আয়ুস বাদানি,মানান বোহরা,রবি বিষ্ণো,মায়াঙ্ক যাদব,জয়দেব উনাদকাট, নিকোলাস পুরাণ, রোমারিও শেফার্ড,ডেনিয়েল সামস,অমিত মিশ্র,ইয়াশ ঠাকুর,নাভিন উল হক,যুদভির চেরাক,মহসীন খান,প্রেরাগ মানকাড,স্বপ্নীল সিং।



রাজস্থান রয়্যালস 


সঞ্জু স্যামসন,জস বাটলার,শিমরন হেটমায়ার,জো রুট,ইয়াসভি জয়সওয়াল, দেবদূত পাড্ডিকেল,ধ্রুব জোরেল,রিয়ান পরাগ,ট্রেন্ট বোল্ট,যুজবেন্দ্র চাহাল,প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ,ওবেদ ম্যাকয়,নবদীপ সাইনি,কুলদীপ যাদব,রবিচন্দন অশ্বিন,কুলদীপ সেন,কেসি কারিয়াপ্পা,জেসন হোল্ডার,এডাম জাম্পা,দনোভান ফেরেইরা,কুনাল রাঠোর,কেএম আসিফ, মুরুগান অশ্বিন,আকাশ ভাসিথ,আব্দুল বাসিত।



সানরাইজার্স হায়দরাবাদ 


এইডেন মার্করাম,গ্লেন ফিলিপস, অভিষেক শর্মা,মার্কো জেনসেন, আব্দুল সামাদ, রাহুল ত্রিপাঠি,ফজল হক ফারুকি, ভুবনেশ্বর কুমার,কাত্তিক তেয়াগি,থাঙ্গারাসু নটরাজন,উমরান মালিক,মায়াঙ্ক আগারওয়াল,হ্যারি ব্রুক,হেনরিক ক্লাসেন,আদিল রশিদ,মায়াঙ্ক মারকান্ডে,ভিভরান্ত শর্মা,সানভির সিং,সামার্থ ভায়াস,উপেন্দ্র যাদব,মায়াঙ্ক দাগার,নীতিশ কুমার রেড্ডি,আকিল হোসেন,আনমলপ্রীত সিং।



গুজরাট টাইটান্স 


হ্নাদিক পান্ডিয়া,ডেভিড মিলার,শুভমান গিল,ম্যাথু ওয়েড,অভিনব মনোহর,শাই সুদর্শন, ঋদ্ধিমান সাহা, রাহুল তেওয়াটিয়া,আলজারি জোসেফ, রশিদ খান,বিজয় শঙ্কর, মোহাম্মদ শামি,ইয়াশ দয়াল,প্রদীপ সংওয়ান,দর্শন নালকান্ডে,জয়ন্ত যাদব,শাই কিশোর,নূর আহমেদ, কেন উইলিয়ামসন,ওডিয়ান স্মিথ,কেএস ভরত,শিভাম মাভি,জশুয়া লিটল,উরভিল প্যাটেল,মহিত শর্মা।



                                                              


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ২০২২ এর পর নতুন বছর ২০২৩ শুরু হয়েছে। ক্রিকেটের ক্যালেন্ডার ইয়ারেও নতুন একটি বছর শুরু হয়েছে। ২০২২ সালে ক্রিকেটে  ম্যানস টিটুয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো বৈশ্বিক আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে যেখানে ইংল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হয়। এছাড়া  গেল বছর ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট মিলিয়ে  সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন পাকিস্তানের বাবর আজম (২,৫৯৮ রান) ও সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন  ওয়েস্ট ইন্ডিজের আলজারি জোসেফ (৭০ উইকেট) ।২০২২ সালে ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটের শীর্ষ পারফরমারদের (শীর্ষ ব্যাটার ও শীর্ষ বোলার) পরিসংখ্যান এখানে দেখে নিন(তথ্যসূত্র: ইএসপিএন ক্রিকইনফো, ক্রিকেটওয়া)।


টেস্টের (২০২২) শীর্ষ পারফরমার 

২০২২ সালের টেস্ট ক্রিকেটের  শীর্ষ ব্যাটার ও শীর্ষ বোলারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।

শীর্ষ ব্যাটার 

গেল বছর টেস্ট ক্রিকেটের শীর্ষ ব্যাটার (সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক) ছিলেন পাকিস্তানের বাবর আজম (৯ ম্যাচে ১১৮৪ রান)। 

সর্বাধিক সেঞ্চুরি 

২০২২ সালে ইংল্যান্ডের জনি বেয়ারস্টো টেস্ট ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি (৬টি) সেঞ্চুরি করেছেন।

সর্বাধিক ফিফটি 

২০২২ সালে টেস্টে পাকিস্তানের বাবর আজম  সর্বাধিক (৭টি) ফিফটি করেছেন ।


শীর্ষ বোলার 

গেল বছর টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন অষ্ট্রেলিয়ার নাথান লায়ন (১৫ ম্যাচে ৬১ উইকেট)।


ওয়ানডের (২০২২) শীর্ষ পারফরমার 

২০২২ সালে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের (ওয়ানডে) শীর্ষ ব্যাটার ও শীর্ষ বোলারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।

শীর্ষ ব্যাটার 

নামিবিয়ার গ্যারাড ইরাসমাস (২১ ম্যাচে ৯৫৬ রান) গেল বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে শীর্ষ ব্যাটার ( সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক )  ছিলেন।

সর্বাধিক সেঞ্চুরি 

২০২২ সালে ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বাধিক (তিনটি করে) সেঞ্চুরি করেন যথাক্রমে ওয়েষ্ট ইন্ডিজের সাই হোপ, পাকিস্তানের বাবর আজম, জিম্বাবুয়ের সিকান্দার রাজা ও আফগানিস্তানের ইব্রাহিম জাদরান।

সর্বাধিক ফিফটি 

২০২২ সালে নামিবিয়ার গ্যারাড ইরাসমাস ও নেদারল্যান্ডসের স্কট এডওয়ার্ডস ওয়ানডে ক্রিকেটে  সর্বাধিক (আটটি করে) সেঞ্চুরি করেন।


শীর্ষ বোলার 

গেল বছর (২০২২) ওয়ানডে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন ওমানের বিলাল খান(১৬ ম্যাচে ৪৩উইকেট)।


টিটুয়েন্টির (২০২২) পারফরমার 

২০২২ সালে টিটুয়েন্টি ক্রিকেটের শীর্ষ ব্যাটার ও শীর্ষ বোলারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরছি।


শীর্ষ ব্যাটার 

ভারতের সূর্যকুমার যাদব (৩১ম্যাচে ১১৬৪ রান) গেল বছর আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টির শীর্ষ ব্যাটার (সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক) ছিলেন।

সর্বাধিক সেঞ্চুরি 

পাঁচজন ব্যাটার সূর্যকুমার যাদব, দক্ষিণ আফ্রিকার রাইলি রুশো,ফ্রান্সের গুস্তাভ ম্যাকয়েন  ফাহিম নাজির (সুইজারল্যান্ড) ও সাবাওন ধাবিজি (চেক রিপাবলিক) ২০২২ সালে আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টিতে সর্বাধিক (দুটি করে) সেঞ্চুরি করেন ।

সর্বাধিক ফিফটি

পাকিস্তানের মোহাম্মদ রিজওয়ান (দশটি) গেল বছর আন্তর্জাতিক টিটুয়েন্টিতে সর্বাধিক ফিফটি করেন।


শীর্ষ বোলার 

২০২২ সালে টিটুয়েন্টির আন্তর্জাতিক সংস্করণে শীর্ষ বোলার ছিলেন শ্রীলঙ্কার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (৮ ম্যাচে ১৫উইকেট)।






                                                                
                                                ছবি: রোহিত শর্মা


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি দ্বিতীয় ব্যাটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে  ৫০০ ছক্কার মাইলফলক স্পর্শ করেছেন ভারতের রোহিত শর্মা।  বাংলাদেশের বিপক্ষে  সদ্যসমাপ্ত ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে রোহিত ৫০০ আন্তর্জাতিক ছক্কার মাইলফলক স্পর্শ করেন। উল্লেখ্য এর আগে শুধু ওয়েষ্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৫০০ ছক্কা হাঁকানোর নজির গড়েন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক ছক্কা হাঁকানো ১০ ব্যাটারের পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরা হলো।



আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ছক্কা 


আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের এযাবতকালের রেকর্ড অনুযায়ী সবচেয়ে বেশি ছক্কা হাঁকিয়েছেন উইন্ডিজ ব্যাটার ক্রিস গেইল(৫৫৩টি)। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক ছক্কা হাঁকানো ১০ ব্যাটারের পরিসংখ্যান দেখে নিন।


ক্রিস গেইল 


ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটের এযাবতকালের রেকর্ড অনুযায়ী সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকিয়েছেন উইন্ডিজ ব্যাটার ক্রিস গেইল (৪৮৩ ম্যাচে ৫৫৩ ছক্কা)।


রোহিত শর্মা 


ভারতের ব্যাটার রোহিত শর্মা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ছক্কা ( ৪৩০ ম্যাচে ৫০৬ ছক্কা) হাঁকিয়েছেন।


শহিদ আফ্রিদি 


পাকিস্তানের শহিদ আফ্রিদি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক ছক্কা ( ৫২৪ ম্যাচে ৪৭৬ছক্কা) হাঁকানো অন্যতম ব্যাটার।

ব্রেন্ডন ম্যাককালাম 


কিউই ব্যাটার ব্রেন্ডন ম্যাককালাম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ছক্কা (৪৩২ ম্যাচে ৩৯৮ ছক্কা) হাঁকানো শীর্ষ ৫ ব্যাটারের তালিকায় রয়েছেন।


মার্টিন গাপটিল 


কিউই ব্যাটার মার্টিন গাপটিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক ছক্কা( ৩৬৭ ম্যাচে ৩৮৩ ছক্কা) হাঁকানো অন্যতম ব্যাটার।

এম এস ধোনি 


ভারতের ব্যাটার এম এস ধোনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক হাঁকানো শীর্ষ ১০ ব্যাটারের অন্যতম  (৫৩৮ ম্যাচ খেলে ৩৫৯টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন )।

সনাথ জয়াসুরিয়া 


লংকান ব্যাটার সনাথ জয়াসুরিয়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ছক্কা (৫৮৬ ম্যাচে ৩৫২ ছক্কা) হাঁকানো অন্যতম ব্যাটার।

এউইন মরগান 


ইংলিশ ব্যাটার এউইন মরগান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক ছক্কা (৩৭৯ ম্যাচে ৩৪৬ ছক্কা) হাঁকানো অন্যতম ব্যাটার।

এবি ডিভিলিয়ার্স 


দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটার এবি ডিভিলিয়ার্স ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট মিলিয়ে সর্বাধিক ছক্কা ( ৪২০ ম্যাচে ৩২৮ ছক্কা) হাঁকানো অন্যতম ব্যাটার।

জস বাটলার 


ইংলিশ ব্যাটার জস বাটলার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ছক্কা ( ৩১৯ ম্যাচে ২৮৭ ছক্কা) হাঁকানো ১০ ব্যাটারের তালিকায় রয়েছেন।


                                                               


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আজ শুরু হচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টি (আইএলটি)। ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির  প্রথম আসর এটি। এবারের ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টিতে ৬টি ফ্রাঞ্চাইজি অংশগ্রহণ করছে। উল্লেখ্য ১৩ ফেব্রুয়ারি  ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির  ফাইনাল  অনুষ্ঠিত হবে। এখানে এবারের ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির সিডিউল,ভেন্যু ও ফ্রাঞ্চাইজির বিস্তারিত তুলে ধরা হলো।



সিডিউল 


ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির (আইএলটি) প্রথম আসর আজ শুরু হচ্ছে। উল্লেখ্য আইএলটির এবারের আসর ১৩ জানুয়ারি থেকে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে। ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির (আইএলটি) বিস্তারিত সিডিউল এখানে দেখে নিন।


                                                             

 


ভেন্যু 


ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির (আইএলটি) এবারের আসরের ম্যাচগুলো দুবাই, আবুধাবি ও শারজায় অনুষ্ঠিত হবে। এবারের ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির ভেন্যুতালিকা এখানে দেখে নিন।

১.দুবাই স্টেডিয়াম 

২. শেখ জায়েদ স্টেডিয়াম (আবুধাবি)

৩. শারজা স্টেডিয়াম 



ফ্রাঞ্চাইজি 


ইন্টারন্যাশনাল লিগ টিটুয়েন্টির (আইএলটি) এবারের আসরে মোট ছয়টি ফ্রাঞ্চাইজি অংশ নিচ্ছে।আইএলটির এবারের আসরের ফ্রাঞ্চাইজিতালিকা এখানে দেখে নিন।

১.ডেজার্ড ভাইপার্স

২.গালফ জায়ান্টস

৩. দুবাই ক্যাপিটালস 

৪.এমআই এমিরেটস 

৫. শারজাহ ওয়ারিয়র্স

৬. আবুধাবি নাইট রাইডার্স 





                                                                


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ শেষ হয়েছে ২০২২ সাল এবং শুরু হয়েছে নতুন বছর ২০২৩।অন্যান্য সবকিছুর মতো ক্রিকেটেরও আরো একটি বছর (ক্যালেন্ডার ইয়ার) শেষ হয়েছে ও নতুন বছর শুরু হয়েছে।২০২২ সালে বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট দলের পারফরম্যান্সে কিছুটা উঠানামা ছিল।যথারীতি গেল বছর সাকিব, লিটনদের ওয়ানডে পারফরম্যান্স আশাব্যঞ্জক ছিল ।তবে ২০২২ সালে টেস্ট ও টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশ  প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি। এছাড়া উল্লেখ্য গেল বছর ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন লিটন দাস। ২০২২ সালে বাংলাদেশ জাতীয় (পুরুষ) ক্রিকেট দলের পারফরম্যান্সচিত্র এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।


বাংলাদেশের টেস্ট (২০২২)পারফরম্যান্স 


২০২২ সালে বাংলাদেশের টেস্ট পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতা ছিলনা। এছাড়া গেল বছর টাইগারদের টেষ্ট ক্রিকেটে ব্যর্থতার পাল্লা ভারী ছিল।২০২২ সালে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের টেস্ট সাফল্য বলতে শুধু নিউজিল্যান্ডের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১টি টেস্ট জয়ের কথাই বলতে হচ্ছে। এছাড়া গেল বছর বাংলাদেশ ১টি টেস্ট ড্র করতে পেরেছে। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ২০২২ সালের টেস্ট পারফরম্যান্সচিত্র এখানে তুলে ধরছি।

মোট ম্যাচ - ১০টি 

জয় - ১ 

ড্র - ১ 

পরাজয় - ৮ ।

সর্বোচ্চ রান - লিটন দাস (৮০০ রান)।

সর্বোচ্চ উইকেট - মেহেদী হাসান মিরাজ (৩১ উইকেট)।



বাংলাদেশের ওয়ানডে (২০২২) পারফরম্যান্স 


২০২২ সালে বাংলাদেশের ওয়ানডে পারফরম্যান্স যথারীতি আশাব্যঞ্জক ছিল।গেল বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে  বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল ভালো করেছে।২০২২ সালে সাকিব,লিটনরা ১৫টি ওয়ানডের মধ্যে ১০টিতে জয় পেয়েছেন। ২০২২ সালে বাংলাদেশের ওয়ানডে পারফরম্যান্সচিত্র এখানে তুলে ধরছি।

মোট ম্যাচ - ১৫টি 

জয় - ১০ 

পরাজয় - ৫ 

সর্বোচ্চ রান -লিটন দাস (৫৭৭ রান)।

সর্বোচ্চ উইকেট - সাকিব আল হাসান (২৫ উইকেট)।



বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি (২০২২) পারফরম্যান্স


গেল বছর বাংলাদেশের টিটুয়েন্টি পারফরম্যান্স খুব  আশাব্যঞ্জক ছিল না।২০২২ সালে সাকিব, লিটনরা টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে ভালো করতে পারেননি। টিটুয়েন্টি ক্রিকেটে গেল বছরও বাংলাদেশের পরাজয়ের পাল্লা ভারী ছিল। বাংলাদেশের ২০২২ সালের টিটুয়েন্টি পারফরম্যান্সচিত্র এখানে তুলে ধরছি।


মোট ম্যাচ - ২১টি 

জয় - ৬ 

পরাজয় - ১৪ (১টির ফল নিষ্পত্তি হয়নি) 

সর্বোচ্চ রান - লিটন দাস ( ৫৪৪ রান।

সর্বোচ্চ উইকেট - তাসকিন আহমেদ (৮ উইকেট)।




                                                                 


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি সমন্বিত ১০টি সরকারী ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সিনিয়র অফিসার পদে জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। সমন্বিত ১০টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান হচ্ছে যথাক্রমে সোনালী ব্যাংক,জনতা ব্যাংক,অগ্ৰণী ব্যাংক,রুপালী ব্যাংক, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশন,প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক, কর্মসংস্থান ব্যাংক, ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ। সমন্বিত ১০টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির বিস্তারিত এখানে তুলে ধরা হলো।


পদ : সিনিয়র অফিসার 


পদসংখ্যা : ৯২২ 


জব আইডি নম্বর : 10180 


যোগ্যতা : যেকোন স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্মাতকোত্তর ডিগ্ৰি অথবা চারবছর মেয়াদী স্মাতক ডিগ্রি।



বয়স : ২৫ মার্চ ২০২০ তারিখে বয়স সর্বোচ্চ ৩০ বছর।তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর।


বেতনস্কেল : নবম গ্ৰেড।



আবেদন প্রক্রিয়া: অনলাইন (ভিজিট: https://erecruitment.bb.org.bd)।



আবেদন ফি : ২০০টাকা।



আবেদনের শেষ তারিখ : ৩১ জানুয়ারি,২০২৩ (রাত ১১.৫৯টা)।



সূত্র: দৈনিক যুগান্তর অনলাইন

                                                                


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের ( এলজিইডি) নতুন একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। এলজিইডির সাম্প্রতিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির বিস্তারিত এখানে দেখে নিন।


পদ : কমিউনিটি অর্গানাইজার,হিসাব সহকারী, সার্ভেয়ার,কার্য সহকারী, অফিস সহকারী প্রভৃতি পদ।


পদসংখ্যা : ২,২৩৭ 


যোগ্যতা : পদভেদে জেএসসি/অষ্টম শ্রেণী পাস  থেকে স্মাতক/সমমান ডিগ্ৰি।


বয়স : ২৫ মার্চ ২০২০ তারিখে বয়স সর্বোচ্চ ৩০ বছর।তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর।


বেতনস্কেল : পদভেদে গ্ৰেড-১৩ থেকে গ্ৰেড-২০।


আবেদন প্রক্রিয়া: অনলাইন (ভিজিট: http://lged.teletalk.com.bd)



আবেদন ফি : পদভেদে ১১২টাকা থেকে ২২৩টাকা।


আবেদনের শেষ তারিখ : ৩১ জানুয়ারি,২০২৩ রাত ১২.০০টা।


সূত্র : প্রথম আলো অনলাইন 






                                      
                                               ছবি : জাকির হাসান


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি ভারতের বিপক্ষে  চট্টগ্রাম টেস্টে সেঞ্চুরি করেন বাংলাদেশের ব্যাটার জাকির হাসান। উল্লেখ্য এটি ছিল জাকির হাসানের অভিষেক টেস্ট ম্যাচ ।আর চট্টগ্রাম টেষ্টে সেঞ্চুরি করার ফলে এই তরুণ ব্যাটার টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরিয়ানদের ক্লাবে জায়গা করে নেন। উল্লেখ্য অষ্ট্রেলিয়ার চার্লস বেনারম্যান (১৮৭৭ সালে) প্রথম ব্যাটার হিসেবে টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি করেন । বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটার হিসেবে আমিনুল ইসলাম বুলবুল (২০০০ সালে) টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি করেন। বাংলাদেশের হয়ে যেসব ব্যাটার টেস্ট অভিষেকে  সেঞ্চুরি করেছেন তাদের পরিসংখ্যান দেখে নিন।


বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি 

বাংলাদেশের হয়ে ইতোমধ্যে চারজন ব্যাটার টেস্ট অভিষেকে  সেঞ্চুরি করেছেন । আমিনুল ইসলাম বুলবুল বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটার হিসেবে টেস্ট অভিষেকে (উল্লেখ্য এটি বাংলাদেশের অভিষেক টেস্ট ম্যাচ ছিল) সেঞ্চুরি করেন। বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি করা ব্যাটারদের পরিসংখ্যান দেখে নিন।


আমিনুল ইসলাম বুলবুল ,১৪৫ 


আমিনুল ইসলাম বুলবুল (ভারতের বিপক্ষে ২০০০ সালে ) বাংলাদেশের হয়ে প্রথম টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি করেন। সেইম্যাচে আমিনুল ইসলাম বুলবুল ৩৮০ বল মোকাবিলা করে  ১৪৫ রানের দারুণ এক  ইনিংস খেলেন।


মোঃ আশরাফুল 


২০০১ সালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটার হিসেবে মোঃ আশরাফুল (শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে)  টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি করেন।সেইম্যাচে আশরাফুল ২১২ বল মোকাবিলা করে ১১৪ রানের  চমৎকার এক ইনিংস খেলেন।



 আবুল হাসান


২০১২ সালে আবুল হাসান বাংলাদেশের তৃতীয় ব্যাটার হিসেবে নিজের টেস্ট অভিষেকে(প্রতিপক্ষ ওয়েষ্ট ইন্ডিজ) সেঞ্চুরি করেন। সেইম্যাচে আবুল হাসান ১২৩ বল মোকাবিলা করে ১১৩ রানের দারুণ এক ইনিংস উপহার দেন।
 

জাকির হাসান

সম্প্রতি জাকির হাসান ( ভারতের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে ) বাংলাদেশের চতুর্থ ব্যাটার হিসেবে নিজের টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি করেন। জাকির হাসানের ইনিংসটি ছিল ১০০ রানের এবং নিজের অভিষেক টেস্ট সেঞ্চুরির ম্যাচে এই তরুণ ব্যাটার ২২৪ বল মোকাবিলা করেন ।

 

                                                                


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ ৬ জানুয়ারি মাঠে গড়াবে এবারের (২০২৩) বিপিএল (বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ)। এছাড়া ১৬ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ এবারের বিপিএলের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।  ইতোমধ্যে ২০২৩ বিপিএলের টিম, ভেন্যু , সিডিউল ইত্যাদি চূড়ান্ত হয়েছে। এবারের বিপিএলের  টিম, ভেন্যু ও বিস্তারিত সিডিউল এখানে দেখে নিন।


২০২৩ বিপিএলের টিম 


এবারের (২০২৩) বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ৭টি দল (টিম) অংশ নেবে।২০২৩ বিপিএলের টিমগুলো দেখে নিন।

১. ঢাকা ডমিনেটর্স 

২. কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স 

৩. চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স 

৪. ফরচুন বরিশাল

৫. সিলেট স্ট্রাইকার্স 

৬. খুলনা টাইগার্স 

৭. রংপুর রাইডার্স 



২০২৩ বিপিএলের ভেন্যু 


২০২৩ বিপিএলের ম্যাচগুলো দেশের তিনটি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে। এবারের বিপিএলের ভেন্যুগুলো এখানে দেখে নিন।

১. শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম,ঢাকা।

২. জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম,চট্টগ্ৰাম।

৩. সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে স্টেডিয়াম, সিলেট।





২০২৩ বিপিএলের সিডিউল 


২০২৩ বিপিএল ৬ জানুয়ারি,২০২৩ থেকে ১৬ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ পর্যন্ত চলবে। এবারের বিপিএলের সিডিউল এখানে তুলে ধরা হলো।

৬ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্ৰাম v সিলেট - ভেন্যু (ঢাকা)- দুপুর ২.৩০।

৬ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাv রংপুর- ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.১৫।

৭ জানুয়ারি,২০২৩ - ঢাকাv খুলনা- ভেন্যু (ঢাকা) - দুপুর ২.০০।

৭ জানুয়ারি,২০২৩ - বরিশাল v সিলেট - ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.০০।

৯ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লা v সিলেট - ভেন্যু (ঢাকা)- দুপুর ২.০০।

৯ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্রামvখুলনা - ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.০০।

১০ জানুয়ারি,২০২৩ - বরিশাল v রংপুর - ভেন্যু (ঢাকা)-দুপুর ২.০০।

১০ জানুয়ারি,২০২৩ - ঢাকাv সিলেট- ভেন্যু (ঢাকা)- সন্ধ্যা ৭.০০।

১৩ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্ৰামvবরিশাল - ভেন্যু (চট্টগ্ৰাম) - দুপুর ২.৩০।

১৩ জানুয়ারি,২০২৩ - খুলনাvরংপুর - ভেন্যু (চট্টগ্রাম) - সন্ধ্যা ৭.১৫।

১৪ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvবরিশাল - ভেন্যু (চট্টগ্রাম)- দুপুর ২.০০।

১৪ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্ৰামvঢাকা - ভেন্যু (চট্টগ্রাম) - সন্ধ্যা ৭.০০।

১৬ জানুয়ারি,২০২৩ - ঢাকাvসিলেট - ভেন্যু (চট্টগ্রাম) - দুপুর ২.০০।

১৬ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্ৰামvকুমিল্লা - ভেন্যু (চট্টগ্রাম)- সন্ধ্যা ৭.০০।

১৭ জানুয়ারি,২০২৩- খুলনাvরংপুর - ভেন্যু (চট্টগ্রাম)- দুপুর ২.০০।

১৭ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvসিলেট - ভেন্যু (চট্টগ্রাম)- সন্ধ্যা ৭.০০।

১৯ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvঢাকা- ভেন্যু (চট্টগ্রাম)-দুপুর ২.০০।

১৯ জানুয়ারি,২০২৩ - বরিশালvরংপুর- ভেন্যু (চট্টগ্রাম)- সন্ধ্যা ৭.০০।

২০ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্রামvখুলনা - ভেন্যু (চট্টগ্রাম) -দুপুর ২.৩০।

২০ জানুয়ারি,২০২৩ - ঢাকাvবরিশাল - ভেন্যু (চট্টগ্রাম) -সন্ধ্যা ৭.১৫ ।

২৩ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্রামvরংপুর - ভেন্যু (ঢাকা)-দুপুর ২.০০।

২৩ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvঢাকা - ভেন্যু (ঢাকা)- সন্ধ্যা ৭.০০।

২৪ জানুয়ারি,২০২৩ - বরিশালvসিলেট - ভেন্যু (ঢাকা)- দুপুর ২.০০।

২৪ জানুয়ারি,২০২৩ - খুলনাvঢাকা - ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.০০।

২৭ জানুয়ারি,২০২৩ - রংপুরvসিলেট - ভেন্যু (সিলেট) - দুপুর ২.৩০।

২৭ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্রামvবরিশাল - ভেন্যু (সিলেট)- সন্ধ্যা ৭.১৫।

২৮ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvখুলনা - ভেন্যু (সিলেট) - দুপুর ২.০০।

২৮ জানুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্রামvসিলেট - ভেন্যু (সিলেট) - সন্ধ্যা ৭.০০।

৩০ জানুয়ারি,২০২৩ - ঢাকাvরংপুর - ভেন্যু (সিলেট) - দুপুর ২.০০।

৩০ জানুয়ারি,২০২৩ - খুলনাvসিলেট - ভেন্যু (সিলেট) - সন্ধ্যা ৭.০০।

৩১ জানুয়ারি,২০২৩ - ঢাকাvবরিশাল - ভেন্যু (সিলেট)- দুপুর ২.০০।

৩১ জানুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvখুলনা - ভেন্যু (সিলেট)- সন্ধ্যা ৭.০০।

৩ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - বরিশালvখুলনা - ভেন্যু (ঢাকা) - দুপুর ২.৩০।

৩ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - ঢাকাvরংপুর - ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.১৫।

৪ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্রামvকুমিল্লা - ভেন্যু (ঢাকা)- দুপুর ২.০০।

৪ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - রংপুরvসিলেট  - ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.০০।

৭ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - চট্টগ্রামvঢাকা - ভেন্যু (ঢাকা)-দুপুর ২.০০।

৭ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvবরিশাল - ভেন্যু (ঢাকা)- সন্ধ্যা ৭.০০।

৮ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - খুলনাvসিলেট - ভেন্যু (ঢাকা)-দুপুর ২.০০।

৮ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - রংপুরvচট্টগ্ৰাম - ভেন্যু (ঢাকা) সন্ধ্যা ৭.০০।

১০ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - কুমিল্লাvরংপুর - ভেন্যু (ঢাকা)-দুপুর ২.০০।

১০ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - বরিশালvখুলনা - ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.০০।

১২ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ -এলিমিনেটর - ভেন্যু (ঢাকা)-দুপুর ২.০০।

১২ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - ১ম কোয়ালিফায়ার- ভেন্যু (ঢাকা)- সন্ধ্যা ৭.০০।

১৪ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - ২য় কোয়ালিফায়ার- ভেন্যু (ঢাকা)- সন্ধ্যা ৭.১৫।

১৬ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ - ফাইনাল - ভেন্যু (ঢাকা) - সন্ধ্যা ৭.১৫।



                                                                
                


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি ফুটবল কিংবদন্তি পেলে মৃত্যুবরণ করেছেন।মৃত্যুকালে এই ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তির বয়স হয়েছিল ৮২ বছর।পেলের মৃত্যুর ফলে ক্রীড়াবিশ্বের এক লিজেন্ডের জীবনাবসান হলো। উল্লেখ্য জনপ্রিয়তা বিবেচনায় পেলেকে সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রীড়াব্যক্তিত্ব হিসেবে গণ্য করা হয়।প্রয়াত এই ফুটবল কিংবদন্তির বিভিন্ন অজানা রেকর্ড এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।


পেলের বিভিন্ন অজানা রেকর্ড


ফুটবল তথা ক্রীড়াজগতের সর্বকালের সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব হিসেবে পেলেকে গণ্য করা হয়।এই ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তি তিনটি ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের বিরল রেকর্ডের অধিকারী। এছাড়া আরও অসংখ্য রেকর্ডের অধিকারী ছিলেন এই ফুটবলার। পেলের বিভিন্ন অজানা রেকর্ড এখানে দেখে নিন।


পেলের পুরো নাম 


ক্রীড়েবিশ্বে পেলে নামে পরিচিত হলেও এই কিংবদন্তি ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারের  পুরো নাম  'এদসোঁ আরাঁচ দু লাসিমেতুঁ '।




সবচেয়ে কম বয়সে বিশ্বকাপ জয় 


ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তি পেলে সবচেয়ে কম বয়সে বিশ্বকাপ ফুটবল শিরোপা জয় করেন যা আর কারো নেই। উল্লেখ্য পেলে ১৯৫৮ সালে (১৭ বছর ২৪৯ দিন বয়সে)ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ জয় করেন ।


তিনবার বিশ্বকাপ জয় 


পেলে ব্রাজিলের হয়ে তিনবার (১৯৫৮,১৯৬২ ও ১৯৭০) বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করেন যা আর কারো নেই।


সবচেয়ে কম বয়সে বিশ্বকাপ গোল 


পেলের রেকর্ডগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি রেকর্ড হচ্ছে সবচেয়ে কম বয়সে বিশ্বকাপে গোল করা ফুটবলার ছিলেন এই কিংবদন্তি ফুটবলার। উল্লেখ্য ১৯৫৮ সালের ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপে এই ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি ওয়েলসের বিপক্ষে সর্বকনিষ্ঠ ফুটবলার (১৭ বছর ২৩৯ দিন বয়সে) হিসেবে গোল করেন।


বিশ্বকাপে সর্বকনিষ্ঠ হ্যাটট্রিককারী 


পেলে ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের সর্বকনিষ্ঠ হ্যাটট্রিককারী।১৯৫৮ সালের ফুটবল বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে এই ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি ফ্রান্সের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেন এবং সেদিন তাঁর বয়স ছিল ১৭ বছর ২৪৪ দিন।


পেলের জন্য যুদ্ধবিরতি 


একবার (১৯৬৯ সালে) পেলের ক্লাবদল সান্তোস এফসি নাইজেরিয়ায় প্রীতিম্যাচ খেলতে গিয়েছিল এবং সেসময় নাইজেরিয়ায় গৃহযুদ্ধ চলছিল।কথিত আছে  পেলের দলের খেলার জন্য সেখানে বিবাদমান গ্ৰুপগুলো যুদ্ধবিরতি দিয়েছিল।


পেলে কখনো ইউরোপীয় ক্লাবে খেলেননি 


পেলে তিনবার বিশ্বকাপ জয়ী ফুটবলার হলেও তিনি কখনো ইউরোপের কোন লিগে বা ক্লাবে খেলেননি যদিও তাকে রিয়াল মাদ্রিদ,এসি মিলানের মতো ক্লাব তাদের দলে ভেড়াতে চেয়েছিল।তবে এই ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তি ১৯৭০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ক্লাবের হয়ে লিগ ফুটবল খেলেছেন।


৫০ বছর বয়সে অধিনায়কত্ব 


পেলে সর্বকালের সেরা ফুটবলার হলেও তিনি জাতীয় দলের হয়ে কখনো অধিনায়কত্ব করেননি।তাকে বহুবার ব্রাজিল জাতীয় দল ও বিভিন্ন ক্লাবের অধিনায়কত্ব করার অফার দেয়া হলেও তিনি কখনো রাজি হননি।তবে এই ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তি ৫০ বছর বয়সে এক আন্তর্জাতিক প্রীতিম্যাচে (১৯৯০সালে) ব্রাজিলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন যা পেলের প্রথমবার অধিনায়কত্ব করার রেকর্ড হিসেবে রয়ে গেছে।


দর্শকরা একবার পেলেকে অপহরণ করেছিল 


পেলে একবার সান্তোস এফসির হয়ে ত্রিনিদাদ ও টোবাগোতে ম্যাচ খেলতে যান এবং ম্যাচের ৪৩ মিনিটে গোল করেন এই ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তি।খেলা শেষে  একদল দর্শক হঠাৎ মাঠে প্রবেশ করে এবং পেলেকে কাঁধে নিয়ে মাঠের বাইরে চলে যায়।পরে পেলেকে দর্শকদের হাত থেকে উদ্ধার করতে বেশ বেগ পেতে হয়েছিল।


পেলে ভালো গোলরক্ষকও ছিলেন 


খেলোয়াড়ি জীবনে ফরোয়ার্ড হিসেবে সবচেয়ে সফল হলেও পেলে গোলরক্ষক হিসেবেও ভালো ছিলেন।পেলে ব্রাজিল জাতীয় দল ও সান্তোস এফসি  ক্লাবের বিকল্প গোলরক্ষক ছিলেন।সান্তোস এফসির হয়ে বহুবার তিনি গোলরক্ষকের দায়িত্ব সফলভাবে পালন করেছেন।


পেলে একসময় ব্রাজিলের ক্রীড়ামন্ত্রী ছিলেন 


পেলে একসময় (১৯৯৫-১৯৯৮) ব্রাজিলের ক্রীড়ামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন এবং সেসময়  ফুটবলারদের কল্যাণে কিছু চমৎকার আইন করেন যা প্রশংসিত হয়।এই ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তি ১৯৯৫ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত ব্রাজিলের ক্রীড়ামন্ত্রী ছিলেন।


পেলের আত্মজীবনী গ্ৰন্থ 


সদ্যপ্রয়াত ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কিংবদন্তি পেলের আত্মজীবনী গ্ৰন্থের নাম 'পেলে:দি অটোবায়োগ্রাফি'।


                                                               
                                            ছবি: জাফনা কিংস


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি এলপিএলের (লংকান প্রিমিয়ার লিগ)  এবারের আসর সমাপ্ত হয়েছে। জাফনা কিংস এবারের এলপিএলের শিরোপা জিতেছে। ফাইনালে জাফনা কিংস কলম্বো স্টারসকে ২ উইকেটে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়।সদ্যসমাপ্ত লংকান প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ পারফরমারদের (সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক পাঁচ ব্যাটার ও সর্বাধিক উইকেট শিকার পাঁচ বোলার) পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরা হলো।


শীর্ষ পাঁচ ব্যাটার 


এবারের (২০২২) লংকান প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক পাঁচ ব্যাটারের পরিসংখ্যান দেখে নিন।

১. আভিস্কা ফার্নান্ডো (জাফনা কিংস) - ১০ ম্যাচে ৩৯৯ রান।

২. সাদিরা সামারাবিক্রমা (জাফনা কিংস) - ৯ ম্যাচে ২৯৪ রান।

৩. দীনেশ চান্দিমাল ( কলম্বো স্টারস) - ১১ ম্যাচে ২৮৭ রান।

৪. আন্দ্রে ফ্লেচার  (ক্যান্ডি ফ্যালকন্স) - ৯ ম্যাচে ২৬৬ রান।

৫. কামিন্ডু মেন্ডিস ( ক্যান্ডি ফ্যালকন্স) - ১০ ম্যাচে ২৬০ রান।




শীর্ষ পাঁচ বোলার 


এবারের (২০২২) এলপিএলের সর্বাধিক উইকেট শিকারি শীর্ষ পাঁচ বোলারের পরিসংখ্যান দেখে নিন।

১. কার্লোস ব্রার্থওয়েট (ক্যান্ডি ফ্যালকন্স) - ৮ ম্যাচে ১৮ উইকেট।

২. নুয়ান থুশারা (গল গ্ল্যাডিয়েটর্স) - ৯ ম্যাচে ১৪ উইকেট।

৩. কাসুন রাজিথা (কলম্বো স্টারস) - ৮ ম্যাচে ১৩ উইকেট।

৪. বিজয়কান্ত বিয়াসকান্ত ( জাফনা কিংস) - ৮ ম্যাচে ১৩ উইকেট।

৫. বিনুরা ফার্নান্ডো ( জাফনা কিংস) - ৫ ম্যাচে ১২ উইকেট।



                                                                


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা, কারিগরি ও ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা  শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক পদে আবেদন চলছে।সম্প্রতি বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)  শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগের চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এখানে এনটিআরসিএর চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তির বিস্তারিত দেখে নিন।


পদ : সহকারী শিক্ষক, প্রভাষক 


পদসংখ্যা : ৬৮,৩৯০টি 


কোথায় কয়টি পদ 


১.স্কুল ও কলেজে ৩১,৩০৮টি


২.মাদ্রাসা, কারিগরি ও ব্যবসা ব্যবস্থাপনা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৩৬,৮৮২টি।



পদের ধরন : এমপিওভুক্ত শূন্যপদ।


যোগ্যতা 


১. নিবন্ধনধারী ।

২. এনটিআরসিএর সম্মিলিত মেধা তালিকাভুক্ত।

৩. মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর এবং কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে জারিকৃত সর্বশেষ জনবল কাঠামো অনুযায়ী কাম্য শিক্ষাগত যোগ্যতা।



বয়স : ২৫ মার্চ,২০২০ তারিখে ৩৫ বছর বা তার কম।


আবেদন প্রক্রিয়া: অনলাইন (ভিজিট http://ngi.teletalk.com.bd অথবা www.ntrca.gov.bd)।


আবেদন ফি : ১,০০০ টাকা।


আবেদনের শেষ তারিখ : ২৯ জানুয়ারি,২০২৩ ।


সূত্র : প্রথম আলো অনলাইন



                                                                 
                                     ছবি: বিশ্বকাপ জয়ী আর্জেন্টিনা টিম


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি শেষ হয়েছে এবারের ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ।২০২২ ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আর্জেন্টিনা। ফাইনালে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা ফ্রান্সকে টাইব্রেকারে ৪-২ ব্যবধানে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয় । উল্লেখ্য এবারের ফুটবল বিশ্বকাপ ছিল এই বৈশ্বিক ক্রিড়া ইভেন্টের ২২তম আসর এবং এবারের ফুটবল বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ ছিল কাতার। ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।


ফুটবল বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন পরিসংখ্যান 


ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ ফুটবল তথা বৈশ্বিক ক্রিড়াজগতের সবচেয়ে বৃহৎ আসর।বিশ্বব্যাপী ক্রিড়ামোদীদের কাছে ফুটবল বিশ্বকাপের আলাদা কদর রয়েছে। ফুটবল বিশ্বকাপ  চারবছর পর পর হয়ে থাকে। উল্লেখ্য ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের প্রথম আসর ১৯৩০ সালে অনুষ্ঠিত হয় এবং সেই আসরে উরুগুয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। ফুটবল বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন পরিসংখ্যান এখানে দেখে নিন।

১৯৩০ - চ্যাম্পিয়ন - উরুগুয়ে 

১৯৩৪ - চ্যাম্পিয়ন - ইতালি 

১৯৩৮ - চ্যাম্পিয়ন- ইতালি

১৯৫০ -চ্যাম্পিয়ন - উরুগুয়ে

১৯৫৪ - চ্যাম্পিয়ন - জার্মানি

১৯৫৮ - চ্যাম্পিয়ন -  ব্রাজিল  

১৯৬২ - চ্যাম্পিয়ন - ব্রাজিল

১৯৬৬ - চ্যাম্পিয়ন - ইংল্যান্ড 

১৯৭০ - চ্যাম্পিয়ন - ব্রাজিল 

১৯৭৪ - চ্যাম্পিয়ন - জার্মানি 

১৯৭৮ - চ্যাম্পিয়ন - আর্জেন্টিনা 

১৯৮২ - চ্যাম্পিয়ন - ইতালি 

১৯৮৬ - চ্যাম্পিয়ন - আর্জেন্টিনা 

১৯৯০ - চ্যাম্পিয়ন - জার্মানি 

১৯৯৪ - চ্যাম্পিয়ন - ব্রাজিল

১৯৯৮ - চ্যাম্পিয়ন - ফ্রান্স 

২০০২ - চ্যাম্পিয়ন - ব্রাজিল 

২০০৬ - চ্যাম্পিয়ন - ইতালি 

২০১০ - চ্যাম্পিয়ন - স্পেন 

২০১৪ - চ্যাম্পিয়ন - জার্মানি 

২০১৮ - চ্যাম্পিয়ন - ফ্রান্স 

২০২২ - চ্যাম্পিয়ন - আর্জেন্টিনা 


                                                         


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ আজ ২৫ ডিসেম্বর শুভ বড়দিন। খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন।বিশ্বব্যাপী খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীরা এদিনটি বিশেষ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালন করে থাকেন।'প্রিয় ক্রিকেট ডটকম'এর পক্ষ থেকে খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের বড়দিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

                                                                 
                                         ছবি: মেহেদী হাসান মিরাজ


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি বাংলাদেশের ওয়ানডে সেঞ্চুরিয়ানদের তালিকায় নাম লিখিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে মিরাজ দারুণ এক সেঞ্চুরি হাঁকান।এটি ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের  ৬২তম সেঞ্চুরির রেকর্ড। উল্লেখ্য বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে ইতোমধ্যে ১৭জন ব্যাটার মোট ৬২টি সেঞ্চুরি করেছেন। বাংলাদেশের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরিয়ান মেহরাব হোসেন অপি।এখানে বাংলাদেশের ওয়ানডে সেঞ্চুরিয়ানদের রেকর্ডচিত্র দেখে নিন।


সর্বাধিক সেঞ্চুরি 


তামিম ইকবাল বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বাধিক (১৪টি) সেঞ্চুরি করেছেন। তামিমের সেরা ওয়ানডে ইনিংসটি ১৫৮ রানের। 

সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস 


বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংসটি খেলেছেন লিটন দাস (১৭৬ রান)।

বাংলাদেশের ওয়ানডে সেঞ্চুরিয়ান 


বাংলাদেশের হয়ে ইতোমধ্যে ১৭জন ব্যাটার মোট ৬২টি সেঞ্চুরি হাকিয়েছেন। সর্বশেষ মেহেদী হাসান মিরাজ বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করলেন। উল্লেখ্য ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ সংখ্যক সেঞ্চুরি করেছেন  তামিম ইকবাল (১৪টি)। সেইসাথে উল্লেখ্য একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম সেঞ্চুরি করেন মেহরাব হোসেন অপি। বাংলাদেশের ওয়ানডে সেঞ্চুরিয়ানদের পরিসংখ্যান দেখে নিন।

তামিম ইরবাল - ২৩১ ম্যাচে ১৪টি সেঞ্চুরি।

সাকিব আল হাসান - ২২৩ ম্যাচে ৯টি সেঞ্চুরি।

মুশফিকুর রহিম - ২৩৮ ম্যাচে ৮টি সেঞ্চুরি।

লিটন দাস - ৫৯ ম্যাচে ৫টি সেঞ্চুরি।

শাহরিয়ার নাফিস - ৭৫ ম্যাচে ৪টি সেঞ্চুরি।

ইমরুল কায়েস - ৭৮ ম্যাচে ৪টি সেঞ্চুরি।

এনামুল হক বিজয় - ৪৩ ম্যাচে ৩টি সেঞ্চুরি।

মোঃ আশরাফুল - ১৭৫ ম্যাচে ৩টি সেঞ্চুরি।

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ -২১৪ ম্যাচে ৩টি সেঞ্চুরি।

সৌম্য সরকার - ৬১ ম্যাচে ২টি সেঞ্চুরি।



একটি করে সেঞ্চুরি যাদের 


বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে একটি করে সেঞ্চুরি করেছেন যথাক্রমে মেহরাব হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ,রাজিন সালেহ, নাসির হোসেন, জোনায়েদ সিদ্দিক, সাব্বির রহমান ও অলক কাপালি।

                                                                 


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি আসন্ন বিপিএলের (বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ) প্লেয়ার ড্রাফট সম্পন্ন হয়েছে।আগেই ফ্রাঞ্চাইজিগুলো সরাসরি চুক্তির মাধ্যমে কিছু প্লেয়ারকে নিজেদের টিমে ভিড়িয়েছিল এবং সম্প্রতি প্লেয়ার ড্রাফট থেকে তাঁরা নিজেদের স্কোয়াড পূর্ণ করে। প্লেয়ার ড্রাফট শেষে কেমন হলো আসন্ন বিপিএলের সাত স্কোয়াড সেটি এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।




ঢাকা ডমিনেটরস 


ঢাকা ডমিনেটরস আসন্ন বিপিএলের জন্য নিজেদের স্কোয়াড বেছে নিয়েছে।এই টিমে এবার বেশকজন দেশি-বিদেশি তারকা প্লেয়ার রয়েছেন।ঢাকা ডমিনেটরসের হয়ে আসন্ন বিপিএলে তাসকিন আহমেদ,সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, শরিফুল ইসলাম,চামিকা করুণারত্নে, আহমেদ শেহজাদ,শান মাসুদের মত সেরা টিটুয়েন্টি প্লেয়াররা খেলবেন।ঢাকা ডমিনেটরসের চূড়ান্ত স্কোয়াড দেখে নিন।

সরাসরি চুক্তিবদ্ধ : তাসকিন আহমেদ, চামিকা করুণারত্নে,দিলসান মুনাবিরা ।


ড্রাফট থেকে নেয়া: মোহাম্মদ মিঠুন, সৌম্য সরকার , শরিফুল ইসলাম , আল-আমিন হোসেন,অলক কাপালি, নাসির হোসেন, আরাফাত সানি,শান মাসুদ, আহমেদ শেহজাদ , আরিফুল হক, মুক্তার আলী, মিজানুর রহমান,মনির হোসেন খান, উসমান গনি, সালমান ইরশাদ ।




কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স 


কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এবারও তারকাসমৃদ্ধ টিম করেছে।এই টিমে এবার লিটন দাস, মোহাম্মদ রিজওয়ান, মুস্তাফিজুর রহমান, শাহিন শাহ আফ্রিদি,ব্রেন্ডন কিং, মোসাদ্দেক হোসেন,চ্যাডউইক ওয়ালটন, মোঃ নবী,শন উইলিয়ামসের মত তারকা প্লেয়াররা রয়েছেন। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের চূড়ান্ত স্কোয়াড দেখে নিন।

সরাসরি চুক্তিবদ্ধ : মুস্তাফিজুর রহমান, শাহিন শাহ আফ্রিদি, মোহাম্মদ রিজওয়ান, হাসান আলি,খুশদিল শাহ, মোহাম্মদ নবী,আবরার আহমেদ,জস কেবি,ব্রেন্ডন কিং ।


ড্রাফট থেকে নেয়া: লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন,ইমরুল কায়েস, তানভীর ইসলাম,আশিকুর জামান,জাকের আলি অনিক,শন উইলিয়ামস,চ্যাডউইক ওয়ালটন,আবু হায়দার রনি, সৈকত আলি,নাঈম হাসান,মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন, দেলোয়ার হোসেন।



চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স 


চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স বেশ ব্যালেন্সড স্কোয়াড করেছে। চট্রগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সে সেরা প্লেয়ারদের মধ্যে রয়েছেন আফিফ হোসেন,কার্টিস ক্যাম্ফার,ম্যাক্স ওডুয়াড, তাইজুল ইসলাম, শুভাগত হোম। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের চূড়ান্ত স্কোয়াড দেখে নিন।

সরাসরি চুক্তিবদ্ধ :  আফিফ হোসেন,কার্টিস ক্যাম্ফার,বিশ্ব ফার্নান্ডো,আশান প্রিয়াঞ্জন।


ড্রাফট থেকে নেয়া: শুভাগত হোম, মেহেদি হাসান রানা,জিয়াউর রহমান,মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, ইরফান শুক্কুর,ম্যাক্স ওডুয়াড, মেহেদি হাসান মারুফ,তাইজুল ইসলাম, উন্মুক্ত চাঁদ,আবু জায়েদ রাহী, ফরহাদ রেজা, তৌফিক খান তুষার।


খুলনা টাইগার্স 


খুলনা টাইগার্সে এবার বেশকজন দেশি-বিদেশি তারকা প্লেয়ার রয়েছেন।এই টিমে তারকা প্লেয়ারদের মধ্যে রয়েছেন তামিম ইকবাল, মোঃ সাইফুদ্দিন,আভিস্কা ফার্নান্ডো, ইয়াসির আলি চৌধুরী,দাসুন শানাকা, সাব্বির রহমান, ওয়াহাব রিয়াজ। খুলনা টাইগার্সের চূড়ান্ত স্কোয়াড দেখে নিন।

সরাসরি চুক্তিবদ্ধ: তামিম ইকবাল,আজম খান ,ওয়াহাব রিয়াজ,নাসিম শাহ,আভিষ্কা ফার্নান্ডো।


ড্রাফট থেকে নেয়া: ইয়াসির আলি চৌধুরী, মোঃ সাইফুদ্দিন,নাসুম আহমেদ, নাহিদুল ইসলাম, সাব্বির রহমান,মুনিম শাহরিয়ার,দাসুন শানাকা,পল ফন মিকিরিন, শফিকুল ইসলাম,মাহমুদুল হাসান জয়, হাবিবুর রহমান সোহান,প্রীতম কুমার।


ফরচুন বরিশাল 


ফরচুন বরিশাল বেশ শক্তিশালী একটি টিম করেছে।এই টিমে বেশকজন দেশি-বিদেশি তারকা প্লেয়ার রয়েছেন। ফরচুন বরিশালের তারকা প্লেয়ারদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ,ক্রিস গেইল,কুশল পেরেরা,রাকিম কর্নওয়াল, এবাদত হোসেন, , মোঃ ওয়াসিম, ইফতেখার আহমেদ।

সরাসরি চুক্তিবদ্ধ: সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ ওয়াসিম,রাকিম কর্নওয়াল,ক্রিস গেইল, ইফতেখার আহমেদ, ইব্রাহিম জাদরান,নাভিন উল হক,কুশল পেরেরা, উসমান কাদির, রহমতউল্লাহ গুরবাজ,করিম জানাত।


ড্রাফট থেকে নেয়া: মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, এনামুল হক বিজয়,এবাদত হোসেন, কামরুল ইসলাম রাব্বি, হায়দার আলি (পাকিস্তান), ফজলে মাহমুদ রাব্বি,চতুরাঙ্গা ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা),সাইফ হাসান,সৈয়দ খালেদ আহমেদ,কাজী অনিক, সানজামুল ইসলাম, সালমান হোসেন ইমন।


সিলেট স্ট্রাইকার্স 


সিলেট স্ট্রাইকার্স বেশ শক্তিশালী টিম করেছে। সিলেট স্ট্রাইকার্সে এবার মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুশফিকুর রহিম,থিসারা পেরেরা, মোহাম্মদ আমির, নাজমুল হোসেন শান্ত, রুবেল হোসেন, নাজমুল ইসলাম অপুর মত তারকা প্লেয়াররা রয়েছেন।

সরাসরি চুক্তিবদ্ধ : মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোহাম্মদ আমির,থিসারা পেরেরা, মোহাম্মদ হারিস, রায়ান বার্লে, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা,কলিন একারম্যান,কামিন্দু মেন্ডিস।


ড্রাফট থেকে নেয়া : মুশফিকুর রহিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, রুবেল হোসেন,নাবিল সামাদ,টম মুরস, রেজাউর রহমান রেজা, তৌহিদ হ্নদয়,গুলবাদিন নাইব, নাজমুল ইসলাম অপু, জাকির হাসান,আকবর আলি, তানজিম হাসান সাকিব, মোঃ শরীফউল্লাহ।


রংপুর রাইডার্স 


রংপুর রাইডার্স এবার ব্যালান্সড টিম করেছে।এই টিমে বেশকজন  তরুণ  ও অভিজ্ঞ তারকা প্লেয়ার রয়েছেন। রংপুর রাইডার্সের তারকা প্লেয়ারদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন সিকান্দার রাজা মোঃ নাঈম শেখ,পাথুম নিশাঙ্কা, শোয়েব মালিক, মোঃ নেওয়াজ, হাসান মাহমুদ,হারিস রউফ, শামীম হোসেন।

সরাসরি চুক্তিবদ্ধ: নুরুল হাসান, সিকান্দার রাজা,পাথুম নিশাঙ্কা, মোঃ নেওয়াজ, শোয়েব মালিক,জেফ্রি ভেন্ডারসে,হারিস রউফ।


ড্রাফট থেকে নেয়া: মোঃ নাঈম শেখ,শেখ মেহেদী হাসান, হাসান মাহমুদ,শামীম হোসেন,রিপন মন্ডল,অ্যারন জোনস,পারভেজ হোসেন ইমন, রাকিবুল হাসান,আজমউল্লাহ ওমরজাই,রনি তালুকদার, আলাউদ্দিন বাবু, রবিউল হক।


                                                               

  


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে মোট ৫,৫০০ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে। বাংলাদেশ পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল ২০২২ পদে আবেদনের বিস্তারিত এখানে দেখে নিন।


পদ : ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) 


পদসংখ্যা : ৫,৫০০ (পুরুষ ৪,৬৭৫ ও নারী ৮২৫)


যোগ্যতা : এসএসসি বা সমমান।


শারীরিক যোগ্যতা : পুরুষ 


উচ্চতা :৫ ফুট ৬ ইঞ্চি ( ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি)।


বুকের মাপ : স্বাভাবিক ৩১ ইঞ্চি , সম্প্রসারিত ৩৩ ইঞ্চি।(ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে স্বাভাবিক ৩০ ইঞ্চি , সম্প্রসারিত ৩১ ইঞ্চি)।


দৃষ্টিশক্তি : ৬/৬


শারীরিক যোগ্যতা : নারী 


উচ্চতা : ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি(ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে ৫ ফুট ২ ইঞ্চি)।


বুকের মাপ : উল্লেখ করা হয়নি।


দৃষ্টিশক্তি : ৬/৬ 


বয়স : ১৮-২০ বছর ।তবে ২৫ মার্চ,২০২০ তারিখে যারা সর্বোচ্চ বয়সসীমায় পৌঁছেছেন তারাও আবেদন করতে পারবেন। মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও অন্যান্য কোটার ক্ষেত্রেও এটি প্রযোজ্য।


বৈবাহিক অবস্থা: অবিবাহিত


বেতনস্কেল : গ্ৰেড-১৭


আবেদন ফি : ৪০ টাকা।


আবেদন প্রক্রিয়া: অনলাইন ( ভিজিট http://police.teletalk.com.bd)।


আবেদনের শেষ তারিখ : ২৮ ডিসেম্বর,২০২২ ।


নিয়োগ প্রক্রিয়া 


বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে তিনটি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হবে। অর্থাৎ ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদের নিয়োগ প্রক্রিয়া তিনটি ধাপে সম্পন্ন হবে। পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদের নিয়োগ প্রক্রিয়া ও তারিখ এখানে দেখে নিন। উল্লেখ্য প্রার্থীদের নির্ধারিত তারিখে স্ব স্ব জেলার পুলিশ লাইন্স মাঠে উপস্থিত থাকতে হবে। এছাড়া পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল নিয়োগের বিস্তারিত দেখতে সম্পূর্ণ বিজ্ঞপ্তিটি এখানে তুলে ধরা হলো।


১. শারীরিক মাপ, কাগজপত্র যাচাই ও ফিজিক্যাল এন্ডুরেন্স টেষ্ট 

বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদের শারীরিক মাপ, কাগজপত্র যাচাই ও ফিজিক্যাল এন্ডুরেন্স টেষ্ট (ভিন্ন ভিন্ন জেলায় ভিন্ন ভিন্ন সময়ে ) ৫ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ থেকে ৪ মার্চ ,২০২৩ তারিখ পর্যন্ত চলবে। 

২. লিখিত পরীক্ষা 

বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদের লিখিত পরীক্ষা ( ভিন্ন ভিন্ন জেলায় ভিন্ন ভিন্ন সময়ে) ১৫ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ থেকে ৯ মার্চ,২০২৩ তারিখ পর্যন্ত চলবে।

৩. মস্ততাত্ত্বিক ও মৌখিক পরীক্ষা 

বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদের মনস্তাত্ত্বিক ও মৌখিক পরীক্ষা (ভিন্ন ভিন্ন জেলায় ভিন্ন ভিন্ন সময়ে) ২৩ ফেব্রুয়ারি,২০২৩ থেকে ১৯ মার্চ,২০২৩ তারিখ পর্যন্ত চলবে।


                                                           

      

                                             

                                                  ছবি: ইষাণ কিষাণ


প্রিয় ক্রিকেট ডটকমঃ সম্প্রতি ভারতের ব্যাটার ইষাণ কিষাণ বাংলাদেশের বিপক্ষে তৃতীয়  ওয়ানডে ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি করেন।এটি ওয়ানডে ক্রিকেটে নবম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড। উল্লেখ্য ভারতের ব্যাটার রোহিত শর্মা ওয়ানডে ক্রিকেটে (সর্বোচ্চ) তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন। এছাড়া ওয়ানডে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংসটিও(২৬৪ রান) রোহিত শর্মা খেলেছেন। ওয়ানডের ডাবল সেঞ্চুরির পরিসংখ্যান এখানে তুলে ধরা হলো।


শচিন টেন্ডুলকারের ২০০ 

ভারতের ব্যাটার শচিন টেন্ডুলকার ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বপ্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন।২০১০ সালে শচিন টেন্ডুলকার (দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে) ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি (অপরাজিত ২০০ রান)  করেন।

বীরেন্দর শেবাগের ২১৯

ওয়ানডে ক্রিকেটে দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরিটি ভারতের ব্যাটার বীরেন্দর শেবাগের। শেবাগ ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এক ওয়ানডে ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি( ২১৯ রান) করেন।

রোহিত শর্মার ২০৯

২০১৩ সালে ভারতের ব্যাটার রোহিত শর্মা অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এক ওয়ানডে ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি(২০৯ রান) করেন।এটি ছিল ওয়ানডে ক্রিকেটে তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড।


রোহিত শর্মার ২৬৪ 

২০১৪ সালে ভারতের ব্যাটার রোহিত শর্মা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২৬৪ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেন।এটি ছিল ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে চতুর্থ ডাবল সেঞ্চুরি।

ক্রিস গেইলের ২১৫ 

উইন্ডিজ ব্যাটার ক্রিস গেইল ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে ক্রিকেটের পঞ্চম ডাবল সেঞ্চুরিটি করেন ।গেইলের সেই ইনিংসটি ছিল ২১৫ রানের।


মার্টিন গাপটিলের ২৩৭ 

ওয়ানডে ক্রিকেটের ষষ্ট ডাবল সেঞ্চুরিটি করেন কিউই ব্যাটার মার্টিন গাপটিল (২০১৫ সালে ওয়েষ্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে)।গাপটিলের ডাবল সেঞ্চুরিটি ছিল অপরাজিত ২৩৭ রানের।


রোহিত শর্মার ২০৮ 

২০১৭ সালে ভারতের ব্যাটার রোহিত শর্মা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এক ওয়ানডে ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি (অপরাজিত ২০৮ রান) করেন।এটি ছিল রোহিত শর্মার ব্যক্তিগত তৃতীয় ও ওয়ানডে ক্রিকেটের সপ্তম ডাবল সেঞ্চুরি।

ফখর জামানের ২১০ 


২০১৮ সালে পাকিস্তানের ব্যাটার ফখর জামান (অপরাজিত ২১০ রান, প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে) ওয়ানডে ক্রিকেটের  ডাবল সেঞ্চুরি করেন।এটি ছিল ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে অষ্টম ডাবল সেঞ্চুরি।


ইষাণ কিষাণের ২১০ 


সম্প্রতি (১০ ডিসেম্বর,২০২২) ভারতের ব্যাটার ইষাণ কিষাণ বাংলাদেশের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি (২১০ রান)করেন। এটি ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে নবম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড।